বুধবার, ২৫ মে ২০২২ ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
অ+
অ-

হোমনায় ব্যাবসায়ীর বাড়িতে হামলা ভাংচুর ও লোটপাট

pc homna 23-07-2015

তপন সরকার, হোমনা প্রতিনিধিঃ

রোজ বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই ২০১৫ ইং(মুরাদনগর বার্তা ডটকম)ঃ

কুমিল্লার হোমনা উপজেলার ভাষানিয়া কাশিপুর ইউনিয়নের তিতিয়া গ্রামে চাঁদা না দেওয়ায় বৃহস্পতিবার রাতে ব্যাবসায়ী জাহাঙ্গীর আলমের বাড়ি-ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লোটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ৫ জন আহত হয়েছে।

আহতরা হলেন, তিতিয়া গ্রামের ব্যাবসায়ী জাহাঙ্গীর আলমের পিতা মো: কালা মিয়া(৭২), মা রেনু বিবি(৬৫), স্ত্রী মমিনা বেগম(৩৫), দুই ছেলে এমরান হোসেন(১৭), জাকির হোসেন(৬)।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার তিতিয়া গ্রামের বিএনপির নেতা দুলাল মিয়ার ছত্রছায়ায় তারই ভাগনি জামাই বাগমারা গ্রামের তাহের মিয়ার ছেলে নাছির ও তিতিয়া গ্রামের বসু মিয়ার ছেলে জামাল হোসেন অনেক দিন থেকে বাড়িতে মাদক ব্যবসা ও গ্রামের যুবকদের সেবন করিয়ে যাচ্ছে। এ মাদক ব্যাবসার প্রতিবাদ করায় জাহাঙ্গীর আলমের কাছে ঐ চক্রটি ১০ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে অন্যথায় তাকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে থাকে। ব্যাবসায়ী জাহাঙ্গীর ৬ লক্ষ টাকা বিভিন্ন ভাবে প্রদান করে থাকেন। এর পরও এ মাদক চক্রটি আরো ১০ লক্ষ টাকা দাবি করলে জাহাঙ্গীর তা দিতে অস্বীকার করলে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে জাহাঙ্গীরের বাড়িতে নাছির, তিতিয়া গ্রামের বাসু মিয়ার ছেলে জামাল হোসেন ও একই গ্রামের এনু মিয়ার ছেলে মাইনউদ্দিনের নেতৃত্বে ৮/১০ জনের সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে ভাংচুর, লোটপাট ও বাড়ির লোকদের পিটিয়ে আহত করে।

ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম অভিযোগ করেন, বিএনপির নেতা দোলাল মিয়ার সন্ত্রাসীরা চাঁদা চাইলে আমি ৬ লক্ষ টাকা প্রদান করি, পরে চাঁদা আরো বেশি চাইলে তা আমি দিতে অস্বীকার করলে আমার বাড়িতে রাতে হামলা চালায় এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা। এতে আমার ছেলেকে বিদেশ পাঠানোর জমানো নগদ ২ লক্ষ টাকা, ৭ ভরি স্বর্ণ লুটে নেয়। নাছিরের বিরুদ্ধে হোমনা থানায় প্রায় এক ডজন মামলা রয়েছে। তিনি আরো জানান এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এ বিষয়ে হোমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান (পিপিএম) জানান, থানায় কেহ অভিযোগ করেনি, লিখিত ভাবে অভিযোগ পেলে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

print

আরো পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন