বুধবার, ২৫ মে ২০২২ ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
অ+
অ-

মুরাদনগরে স্কুলছাত্রীকে উত্ত্যক্ত, প্রতিবাদ করায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ও ভাংচুর লুটপাট

pc muradnagar, comilla 15-08-15মো: রায়হান চৌধুরীঃ

রোজ শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০১৫ ইং (মুরাদনগর বার্তা ডটকম):
কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার নবীপুর পশ্চিম ইউনিয়নের কোম্পানীগঞ্জে বাসায় ঢুকে ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত এবং শ্লীলতাহানীর ঘটনার প্রতিবাদ করায়, গতকাল শনিবার সকাল ১০টায় আলম মিয়ার দু’ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট চালায়  স্থানীয় একদল সন্ত্রাসী। এ ঘটনায় তিন জন আহত হয়।

আহতরা হলেন, উপজেলার পৈইয়া পাথর গ্রামের হাজী ছিদ্দিক মিয়ার ছেলে আলম(৪৪), ভাই আল আমিন (২৬) ও শাহজাহান মিয়ার ছেলে শামিম(২২)।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ বাজারে শনিবার সকালে আলম মিয়ার ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের পিছনে অবস্থিত তার ভাড়াটিয়া মোস্তফা মিয়ার মেয়ে ও কোম্পানীগঞ্জ হাই স্কুলের ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী রেখা আক্তারকে পৈইয়া পাথর গ্রামের হাসেম মিয়ার ছেলে নাছির(১৭) বাসায় এসে উত্ত্যক্ত ও  শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করায় মালিক আলম মিয়া বাধা প্রধান করেন। এরই জের ধরে নাছিরের চাচা সন্ত্রাসী জয়নালের নেতৃত্বে আবুকালাম, মোহাম্মদ আলী, খোকা, দেলোয়ার, আবু তাহের, লিটন, ফারুক মিয়াসহ ১২/১৫ জনের একদল সন্ত্রাসী আলম মিয়ার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মেসার্স আখিঁ এন্টারপ্রাইজ ও শামিম এন্টারপ্রাইজে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট চালায় এবং তিন জনকে পিটিয়ে আহত করে।
আহতরা মুরাদনগর উপজেলা স্ব্যাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। খবর পেয়ে মুরাদনগর থানার এসাই সামছুল আলমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরির্দশন করেন।

আলম মিয়ার ভাতিজা জালাল মিয়া জানান, আমার চাচা স্কুল ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করার কাজে বাধা প্রধান করায় আমাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে সন্ত্রাসীরা। তিনি বলেন এ ঘটনায়  মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এ ব্যাপারে মুরাদনগর থানার এসআই সামছুল আলম জানান, আমরা ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছি। ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

print

আরো পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন