বুধবার, ২৫ মে ২০২২ ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
অ+
অ-

মুস্তাফিজ ধাঁধার সমাধানের খোঁজে ভারতীয় মিডিয়া

খেলাধুলা ডেস্ক :

কেবল মাঠেই মুস্তাফিজ প্রশংসায় ভাসছেন না, টি-টোয়েন্টির মতো ধুমধাড়াক্কা ক্রিকেটে তার ওপর আবিষ্ট হয়ে তা প্রকাশ করছেন বিভিন্ন প্রান্তের ক্রিকেট দর্শকরাও। এজন্য অনেকে চলমান আইপিএলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। মুস্তাফিজ এখন কেবল বাংলাদেশের জন্য নয়, পুরো বিশ্বক্রিকেটের এক অনন্য প্রতিভা। সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে খেলা পাঁচটি ম্যাচেই দারুণভাবে সফল মুস্তাফিজ। সবশেষ কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে মুস্তাফিজ যা করেছেন তা এক কথায় ইতিহাস। টাইগার এই পেসার যখন বল করছিলেন তখন ধারাভাষ্যকাররাও বারবার বলেছিলেন, ‘ম্যাজিকাল স্পেল’, ‘আনবিলিভেবল’, ‘আনরিয়েল’, ‘জিনিয়াস’। সে ম্যাচে ৪ ওভার অর্থাৎ, ২৪ বল করে ১৭ ডটে মাত্র ৯ রান খরচে ২ উইকেট তুলে নেন মুস্তাফিজ। ‘ম্যাজিকাল স্পেল’ করে ম্যান অব দ্য ম্যাচও হন মুস্তাফিজ। এরপর অনেকেই মজা করে জানান, ফ্রি-তে মুস্তাফিজকে পেয়েছে হায়দ্রাবাদ। এমন বোলারকে নিয়ে পরের মৌসুমে আকাশ ছোঁয়া দাম উঠবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। শুধুমাত্র মুস্তাফিজের ৪ ওভার বোলিং দেখার জন্যও নাকি অনেকে টেলিভিশনের পর্দায় চোখ রাখেন। আইপিএলকে বিশ্বক্রিকেট যতই ধন্যবাদ দিক না কেনো, ভারতের জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যম ‘এবেলা’ জানাচ্ছে আইপিএলে যোগ দিয়ে বড় ভুল করেছেন মুস্তাফিজ। তারা লিখেছে, ‘বাংলাদেশের বোলার মুস্তাফিজুর রহমানকে নিয়ে এখন খুব মাতামাতি। গোটা ক্রিকেট বিশ্বকে নিজের জাত চিনিয়ে ছেড়েছেন মুস্তাফিজুর। এই বাঁহাতি ফাস্ট বোলারের মধ্যে যথেষ্ট মশলা রয়েছে। ভবিষ্যতে আরও বিভীষিকা হয়ে তিনি দেখা দিতেই পারেন। সেই সম্ভাবনা প্রবল। প্রশ্ন হলো, বড্ড তাড়াতাড়ি কি মুস্তাফিজুর আইপিএল-এ যোগ দিয়ে ফেললেন না? অনেকেই এতে আপত্তি করবেন। একমত হবেন না হয়তো। সে না-ই হতে পারেন। একমত হওয়া বা না-হওয়া স¤পূর্ণ ব্যক্তিগত ব্যাপার’। কেনো মুস্তাফিজের আইপিএলে যোগ দেওয়া বড় ভুল? এমন বিশ্লেষণ করতে গিয়ে সংবাদমাধ্যমটি জানান, ‘ঘটনা হলো, মুস্তাফিজুর বাংলাদেশের স¤পদ। তার কাটারের মোকাবেলা করা সত্যিই কঠিন ব্যাপার। অতীতে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা মুস্তাফিজুরকে ঠিক মতো খেলতেই পারেননি। বিরাট কোহলিকেও একবার প্রশ্ন ছুঁড়ে দেওয়া হয়েছিল, ‘মুস্তাফিজুরকে কি খেলতে সমস্যা হয়?’ কোহলি জবাব দিয়েছিলেন, ‘মুস্তাফিজকে খেলতে খেলতে ঠিক হয়ে যাবে’। এবালো সংবাদমাধ্যমটি আরও লিখেছে, ‘মুস্তাফিজুরের প্রতিভাকে অসম্মান বা অশ্রদ্ধা করা হচ্ছে না। তার শেখার যথেষ্ট সময় এখনও পড়ে রয়েছে। যত বেশি তিনি খেলবেন, ততই তিনি শিখতে পারবেন। অভিজ্ঞতা তাকে অনেক কিছুই শেখাবে। উল্টোদিকও তো আছে। এক সময় শচীন টেন্ডুলকারের খেলা দেখে দেখে, তার বিরুদ্ধে খেলতে খেলতে বিপক্ষ দেশগুলো মাস্টার ব্লাস্টারের দুর্বলতা জেনে ফেলেছিল। শচীনকে ফেরানোর জন্য দক্ষিণ আফ্রিকা একটি বিশেষ জায়গায় ফিল্ডার রেখে দিত। শচীনও সেই ফাঁদে ধরা দিতেন। ঠিক তেমনি মুস্তাফিজুর-ধাঁধাও কিন্তু সমাধান হয়ে যাবে’। যাই হোক আজ রাত সাড়ে আটটায় সুরেশ রায়নার রাইজিং পুনে সুপারজায়েন্টের বিপক্ষে মুখোমুখি হবে মুস্তাফিজের সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ।

print

কুমিল্লা : আরো পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন