ঢাকা ০৭:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আমাদের সময় ও অনলাইনে প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ এম কে আনোয়ারের মো

মো: রায়হান চৌধুরী, হোমনা থেকেঃ
২০ জুলাই ২০১৭, দৈনিক আমাদের সময় এবং অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ইনসাইডার ও পূর্বপশ্চিম এ “বিএনপিতে চলছে রাজতন্ত্র, রাণী আর যুবরাজ দল চালায়” শিরোনামে প্রকাশিত রাজনৈতিক প্রতিবেদনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী এম কে আনোয়ার।
এক প্রতিবাদ লিপিতে তিনি বলেন, প্রকাশিত প্রতিবেদনে আমাকে জড়িয়ে যে কল্পকাহিনী লেখা হয়েছে তা সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। মিথ্যা, ভিত্তিহীন এবং আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার অপচেষ্টা ছাড়া আর কিছুই নয়। তিনি আরও বলেন, অবৈধ সরকারের নীল নকশা বাস্তবায়নের জন্য মিথ্যা ও ভিত্তিহীন তথ্য পরিবেশন করা হয়েছে।
প্রতিবাদ লিপিতে তিনি এম কে আনোয়ার বলেন, দৈনিক আমাদের সময় এবং ঐ অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে: আমি নাকি বলেছি”বিএনপিতে তো রাজতন্ত্র, রাণী আর যুবরাজ দল চালায়। আর বাকী সবাই প্রজা, কেউ কেউ ক্রীতদাস এবং আরও বলা হয়েছে ‘রাণী এবং যুবরাজকে যারা খাজনা দিতে পারে তারা প্রজা, আর যারা পারে না, তারা তো ক্রীতদাসই। আমিও ক্রীতদাস’। এই বক্তব্য সম্পূর্ণ অসত্য। প্রতিবেদক সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যমূলকভাবে তার উর্বর মস্তিষ্কপ্রসূত ভাবনা থেকে এ গল্প বানিয়েছেন। কোন রকম তথ্যসূত্র উল্লেখ ছাড়াই তিনি আমার নামে একথা চালিয়ে দিয়েছেন। এটা সাংবাদিকতার নীতি বিরুদ্ধ। মানহানিকর এবং দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি রাজনৈতিক দলের বিরুদ্ধে ক্রমাগত মিথ্যাচারের অংশ। প্রতিবেদনে আমাকে আমলা, স্বৈরাচার এরশাদের দোসর প্রভৃতি বিশেষণ যোগে আক্রমণ করা হয়েছে। আমার দল বিএনপিকে নিয়েও অযাচিত মিথ্যা ও ভিত্তিহীন তথ্য পরিবেশন করা হয়েছে। পুরো প্রতিবেদনটি পড়লে মনে হয় এটি বিএনপির ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করতেই রচনা করা হয়েছে।
এম কে আনোয়ার তাঁর প্রতিবাদ লিপিতে আরো বলেন, সাংবাদিকতা একটি মহৎ পেশা। কিন্তু এ পেশাকে সম্প্রতি কিছু মতলববাজ লোক ব্যক্তিগত স্বার্থোদ্ধার এবং সম্মানী মানুষকে হেয় প্রতিপন্ন করার কাজে লাগাতেই তৎপর বলে মনে হয়। তারাই সিন্ডিকেটেড পন্থায় এ ধরণের অপপ্রচারে লিপ্ত। এটি বিএনপির ভাবমূতি নষ্ট করা এবং দলের ভেতর বিভেদ ও অনৈক্য সৃষ্টির অপচেষ্টা ছাড়া আর কিছু নয়। তিনি আমাদের সময় এবং অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ইনসাইডার ও পূর্বপশ্চিম এর সম্পাদক কে এ ধরনের মিথ্যা ও ভিত্তিহীন নিউজ প্রচারে বিরত থাকতে আওবান জানান এবং এ ধরণের অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হবার জন্য আমি নেতাকর্মীদের প্রতি উদাত্ত আহবান জানাই।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

আমাদের সময় ও অনলাইনে প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ এম কে আনোয়ারের মো

আপডেট সময় ০২:১৩:২৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুলাই ২০১৭
মো: রায়হান চৌধুরী, হোমনা থেকেঃ
২০ জুলাই ২০১৭, দৈনিক আমাদের সময় এবং অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ইনসাইডার ও পূর্বপশ্চিম এ “বিএনপিতে চলছে রাজতন্ত্র, রাণী আর যুবরাজ দল চালায়” শিরোনামে প্রকাশিত রাজনৈতিক প্রতিবেদনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী এম কে আনোয়ার।
এক প্রতিবাদ লিপিতে তিনি বলেন, প্রকাশিত প্রতিবেদনে আমাকে জড়িয়ে যে কল্পকাহিনী লেখা হয়েছে তা সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। মিথ্যা, ভিত্তিহীন এবং আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার অপচেষ্টা ছাড়া আর কিছুই নয়। তিনি আরও বলেন, অবৈধ সরকারের নীল নকশা বাস্তবায়নের জন্য মিথ্যা ও ভিত্তিহীন তথ্য পরিবেশন করা হয়েছে।
প্রতিবাদ লিপিতে তিনি এম কে আনোয়ার বলেন, দৈনিক আমাদের সময় এবং ঐ অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে: আমি নাকি বলেছি”বিএনপিতে তো রাজতন্ত্র, রাণী আর যুবরাজ দল চালায়। আর বাকী সবাই প্রজা, কেউ কেউ ক্রীতদাস এবং আরও বলা হয়েছে ‘রাণী এবং যুবরাজকে যারা খাজনা দিতে পারে তারা প্রজা, আর যারা পারে না, তারা তো ক্রীতদাসই। আমিও ক্রীতদাস’। এই বক্তব্য সম্পূর্ণ অসত্য। প্রতিবেদক সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যমূলকভাবে তার উর্বর মস্তিষ্কপ্রসূত ভাবনা থেকে এ গল্প বানিয়েছেন। কোন রকম তথ্যসূত্র উল্লেখ ছাড়াই তিনি আমার নামে একথা চালিয়ে দিয়েছেন। এটা সাংবাদিকতার নীতি বিরুদ্ধ। মানহানিকর এবং দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি রাজনৈতিক দলের বিরুদ্ধে ক্রমাগত মিথ্যাচারের অংশ। প্রতিবেদনে আমাকে আমলা, স্বৈরাচার এরশাদের দোসর প্রভৃতি বিশেষণ যোগে আক্রমণ করা হয়েছে। আমার দল বিএনপিকে নিয়েও অযাচিত মিথ্যা ও ভিত্তিহীন তথ্য পরিবেশন করা হয়েছে। পুরো প্রতিবেদনটি পড়লে মনে হয় এটি বিএনপির ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করতেই রচনা করা হয়েছে।
এম কে আনোয়ার তাঁর প্রতিবাদ লিপিতে আরো বলেন, সাংবাদিকতা একটি মহৎ পেশা। কিন্তু এ পেশাকে সম্প্রতি কিছু মতলববাজ লোক ব্যক্তিগত স্বার্থোদ্ধার এবং সম্মানী মানুষকে হেয় প্রতিপন্ন করার কাজে লাগাতেই তৎপর বলে মনে হয়। তারাই সিন্ডিকেটেড পন্থায় এ ধরণের অপপ্রচারে লিপ্ত। এটি বিএনপির ভাবমূতি নষ্ট করা এবং দলের ভেতর বিভেদ ও অনৈক্য সৃষ্টির অপচেষ্টা ছাড়া আর কিছু নয়। তিনি আমাদের সময় এবং অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ইনসাইডার ও পূর্বপশ্চিম এর সম্পাদক কে এ ধরনের মিথ্যা ও ভিত্তিহীন নিউজ প্রচারে বিরত থাকতে আওবান জানান এবং এ ধরণের অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হবার জন্য আমি নেতাকর্মীদের প্রতি উদাত্ত আহবান জানাই।