ঢাকা ০৮:৫০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ইংল্যান্ড ফেভারিট, তবে আমরাও প্রস্তুত : মুশফিকুর

খেলাধূলা ডেস্ক রির্পোটঃ
দীর্ঘ ১৪ মাস পর আবারো টেস্ট ক্রিকেট খেলতে নামছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। তাই সম্প্রতি সময়ে বড় ফরম্যাটে না খেলায় শূন্য অভিজ্ঞতা নিয়ে বিশ্বের শক্তিশালী দল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লড়াই করতে নামতে হচ্ছে টাইগারদের। এজন্য চট্টগ্রামে সিরিজের প্রথম টেস্টে ইংল্যান্ডকেই ফেভারিট মানছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।
তবে দীর্ঘদিন পর খেলতে নামলেও, টেস্ট খেলার জন্য তারা প্রস্তুত বলেও জানালেন মুশি, ‘ইংল্যান্ড পরিষ্কার ফেভারিট। তবে আমারও প্রস্তুত টেস্ট খেলার জন্য। সেশন বাই সেশন খেলাটাই আমাদের মূল লক্ষ্য।’ অতীত ও সাম্প্রতিক পারফরমেন্সের হিসাবে কাগজে-কলমে বাংলাদেশের চেয়ে অনেক বেশি এগিয়ে ইংল্যান্ড। অতীতে বাংলাদেশকে ৮ ম্যাচের সবগুলোতেই হারিয়েছে ইংলিশরা। আর সাম্প্রতিক সময়ে ইংল্যান্ডে ভাণ্ডারে রয়েছে ৭টি টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতা।
 সেখানে বাংলাদেশের ভাণ্ডার ‘শূন্য’। তাই এসব কথা ভেবেই চট্টগ্রাম টেস্টের আগে ইংল্যান্ডকেই ফেভারিট বললেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম, ‘অবশ্যই, চট্টগ্রাম টেস্টে ইংল্যান্ড এগিয়ে। গত কয়েক বছর টেস্ট ফরম্যাটে দারুণ করেছে তারা। দেশের মাটিতে ও দেশের বাইরে যেভাবে খেলছে ইংল্যান্ড তাতে টেস্ট সিরিজে পরিষ্কার ফেভারিট তারা। তবে ওয়ানডে সিরিজে আমরাও ফেভারিট ছিলাম কিন্তু হেরেছি।’
ইংল্যান্ডকে ফেভারিট মানলেও লড়াই করার ইঙ্গিত কিন্তু ঠিকই দিয়েছেন মুশফিকুর। তিনি বলেন, ‘ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলার জন্য আমরা প্রস্তুত। কঠিন লড়াই করতে পারবো আমরা। সিরিজটি আমাদের জন্য অনেক বড় চ্যালেঞ্জের।’ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভালো খেলার জন্য সেশন ধরে ধরে খেলার পরিকল্পনার কথাও জানালেন মুশফিকুর, ‘সেশন ধরে ধরে খেলতে হবে। এভাবে খেলতে পারলে আমরা ভালো করতে পারবো। আমাদের মূল্য লক্ষ্য এটাই। তবে প্রথম ইনিংস অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। যে লিড পাবে অথবা শুরুতে ম্যাচের লাগাম নিতে পারবে, তারাই পুরো ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে।’
এজন্য প্রথম ইনিংসে নিজের লক্ষ্যের কথাও জানালেন মুশফিকুর, ‘আমাদের লক্ষ্য থাকবে ৩’শর বেশি রান করা। এটা আমাদের জন্য বড় কিছু হবে। আমাদের টপ অর্ডার ও ব্যাটসম্যানদের বড় বড় স্কোর করতে হবে। মমিনুল ছাড়া আমরা টপ অর্ডারের পাঁচজনই ক্রিকেটের সব ফরম্যাটেই খেলছি। সবাই ফর্মে আছে। আশা করি ব্যাটসম্যানরা ভালো করবে।’
ব্যাটসম্যানদের পাশাপাশি দলের বোলারদের উপরও অগাধ আস্থা মুশফিকুরের। টেস্টে প্রতিপক্ষের ২০ উইকেট নেয়ার ক্ষমতা তার দলের বোলারদের আছে বলে জানালেন তিনি, ‘আবহাওয়ার কারণে উইকেটের চরিত্র প্রতিনিয়তই পরিবর্তন হচ্ছে। এজন্য এখনো বোলিং কম্বিনেশন ঠিক করা যায়নি। উইকেট দেখে ঠিক করা হবে। দলের বোলারদের উপর আমার আস্থা রয়েছে। ২০ উইকেট নেয়ার মত বোলার আমাদের দলে রয়েছে।’
আঙ্গুলের ইনজুরির কারণে বাংলাদেশের হয়ে সর্বশেষ তিন টেস্টে উইকেটরক্ষকের দায়িত্বটা পালন করতে পারেননি মুশফিকুর। তবে এখন পুরোপুরি ফিট তিনি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে উইকেটরক্ষকের দায়িত্বটা পালন করতে প্রস্তুত মুশি, ‘আঙ্গুলের ইনজুরির কারণে শেষের কয়েকটি টেস্টে উইকেটের পিছনে দায়িত্ব পালন করতে পারিনি। তবে এখন পুরোপুরি ফিট আমি। উইকেটরক্ষকের দায়িত্ব পালন করতে আমার এখন কোনো সমস্যা নেই। টিম ম্যানেজমেন্ট যদি মনে করে আমি উইকেটরক্ষকের দায়িত্ব পালন করলে দলের ভালো হবে তবে আমার সমস্যা নেই। আমি প্রস্তুত।’
অধিনায়কত্বের পাশাপাশি উইকেটরক্ষকের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ব্যাটিং-এ কোন সমস্যা হয় কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে মুশফিকুর বলেন, ‘ উইকেটরক্ষকের দায়িত্ব পালন করে আমি ব্যাট হাতে ডাবল সেঞ্চুরিও করেছি। আবার শূন্য রানেও ফিরেছি। তাই এজন্য আমার ব্যাটিংয়ে কোন সমস্যা হয় না।’ বাসস।
ট্যাগস

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

ইংল্যান্ড ফেভারিট, তবে আমরাও প্রস্তুত : মুশফিকুর

আপডেট সময় ০২:২২:৪৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৬
খেলাধূলা ডেস্ক রির্পোটঃ
দীর্ঘ ১৪ মাস পর আবারো টেস্ট ক্রিকেট খেলতে নামছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। তাই সম্প্রতি সময়ে বড় ফরম্যাটে না খেলায় শূন্য অভিজ্ঞতা নিয়ে বিশ্বের শক্তিশালী দল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লড়াই করতে নামতে হচ্ছে টাইগারদের। এজন্য চট্টগ্রামে সিরিজের প্রথম টেস্টে ইংল্যান্ডকেই ফেভারিট মানছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।
তবে দীর্ঘদিন পর খেলতে নামলেও, টেস্ট খেলার জন্য তারা প্রস্তুত বলেও জানালেন মুশি, ‘ইংল্যান্ড পরিষ্কার ফেভারিট। তবে আমারও প্রস্তুত টেস্ট খেলার জন্য। সেশন বাই সেশন খেলাটাই আমাদের মূল লক্ষ্য।’ অতীত ও সাম্প্রতিক পারফরমেন্সের হিসাবে কাগজে-কলমে বাংলাদেশের চেয়ে অনেক বেশি এগিয়ে ইংল্যান্ড। অতীতে বাংলাদেশকে ৮ ম্যাচের সবগুলোতেই হারিয়েছে ইংলিশরা। আর সাম্প্রতিক সময়ে ইংল্যান্ডে ভাণ্ডারে রয়েছে ৭টি টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতা।
 সেখানে বাংলাদেশের ভাণ্ডার ‘শূন্য’। তাই এসব কথা ভেবেই চট্টগ্রাম টেস্টের আগে ইংল্যান্ডকেই ফেভারিট বললেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম, ‘অবশ্যই, চট্টগ্রাম টেস্টে ইংল্যান্ড এগিয়ে। গত কয়েক বছর টেস্ট ফরম্যাটে দারুণ করেছে তারা। দেশের মাটিতে ও দেশের বাইরে যেভাবে খেলছে ইংল্যান্ড তাতে টেস্ট সিরিজে পরিষ্কার ফেভারিট তারা। তবে ওয়ানডে সিরিজে আমরাও ফেভারিট ছিলাম কিন্তু হেরেছি।’
ইংল্যান্ডকে ফেভারিট মানলেও লড়াই করার ইঙ্গিত কিন্তু ঠিকই দিয়েছেন মুশফিকুর। তিনি বলেন, ‘ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলার জন্য আমরা প্রস্তুত। কঠিন লড়াই করতে পারবো আমরা। সিরিজটি আমাদের জন্য অনেক বড় চ্যালেঞ্জের।’ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভালো খেলার জন্য সেশন ধরে ধরে খেলার পরিকল্পনার কথাও জানালেন মুশফিকুর, ‘সেশন ধরে ধরে খেলতে হবে। এভাবে খেলতে পারলে আমরা ভালো করতে পারবো। আমাদের মূল্য লক্ষ্য এটাই। তবে প্রথম ইনিংস অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। যে লিড পাবে অথবা শুরুতে ম্যাচের লাগাম নিতে পারবে, তারাই পুরো ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে।’
এজন্য প্রথম ইনিংসে নিজের লক্ষ্যের কথাও জানালেন মুশফিকুর, ‘আমাদের লক্ষ্য থাকবে ৩’শর বেশি রান করা। এটা আমাদের জন্য বড় কিছু হবে। আমাদের টপ অর্ডার ও ব্যাটসম্যানদের বড় বড় স্কোর করতে হবে। মমিনুল ছাড়া আমরা টপ অর্ডারের পাঁচজনই ক্রিকেটের সব ফরম্যাটেই খেলছি। সবাই ফর্মে আছে। আশা করি ব্যাটসম্যানরা ভালো করবে।’
ব্যাটসম্যানদের পাশাপাশি দলের বোলারদের উপরও অগাধ আস্থা মুশফিকুরের। টেস্টে প্রতিপক্ষের ২০ উইকেট নেয়ার ক্ষমতা তার দলের বোলারদের আছে বলে জানালেন তিনি, ‘আবহাওয়ার কারণে উইকেটের চরিত্র প্রতিনিয়তই পরিবর্তন হচ্ছে। এজন্য এখনো বোলিং কম্বিনেশন ঠিক করা যায়নি। উইকেট দেখে ঠিক করা হবে। দলের বোলারদের উপর আমার আস্থা রয়েছে। ২০ উইকেট নেয়ার মত বোলার আমাদের দলে রয়েছে।’
আঙ্গুলের ইনজুরির কারণে বাংলাদেশের হয়ে সর্বশেষ তিন টেস্টে উইকেটরক্ষকের দায়িত্বটা পালন করতে পারেননি মুশফিকুর। তবে এখন পুরোপুরি ফিট তিনি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে উইকেটরক্ষকের দায়িত্বটা পালন করতে প্রস্তুত মুশি, ‘আঙ্গুলের ইনজুরির কারণে শেষের কয়েকটি টেস্টে উইকেটের পিছনে দায়িত্ব পালন করতে পারিনি। তবে এখন পুরোপুরি ফিট আমি। উইকেটরক্ষকের দায়িত্ব পালন করতে আমার এখন কোনো সমস্যা নেই। টিম ম্যানেজমেন্ট যদি মনে করে আমি উইকেটরক্ষকের দায়িত্ব পালন করলে দলের ভালো হবে তবে আমার সমস্যা নেই। আমি প্রস্তুত।’
অধিনায়কত্বের পাশাপাশি উইকেটরক্ষকের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ব্যাটিং-এ কোন সমস্যা হয় কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে মুশফিকুর বলেন, ‘ উইকেটরক্ষকের দায়িত্ব পালন করে আমি ব্যাট হাতে ডাবল সেঞ্চুরিও করেছি। আবার শূন্য রানেও ফিরেছি। তাই এজন্য আমার ব্যাটিংয়ে কোন সমস্যা হয় না।’ বাসস।