ঢাকা ১১:০৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ওয়াজ মাহফিলের প্রধান অতিথি নায়ক অনন্ত জলিল

বিনোদন ডেস্কঃ
চিত্রনায়ক থেকে ধার্মিক হয়ে উঠা ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় শিল্পী এম এ জলিল অনন্ত এবার ওয়াজ মাহফিলের প্রধান অতিথি হচ্ছেন। আগামী ১৭ নভেম্বর রাজধানীর মোহাম্মদপুরের আদাবরে ওয়াজ মাহফিলটি অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে পোস্টার ছাপানো হয়েছে। পোস্টারে প্রধান অথিতি হিসেবে এম এ জলিল অনন্তের নাম লেখা দেখা যায়।
অবশ্য পোস্টারে অনন্তকে চিত্রনায়ক না উল্লেক করে ‘বিশিষ্ট শিল্পপতি ও সমাজসেবক’ হিসেবে বর্ণণা করা হয়েছে। এসব পোস্টার মোহাম্মদপুর ও আদাবর এলাকার বিভিন্ন দেয়াল ও গাছে সাঁটানো দেখা যাচ্ছে। এসব পোস্টার আবার ভাইরাল হয়েছে ফেসবুক দুনিয়ায়।
ওইদিন বাদ আছর ওয়াজ মাহফিল শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। এলাকার ‘যুবসমাজ’র উদ্যোগে তৃতীয় বার্ষিক বিশাল ওয়াজ মাহফিলের প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন মাওলানা মুফতি হাবিবুর রহমান মিজবাহ্। এতে নারীদের জন্য আছে বিশেষ সুব্যবস্থা।
এমন পোস্টার নিয়ে ফেসবুকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে। চলচ্চিত্র থেকে ধর্মে মনোযোগী হয়ে দ্বীন ও ইসলামের পথে কাজ করায় অনেকে তাকে অভিভাবদন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। আবার কেউ-কেউ তাকে কঠোর ভাষায় সমালোচনাও করছেন। তবে কোনো কিছু গায়ে না মাখিয়ে ধর্মের কথা বলেই যাচ্ছেন অনন্ত জলিল। সম্প্রতি তার ফেসবুকে তিনি ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথ বলেছেন। কিছুদিন আগে অস্ট্রেলিয়ায় এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মঞ্চে উঠে তিনি ইসলামের দাওয়াত পৌঁছে দেন।
এম এ অনন্ত জলিল একাধারে চলচিত্র নায়ক, পরিচালক, প্রযোজক, ব্যবসায়ী ও শিল্পপতি। ২০১০ সালে ‘খোঁজ দ্যা সার্চ’ সিনেমার মাধ্যমে তার বাংলা চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে। এরপর ‘হৃদয় ভাঙ্গা ঢেউ’, ‘দ্য স্পীড’ ‘মোস্ট ওয়েলকাম’ ‘নিঃস্বার্থ ভালবাসা’ ‘মোস্ট ওয়েলকাম ২’ ছবিতে নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেন। এর মধ্যে ‘মোস্ট ওয়েলকাম’ ছবিটি বেশ জনপ্রিয়তা পায়। সম্প্রতি তিনি তাবলীগ জামায়েতের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে ইসলাম ধর্মের হুকুম-আহকামের কথা সাধারণ মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়া চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এর আগে তিনি ধানমন্ডির এক মসজিদে তাবলীগের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। সেই সঙ্গে ওই বৈঠকে শরিক হতে মুসল্লিদের আহ্বানও জানিয়েছিলেন।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

ওয়াজ মাহফিলের প্রধান অতিথি নায়ক অনন্ত জলিল

আপডেট সময় ০২:৫০:২৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ নভেম্বর ২০১৭
বিনোদন ডেস্কঃ
চিত্রনায়ক থেকে ধার্মিক হয়ে উঠা ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় শিল্পী এম এ জলিল অনন্ত এবার ওয়াজ মাহফিলের প্রধান অতিথি হচ্ছেন। আগামী ১৭ নভেম্বর রাজধানীর মোহাম্মদপুরের আদাবরে ওয়াজ মাহফিলটি অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে পোস্টার ছাপানো হয়েছে। পোস্টারে প্রধান অথিতি হিসেবে এম এ জলিল অনন্তের নাম লেখা দেখা যায়।
অবশ্য পোস্টারে অনন্তকে চিত্রনায়ক না উল্লেক করে ‘বিশিষ্ট শিল্পপতি ও সমাজসেবক’ হিসেবে বর্ণণা করা হয়েছে। এসব পোস্টার মোহাম্মদপুর ও আদাবর এলাকার বিভিন্ন দেয়াল ও গাছে সাঁটানো দেখা যাচ্ছে। এসব পোস্টার আবার ভাইরাল হয়েছে ফেসবুক দুনিয়ায়।
ওইদিন বাদ আছর ওয়াজ মাহফিল শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। এলাকার ‘যুবসমাজ’র উদ্যোগে তৃতীয় বার্ষিক বিশাল ওয়াজ মাহফিলের প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন মাওলানা মুফতি হাবিবুর রহমান মিজবাহ্। এতে নারীদের জন্য আছে বিশেষ সুব্যবস্থা।
এমন পোস্টার নিয়ে ফেসবুকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে। চলচ্চিত্র থেকে ধর্মে মনোযোগী হয়ে দ্বীন ও ইসলামের পথে কাজ করায় অনেকে তাকে অভিভাবদন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। আবার কেউ-কেউ তাকে কঠোর ভাষায় সমালোচনাও করছেন। তবে কোনো কিছু গায়ে না মাখিয়ে ধর্মের কথা বলেই যাচ্ছেন অনন্ত জলিল। সম্প্রতি তার ফেসবুকে তিনি ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথ বলেছেন। কিছুদিন আগে অস্ট্রেলিয়ায় এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মঞ্চে উঠে তিনি ইসলামের দাওয়াত পৌঁছে দেন।
এম এ অনন্ত জলিল একাধারে চলচিত্র নায়ক, পরিচালক, প্রযোজক, ব্যবসায়ী ও শিল্পপতি। ২০১০ সালে ‘খোঁজ দ্যা সার্চ’ সিনেমার মাধ্যমে তার বাংলা চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে। এরপর ‘হৃদয় ভাঙ্গা ঢেউ’, ‘দ্য স্পীড’ ‘মোস্ট ওয়েলকাম’ ‘নিঃস্বার্থ ভালবাসা’ ‘মোস্ট ওয়েলকাম ২’ ছবিতে নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেন। এর মধ্যে ‘মোস্ট ওয়েলকাম’ ছবিটি বেশ জনপ্রিয়তা পায়। সম্প্রতি তিনি তাবলীগ জামায়েতের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে ইসলাম ধর্মের হুকুম-আহকামের কথা সাধারণ মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়া চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এর আগে তিনি ধানমন্ডির এক মসজিদে তাবলীগের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। সেই সঙ্গে ওই বৈঠকে শরিক হতে মুসল্লিদের আহ্বানও জানিয়েছিলেন।