বুধবার, ২৫ মে ২০২২ ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
অ+
অ-

মুরাদনগরে পূজামন্ডপে গৃহবধূর শ্লীলতাহানী

মো: নাজিম উদ্দিন, স্টাফ রির্পোটার, মুরাদনগরঃ

রোজ রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০১৫ ইং৯মুরাদনগর বার্তা ডটকম):

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়নের উড়িরশ^র গ্রামের বড় বাড়ির পূজামন্ডপে বৃহস্পতিবার সকালে রিংকু রানী দেবনাথ(২০) নামের এক গৃহবধূর শ্লীলতাহানীর ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় পূজায় উপস্থিত লোকজন বখাটে আজিজকে ধরে জুতাপিটা করলে এলাকার স্থানীয় মেম্বার মোর্শেদ মিয়াসহ কিছুলোক তাকে উদ্ধার করে। ওই ঘটনায় পূজারী ও এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

ঘটনার সাথে জড়িত আ: আজিজ (৪০) উপজেলার বাঁশকাইট পিজে উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও  সুরানন্দী গ্রামের মৃত জুলমত ব্যাপারীর ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসি সূত্রে জানা যায়, নিজ বাড়ির পূজামন্ডপে বুধবার রাতে পূজা দিতে আসা ওই গৃহবধূকে দেখে বখাটে আজিজ তার পিছু নেয়। তরুনী বিষয়টি টেরপেয়ে মন্ডপ থেকে ঘরে চলে যাওয়ার সময় পথ আগলে আজিজ তাকে কু-প্রস্তাব দেয়। তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭টায় গৃহবধূ রিংকু ঘর থেকে বের হলে বখাটে আজিজ জোড়পূর্বক জড়িয়ে ধরে ধর্ষনের চেষ্টা চালায়। তখন ওই গৃহবধূর আত্মচিৎকার শুনে মন্ডপের লোকজন আজিজকে  আটক করে জুতা পেটা দিয়ে গৃহবধূকে উদ্ধার করে। পরে বখাটে আজিজকে পুলিশে দিতে চাইলে স্থানীয় মেম্বার মোর্শেদ, সলিম মেম্বার, আবুল কালামসহ কিছু ব্যক্তিবর্গ ঘটনাস্থল থেকে আজিজকে নিয়ে যায়। ঘটনাটি মুহুর্তের মধ্যে এলাকায় ছড়িয়ে পরলে কৌতুহলী লোকজন পূজামন্ডপে এসে ভিড় জমায়। এতে করে সনাতন ধর্মাবলম্বী লোকজন শাস্ত্রীয় তিথি অনুযায়ী শারদীয় দুর্গোৎসবের মহানবমী ও বিজয়া দশমী আতংকের মধ্যে সম্পন্ন করে।

সুত্র জানায়, একটি চক্র মোটা অংকের উৎকোচের বিনিময়ে  ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছে।

এ বিষয়ে তরুনীর স্বামী সুমন কুমার ভৌমিক অভিযোগ করে বলেন, আজিজ বুধবার রাতে পূজামন্ডপের পাশে ডা: নেপাল সাহার বাড়ি রাত্রিযাপন করে। সকালে আমার স্ত্রীকে শ্লীলতাহানী করে। আমি   এঘটনার দৃস্টান্তমূলক বিচার চাই।

এ বিষয়ে পূজামন্ডপের সভাপতি শুব্রত ভৌমিক প্রথমে বিষয়টি অস্বীকার করলেও, পরে স্বীকার করে উল্টো  গনমাধ্যম কর্মীদের সামনে গৃহবধূ রিংকু রানীর পরিবারের সদস্যদের  হুমকি প্রদান করেন।

অভিযুক্ত  আজিজের মুঠো ফোনে একাধিক বার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন, এ ধরণের ঘটনার কোন অভিযোগ আমরা পাইনি। লিখিত কোন অভিযোগ পেলে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

print

আরো পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন