ঢাকা ০৯:১১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

আইনমন্ত্রী শপথ ভঙ্গ করেছেন, তার চারবার সাজা হওয়া উচিত: রিজভী

জাতীয় ডেস্কঃ

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, প্রধান বিচারপতির বিষয়ে মিথ্যা কথা বলে আইনমন্ত্রী শপথ ভঙ্গ করেছেন। এ জন্য বিচারের মাধ্যমে আইনমন্ত্রীর চারবার সাজা হওয়া উচিত।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের রাস্তায় আয়োজিত এক মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

রিজভী বলেন, মন্ত্রী হলে শপথ নিতে হয়-ক্ষোভ, আক্রোশের বসে মিথ্যা বলা যাবে না। কিন্তু আইনমন্ত্রী মিথ্যা বলেছেন। উনি (আইনমন্ত্রী) বলেছেন- প্রধান বিচারপতির ক্যান্সার হয়েছে। কিন্তু প্রধান বিচারপতি বিদেশ যাওয়ার আগে বলে গেছেন তিনি সুস্থ আছেন’।

তিনি বলেন, আইনমন্ত্রী বলেছেন, দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি এখন বিচারবিভাগের প্রশাসনে পরিবর্তন ও রদবল করতে পারবেন। এ ধরনের কথা বিচার বিভাগের স্বাধীনতার ওপর প্রচণ্ড হস্তক্ষেপ। আইনমন্ত্রীর সাজা হতে পারে। কিন্তু এটা দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি করতে পারেন না। আসলে যিনি প্রধান বিচারপতি তিনিই সেটি করতে পারেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি প্রসঙ্গে রিজভী বলেন, বেগম খালেদা জিয়া লন্ডনে চিকিৎসাধীন। তিনি ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী শরীর চেকআপ করাচ্ছেন। এখন তার দেশে ফেরার সময় হয়েছে। কিন্তু ঠিক এই মুহূর্তে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় পরোয়ানার হিড়িক পড়েছে। কুমিল্লা এবং ঢাকার বিভিন্ন আদালতে পুরনো মামলায় পরোয়ানা দেয়া হচ্ছে।

বিএনপির সিনিয়র এই নেতা বলেন, শেখ হাসিনা মনে করছেন তিনি নিরাপদ। এ জন্যই বিএনপির ওপর এতো নিপীড়ন ও হয়রানি। কিন্তু তিনি মুর্খের স্বর্গে বাস করছেন। কারণ প্রধানমন্ত্রী আপনার জানা আছে বিএনপির নেতা ইলিয়াস আলী, হিরু পারভেজ, চৌধুরি আলম সহ ছাত্রদলের অসংখ্য নেতাকর্মীকে গুম করেও বিএনপিকে স্তব্ধ করতে পারেননি। বিএনপি মরেনি। বরং আজো কোটি কোটি কণ্ঠে বিএনপির পক্ষে আওয়াজ হয়, স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বের পক্ষে আওয়াজ হয়। সুতরাং বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়না জারি করে প্রধানমন্ত্রী আপনার স্বপ্ন সাধ, অঙ্গীকার পূরণ হবে না।

রিজভী বলেন, এসকে সিনহাকে গৃহবন্দি রাখা হয়। তাকে মানসিক নিপীড়ন করা হয়েছে। তাকে কথা বলতে দেয়া হয়নি। তিনি বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিয়ে শঙ্কিত। তাহলে আমার আপনার স্বাধীনতা নিরাপত্তা কিসের? বেগম জিয়া দেশে আসবেন। তার অবদান জাতি ভুলেনি। আমরা স্বৈরাচারী দানবকে রাজপথে মোকাবিলা করবো ইনশাল্লাহ। তিনি অবিলম্বে বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও পরোয়না প্রত্যাহারের দাবি জানান।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

আইনমন্ত্রী শপথ ভঙ্গ করেছেন, তার চারবার সাজা হওয়া উচিত: রিজভী

আপডেট সময় ০৭:৩২:৩৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৭
জাতীয় ডেস্কঃ

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, প্রধান বিচারপতির বিষয়ে মিথ্যা কথা বলে আইনমন্ত্রী শপথ ভঙ্গ করেছেন। এ জন্য বিচারের মাধ্যমে আইনমন্ত্রীর চারবার সাজা হওয়া উচিত।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের রাস্তায় আয়োজিত এক মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

রিজভী বলেন, মন্ত্রী হলে শপথ নিতে হয়-ক্ষোভ, আক্রোশের বসে মিথ্যা বলা যাবে না। কিন্তু আইনমন্ত্রী মিথ্যা বলেছেন। উনি (আইনমন্ত্রী) বলেছেন- প্রধান বিচারপতির ক্যান্সার হয়েছে। কিন্তু প্রধান বিচারপতি বিদেশ যাওয়ার আগে বলে গেছেন তিনি সুস্থ আছেন’।

তিনি বলেন, আইনমন্ত্রী বলেছেন, দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি এখন বিচারবিভাগের প্রশাসনে পরিবর্তন ও রদবল করতে পারবেন। এ ধরনের কথা বিচার বিভাগের স্বাধীনতার ওপর প্রচণ্ড হস্তক্ষেপ। আইনমন্ত্রীর সাজা হতে পারে। কিন্তু এটা দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি করতে পারেন না। আসলে যিনি প্রধান বিচারপতি তিনিই সেটি করতে পারেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি প্রসঙ্গে রিজভী বলেন, বেগম খালেদা জিয়া লন্ডনে চিকিৎসাধীন। তিনি ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী শরীর চেকআপ করাচ্ছেন। এখন তার দেশে ফেরার সময় হয়েছে। কিন্তু ঠিক এই মুহূর্তে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় পরোয়ানার হিড়িক পড়েছে। কুমিল্লা এবং ঢাকার বিভিন্ন আদালতে পুরনো মামলায় পরোয়ানা দেয়া হচ্ছে।

বিএনপির সিনিয়র এই নেতা বলেন, শেখ হাসিনা মনে করছেন তিনি নিরাপদ। এ জন্যই বিএনপির ওপর এতো নিপীড়ন ও হয়রানি। কিন্তু তিনি মুর্খের স্বর্গে বাস করছেন। কারণ প্রধানমন্ত্রী আপনার জানা আছে বিএনপির নেতা ইলিয়াস আলী, হিরু পারভেজ, চৌধুরি আলম সহ ছাত্রদলের অসংখ্য নেতাকর্মীকে গুম করেও বিএনপিকে স্তব্ধ করতে পারেননি। বিএনপি মরেনি। বরং আজো কোটি কোটি কণ্ঠে বিএনপির পক্ষে আওয়াজ হয়, স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বের পক্ষে আওয়াজ হয়। সুতরাং বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়না জারি করে প্রধানমন্ত্রী আপনার স্বপ্ন সাধ, অঙ্গীকার পূরণ হবে না।

রিজভী বলেন, এসকে সিনহাকে গৃহবন্দি রাখা হয়। তাকে মানসিক নিপীড়ন করা হয়েছে। তাকে কথা বলতে দেয়া হয়নি। তিনি বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিয়ে শঙ্কিত। তাহলে আমার আপনার স্বাধীনতা নিরাপত্তা কিসের? বেগম জিয়া দেশে আসবেন। তার অবদান জাতি ভুলেনি। আমরা স্বৈরাচারী দানবকে রাজপথে মোকাবিলা করবো ইনশাল্লাহ। তিনি অবিলম্বে বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও পরোয়না প্রত্যাহারের দাবি জানান।