মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২ ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
অ+
অ-

মামলা ডিবি পুলিশে স্থানান্তর:নেপথ্য নায়করা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে

pc muradnagar 15-07-15 copy
মো: মোশাররফ হোসেন মনিরঃ

রোজ বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই ২০১৬ ইং (মুরাদনগর বার্তা ডটকম)ঃ

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার কাজিয়াতল গ্রামে যুবক শামসুল ইসলাম মনিরকে পিটিয়ে ও পায়ের রগ কেটে হত্যা ঘটনার নেপথ্য নায়করা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছে। করছে প্রকাশ্যে ঘোরাফেরা।

পুলিশ সুপারের কার্য্যালয় সুত্রে জানা যায়, চাঞ্চল্যকর মনির হত্যা মামলাটি (গোয়েন্দা সংস্থা) ডিবি পুলিশে স্থানান্তর করা হয়েছে। বুধবার কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার মো: শাহ্ আবিদ হোসেন মামলাটি ডিবি পুলিশে স্থানান্তরের নিদের্শ দেন।

কুমিল্লা গোয়েন্দা সংস্থা (ডিবি) পুলিশের এসআই শাহ কামাল আকন্দ বুধবার সন্ধ্যা থেকে  মামলার তদন্ত শুরু করেন। আটককৃত কাজিয়াতল পূর্বপাড়া মসজিদের ইমাম আবুল হাছানকে ডিবি পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বৃহস্পতিবার সকালে কুমিল্লা কোর্টে হস্তান্তর করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। বুধবার মনিরের মৃতদেহ ময়না তদন্ত শেষে সন্ধ্যায় কাজিয়াতল নিজ বাড়িতে দাফন করে কার স্বজনরা

ঘটনার তিন দিন পার হয়ে গেলেও এ ঘটনার  নেপথ্যে থাকা নায়করা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকায় এলাকায় ক্ষোভ ও নিন্দার ঝড় বইছে। এলাকাবাসি মনির হত্্যার ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে হত্যাার সঙ্গে জড়িত সবাইকে দ্রুত গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান।
এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) এসআই শাহ কামাল আকন্দ জানান, প্রাথমিক ভাবে মনে হচ্ছে মনির ডাকাতি করতে যায়নি। তদন্ত করা হচ্ছে তদন্ত শেষে বিস্তারিত বলা যাবে। অভিযুক্তদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

উল্লেখ্য, উপজেলার কাজিয়াতল গ্রামের মোহাম্মদ আলীর বাড়িতে মঙ্গলাবার ভোর রাতে পাওনা টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার কখা বলে ফোনে ডেকে নিয়ে মনিরকে আটক করে হাত-পা বেধেঁ পিটিয়ে ও পায়ের রগ কেটে দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মনিরের মৃত্যু হয়। পরে সকাল বেলা জনতার গনপিটুনীতে ডাকাত আহত হওয়ার খবর পেয়ে মুরাদনগর থানার এসআই শামসুল আলমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ মনিরকে উদ্ধার করে মুরাদনগর উপজেলার স্বাস্থ্যা কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করে।
মুরাদনগরে স্কাউটস ও প্রশাসনের যানজট নিরসন অভিযান

print

আরো পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন