ঢাকা ১১:০৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আলোচনা যেন শুধু লোক দেখানো না হয়: ইসিকে বিএনপি

জাতীয় ডেস্কঃ

নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিসহ ২০টি প্রস্তাব দিয়েছে বিএনপি। বিএনপির পক্ষ থেকে কমিশনকে এও বলা হয়, আলোচনা যেন শুধু লোক দেখানো না হয়।

রোববার বেলা ১১টায় আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন (ইসি) ভবনে এ সংলাপ শুরু হয়।

আড়াই ঘণ্টার সংলাপ শেষে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, খোলামেলা আলোচনা হয়েছে। আমরা বর্তমান রাজনৈতিক বাস্তবতায় সংলাপ নিয়ে খুব আশাবাদী নই। তবে কিছুটা আশা রাখতে চাই।

তিনি বলেন, আমরা ইসিকে বলেছি- এ আলোচনা যেন শুধু লোক দেখানো না হয়। আলোচনা থেকে বেরিয়ে আসা সিদ্ধান্ত যেন বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়া হয়।
জবাবে কমিশন আমাদের জানিয়েছে, আমরা আমার সীমার মধ্যে প্রয়োজনীয় সব কিছুই করব।

সংলাপে বিএনপির দেয়া প্রস্তাবে কি রয়েছে, তা জানতে চাইলে বলেন, নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন। নির্বাচনের আগে সংসদ ভেঙে দিয়ে সহায়ক সরকার গঠন। সব দলের নির্বাচনী প্রচারণার জন্য এখন থেকেই সমান সুযোগ তৈরি। সরকারের সঙ্গে রাজনৈতিক দলের কার্যকর সংলাপের আয়োজন। নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার না করা। রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের নামে দেয়া মামলা প্রত্যাহার ও মুক্তি দেয়াসহ ২০ দফা দাবি রয়েছে আমাদের প্রস্তাবে।

সংলাপে বিএনপি প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ ছাড়া দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য, উপদেষ্টা ও সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিবসহ ২০ সদস্য এতে অংশ নেন।

ইসির পক্ষে নেতৃত্ব দেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা। এ ছাড়া বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন অপর চার নির্বাচন কমিশনার, ইসি সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

আগামী নির্বাচন সামনে রেখে নির্বাচন কমিশন (ইসি) ধারাবাহিকভাবে রাজনৈতিক দল ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে এ সংলাপের আয়োজন করেছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

আলোচনা যেন শুধু লোক দেখানো না হয়: ইসিকে বিএনপি

আপডেট সময় ০১:৪৪:১৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৭
জাতীয় ডেস্কঃ

নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিসহ ২০টি প্রস্তাব দিয়েছে বিএনপি। বিএনপির পক্ষ থেকে কমিশনকে এও বলা হয়, আলোচনা যেন শুধু লোক দেখানো না হয়।

রোববার বেলা ১১টায় আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন (ইসি) ভবনে এ সংলাপ শুরু হয়।

আড়াই ঘণ্টার সংলাপ শেষে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, খোলামেলা আলোচনা হয়েছে। আমরা বর্তমান রাজনৈতিক বাস্তবতায় সংলাপ নিয়ে খুব আশাবাদী নই। তবে কিছুটা আশা রাখতে চাই।

তিনি বলেন, আমরা ইসিকে বলেছি- এ আলোচনা যেন শুধু লোক দেখানো না হয়। আলোচনা থেকে বেরিয়ে আসা সিদ্ধান্ত যেন বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়া হয়।
জবাবে কমিশন আমাদের জানিয়েছে, আমরা আমার সীমার মধ্যে প্রয়োজনীয় সব কিছুই করব।

সংলাপে বিএনপির দেয়া প্রস্তাবে কি রয়েছে, তা জানতে চাইলে বলেন, নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন। নির্বাচনের আগে সংসদ ভেঙে দিয়ে সহায়ক সরকার গঠন। সব দলের নির্বাচনী প্রচারণার জন্য এখন থেকেই সমান সুযোগ তৈরি। সরকারের সঙ্গে রাজনৈতিক দলের কার্যকর সংলাপের আয়োজন। নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার না করা। রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের নামে দেয়া মামলা প্রত্যাহার ও মুক্তি দেয়াসহ ২০ দফা দাবি রয়েছে আমাদের প্রস্তাবে।

সংলাপে বিএনপি প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ ছাড়া দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য, উপদেষ্টা ও সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিবসহ ২০ সদস্য এতে অংশ নেন।

ইসির পক্ষে নেতৃত্ব দেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা। এ ছাড়া বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন অপর চার নির্বাচন কমিশনার, ইসি সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

আগামী নির্বাচন সামনে রেখে নির্বাচন কমিশন (ইসি) ধারাবাহিকভাবে রাজনৈতিক দল ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে এ সংলাপের আয়োজন করেছে।