ঢাকা ১২:৪৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুরাদনগরে মাদরাসা শিক্ষককে দায়িত্ব পালন থেকে অব্যাহতি

মো. শরিফুল আলম চৌধুরী,:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা য় এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে অনিয়মের অভিযোগে এক শিক্ষককে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার দারোরা দীনেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে বাংলা দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা চলা কালে এ ঘটনা ঘটে।

দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি প্রাপ্ত শিক্ষকের নাম আবু জাহের। সে উপজেলার কাজিয়াতল দক্ষিন পাড়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার জুনিয়র শিক্ষক পদে কর্মরত রয়েছেন।
মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রতিনিধি উপজেলা প্রাথমিক সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা সায়মা সুলতানা জানান, সকালে দারোরা দীনেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে তিনি ও উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা ইউএনও’র প্রতিনিধি হয়ে দায়িত্ব পালন করছিলেন। এ সময় ওই শিক্ষককে কেন্দ্রে নিয়মবহির্ভূতভাবে স্মার্টফোন ব্যবহারসহ নানা অনিয়ম দেখতে পান। এসব অনিয়মের অভিযোগে কেন্দ্র সচিবসহ অন্যান্যদের সুপারিশে তাকে বহিস্কার না করে  তাৎক্ষণিক দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে সাধারন ক্ষমা করা হয়।
তিনি আরো জানান, কৃতকর্মের জন্য ওই শিক্ষকের জেল হওয়ার কথা, তারপরও সকলের অনুরুধে তাকে প্রথম বারের মতো সাবদান করে দেয়া হয়েছে তাই বিষয়টি তিনি তার উর্দ্ধতন কর্মকর্তাকে জানাননি বলেও জানিয়েছেন।
মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অভিষেক দাস বলেন, এ বিষয়ে ওই কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কোন কর্মকর্তাই কেউ তাকে কোনকিছুই জানায়নি। এ বিষয়ে জানতে পারলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

মুরাদনগরে মাদরাসা শিক্ষককে দায়িত্ব পালন থেকে অব্যাহতি

আপডেট সময় ০৪:২২:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০

মো. শরিফুল আলম চৌধুরী,:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা য় এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে অনিয়মের অভিযোগে এক শিক্ষককে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার দারোরা দীনেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে বাংলা দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা চলা কালে এ ঘটনা ঘটে।

দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি প্রাপ্ত শিক্ষকের নাম আবু জাহের। সে উপজেলার কাজিয়াতল দক্ষিন পাড়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার জুনিয়র শিক্ষক পদে কর্মরত রয়েছেন।
মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রতিনিধি উপজেলা প্রাথমিক সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা সায়মা সুলতানা জানান, সকালে দারোরা দীনেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে তিনি ও উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা ইউএনও’র প্রতিনিধি হয়ে দায়িত্ব পালন করছিলেন। এ সময় ওই শিক্ষককে কেন্দ্রে নিয়মবহির্ভূতভাবে স্মার্টফোন ব্যবহারসহ নানা অনিয়ম দেখতে পান। এসব অনিয়মের অভিযোগে কেন্দ্র সচিবসহ অন্যান্যদের সুপারিশে তাকে বহিস্কার না করে  তাৎক্ষণিক দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে সাধারন ক্ষমা করা হয়।
তিনি আরো জানান, কৃতকর্মের জন্য ওই শিক্ষকের জেল হওয়ার কথা, তারপরও সকলের অনুরুধে তাকে প্রথম বারের মতো সাবদান করে দেয়া হয়েছে তাই বিষয়টি তিনি তার উর্দ্ধতন কর্মকর্তাকে জানাননি বলেও জানিয়েছেন।
মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অভিষেক দাস বলেন, এ বিষয়ে ওই কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কোন কর্মকর্তাই কেউ তাকে কোনকিছুই জানায়নি। এ বিষয়ে জানতে পারলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।