মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২ ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
অ+
অ-

মুরাদনগরে প্রাথমিকে বৃত্তি পেয়েছে ২৮৯ শিক্ষার্থী:মেয়েরা এগিয়ে

মোঃ মোশাররফ হোসেন মনিরঃ

২০১৫ সালের প্রাথমিক বৃত্তির ফলাফল বুধবার ঘোষণা করা হয়েছে। কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে মোট বৃত্তি পেয়েছে ২৮৯ শিক্ষার্থী। ট্যালেন্টপুলে ১৫৩ ও সাধারন গ্রেডে ১৩৬ জন বৃত্তি পেয়েছে। এর মধ্যে ৪৪ জন শিক্ষার্থী বৃত্তি পেয়ে শীর্ষ স্থানে রয়েছে টনকি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

জানা যায়, মুরাদনগর উপজেলা থেকে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় ৫হাজার ৯শত ৯০ জন ছাত্র ও ৭হাজার ৭শত ২৬জন ছাত্রীসহ মোট ১৩ হাজার ৭শত ১৬ জন শিক্ষার্থী অংশ গ্রহন করে। এর মধ্য থেকে এবার ২৮৯ জন শিক্ষাথীকে প্রাথমিক বৃত্তি প্রদান করা হয়। ২৮৯ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে এবার ১৪৫ জন ছাত্রী বৃত্তি পেয়ে ছেলেদের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে। ছেলে পেয়েছে ১৪৪ জন। অপর দিকে টনকি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ১৯০ জন সমাপনি পরিক্ষার্থীর মধ্যে মোট ৪৪ জন শিক্ষার্থী বৃত্তি পেয়ে উপজেলায় শীর্ষে রয়েছে। ট্যালেন্টপুলে পেয়েছে ৩৯ জন এবং সাধারন গ্রেডে পেয়েছে ৫ জন।

এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য বৃত্তি পওয়া স্কুল গুলো হলো, মুরাদনগর সরকারী মডেল স্কুল থেকে ১১ জন এর মধ্যে ট্যালেন্টপুলে ১০জন, করুইবাড়ী সরকারী স্কুল থেকে ১১ জনের মধ্যে ট্যালেন্টপুলে ১০জন, মুরাদনগর ইকরা এমআই একাডেমী থেকে ১১ জনের মধ্যে ট্যালেন্টপুলে ৭ জন, দারোরা সরকারী স্কুল থেকে ১২ জনের মধ্যে ট্যালেন্টপুলে ৯জন, আকুবপুর সরকারী স্কুল থেকে ৮ জনের মধ্যে ট্যালেন্টপুলে ৬ জন, বাখরনগর(পূর্ব) সরকারী স্কুল থেকে ৬ জনের মধ্যে ট্যালেন্টপুলে ৪ জন, কামাল্লা(পূর্ব) সরকারী স্কুল থেকে ৬ জনের মধ্যে ট্যালেন্টপুলে ১ জন, বেগমগঞ্জ সরকারী স্কুল থেকে ৩ জন এর মধ্যে ৩জনই ট্যালন্টপুলে, দিলালপুর সরকারী স্কুল থেকে ২ জন সাধারনে, রহিমপুর সরকারী স্কুল থেকে ১জন সাধারন গ্রেডে বৃত্তি পায়।

এ বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার এএনএম মাহাবুব আলম বলেন, এবার বৃত্তি ও সমাপনী পরীক্ষায় সন্তুষ্ঠ জনক ফলাফল হয়েছে। আমারে শিক্ষার মান ও পরিবেশ উন্নয়নের ফলে এবার আমরা কোটার চেয়েও বেশী বৃত্তি পেতে সক্ষম হয়েছি।

print

কুমিল্লা : আরো পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন