মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২ ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
অ+
অ-

হোমনায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৮ দোকানপাট ভাংচুর

10517983_908989119199488_4440282067932675550_n

মো: তপন সরকার, হোমনা প্রতিনিধিঃ

রোজ বৃহস্পতিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৫ ইং(মুরাদনগর বার্তা ডটকম):

কুমিল্লার হোমনা উপজেলায় ইজিবাইকের সিরিয়াল দেওয়ার ঘটনায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ৮ ব্যক্তি আহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা তিনটার দিকে উপজেলার রামকৃষ্ণপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

 এতে ৩-৪টি দোকানপাট ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে বলে ব্যবসায়িরা অভিযোগ করেন। আহতরা হলেন- মাইজচর গ্রামের মো. ইব্রাহিম (৩২), মো. মাইনুদ্দিন (৪০), বিনয় দাস(১৫), মো. মোনাফ (১৫), মো. খলিল (৩৬), ফরিদ মিয়া (৪৫), মিঠাইভাঙ্গা গ্রামের আনোয়ার হোসেন (২৬), মো. রাসেল (২২) আহতদের মধ্যে ৬জনকে হোমনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় মো. আনোয়ার হোসেনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, গতকাল বেলা এক টার দিকে ইজিবাইকের সিরিয়াল দেওয়া নিয়ে মিঠাইভাঙ্গা গ্রামের ইজিবাইক চালক মো. দুনিয়ার সঙ্গে শ্রীনগর গ্রামের মো. পাপ্পুর কথা কাটা-কাটি ও হাতা-হাতির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তিনটার দিকে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে মিঠাইভাঙ্গা গ্রামের সামাদ মেম্বারের ইন্ধনে লোকজন রামকৃষ্ণপুর বাজারে হামলা চালালে অন্তত ৮জন আহত হয়। এ সময় ৩-৪টি দোকান ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে।

একজন ব্যবসায়ি মো. খবির অভিযোগ করে বলেন, মিঠাইভাঙ্গা গ্রামের কিছু লোক লাঠিসোঁটা নিয়ে বাজারে তান্ডব চালায়। এ সময় ৩-৪টি দোকানে লুটপাট করে ভাংচুর করে।

দুলালপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য (মিঠাইভাঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা) আবদুস সামাদ তার ইন্ধনে হামালা চালানোর ঘটনা অস্বীকার করে বলেন, বাজারে ইজিবাইকের চালকদের কথাকাটাকাটি ও হাতাহাতির কথা শুনে স্থানীয় নেতা বাদলকে নিয়ে বাজারে গিয়ে চান্দেরচর ইউপির চেয়ারম্যানকে নিয়ে আগামী দিন (শুক্রবার) বিষয়টি মীমাংসা করার কথা হয়। পরে তিনটার দিকে উভয় পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

চান্দেরচর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বাশার মোল্লা বলেন, মিঠাইভাঙা গ্রামের গুঁটি কয়েক লোকের কারণেই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৭/৮ জন লোক মারত্মক আহত হয়েছে।

হোমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবুল ফয়সল বলেন, রামকৃষ্ণপুর বাজারে অটোরিকশার সিরিয়াল দেওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সামাদ মেম্বারের ইন্ধনে মিঠাইভাঙ্গা গ্রামের লোকজন বাজারে তান্ডব চালানোর কথা শুনেছি। সেখানে টেটা, বল্লম নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় ৭/৮ জন আহত হয়েছে। এক জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এখনও থানায় মামলা দেয়নি। ঘটনা যেহেতু ঘটেছে মামলা তো হবেই।

print

আরো পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন