ঢাকা ০৩:৫৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

করের চাপ মধ্যবিত্তের উপর: সিপিডি

জাতীয় ডেস্কঃ
ঢালাওভাবে ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট বাস্তবায়ন হলে সাধারণের উপর এর চাপ বাড়বে বলে উল্লেখ করেছে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি)। আসছে বাজেটে যে ধরনের কর কাঠামো করা হয়েছে তাতে মধ্যবিত্তের উপর চাপ বাড়বে বলে উল্লেখ করেছে সংস্থাটি।
বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে আগামী ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বজেট পেশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এবারের বাজেটে ৭ দশমিক ৪ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য ধরা হয়েছে। কিন্তু বেকারত্ব না কমলে প্রবৃদ্ধির সুফল পাওয়া যাবে না বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।
প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে আজ শুক্রবার রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে সিপিডি। সিপিডির পর্যালোচনা উপস্থাপন করেন সংস্থাটির বিশেষ ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য।
এ সময় সিপিডির ফেলো মোস্তাফিজুর রহমান, নির্বাহী পরিচালক ফাহমিদা খাতুন, গবেষণা পরিচালক খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেমসহ সংস্থার অন্য গবেষকরা উপস্থিত ছিলেন।
দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, প্রস্তাবিত বাজেটের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যের সঙ্গে আমরা একমত। কিন্তু এর আয় ও ব্যয়ের কাঠামোর মধ্যে দুর্বলতা রয়েছে। তিনি বলেন, শুধু প্রশাসনিক কাঠামো দিয়ে বাজেটে বাস্তবায়ন সম্ভব নয়। বাজেট বাস্তবায়নে রাজনৈতিক সহায়তা দরকার। জনপ্রতিনিধিদের অংশগ্রহণ প্রয়োজন। কিন্তু আমরা তা দেখছি না। এছাড়াও বাজেটে এডিপি বাস্তবায়নে সুর্নিদিষ্টি কোনো দিক নির্দেশনা নেই।
ড. দেবপ্রিয় বলেন, প্রস্তাবিত বাজেটে ৭ দশমিক ৪ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জনের সরকারি বিনিয়োগ বড় ভূমিকা পালন করে। পাশাপাশি বেসরকারি বিনিয়োগ উন্নীত করতে হবে। অর্থনীতির সঙ্গে বাজেটের আকারও বাড়াতে হবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু বাজেটের আকার বাড়ানো জন্য যে সক্ষমতার প্রয়োজন তাতে ঘাটতি আছে বলে আমরা মনে করি।

ইত্তেফাক

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

করের চাপ মধ্যবিত্তের উপর: সিপিডি

আপডেট সময় ০২:৪৩:৫৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২ জুন ২০১৭
জাতীয় ডেস্কঃ
ঢালাওভাবে ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট বাস্তবায়ন হলে সাধারণের উপর এর চাপ বাড়বে বলে উল্লেখ করেছে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি)। আসছে বাজেটে যে ধরনের কর কাঠামো করা হয়েছে তাতে মধ্যবিত্তের উপর চাপ বাড়বে বলে উল্লেখ করেছে সংস্থাটি।
বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে আগামী ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বজেট পেশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এবারের বাজেটে ৭ দশমিক ৪ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য ধরা হয়েছে। কিন্তু বেকারত্ব না কমলে প্রবৃদ্ধির সুফল পাওয়া যাবে না বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।
প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে আজ শুক্রবার রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে সিপিডি। সিপিডির পর্যালোচনা উপস্থাপন করেন সংস্থাটির বিশেষ ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য।
এ সময় সিপিডির ফেলো মোস্তাফিজুর রহমান, নির্বাহী পরিচালক ফাহমিদা খাতুন, গবেষণা পরিচালক খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেমসহ সংস্থার অন্য গবেষকরা উপস্থিত ছিলেন।
দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, প্রস্তাবিত বাজেটের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যের সঙ্গে আমরা একমত। কিন্তু এর আয় ও ব্যয়ের কাঠামোর মধ্যে দুর্বলতা রয়েছে। তিনি বলেন, শুধু প্রশাসনিক কাঠামো দিয়ে বাজেটে বাস্তবায়ন সম্ভব নয়। বাজেট বাস্তবায়নে রাজনৈতিক সহায়তা দরকার। জনপ্রতিনিধিদের অংশগ্রহণ প্রয়োজন। কিন্তু আমরা তা দেখছি না। এছাড়াও বাজেটে এডিপি বাস্তবায়নে সুর্নিদিষ্টি কোনো দিক নির্দেশনা নেই।
ড. দেবপ্রিয় বলেন, প্রস্তাবিত বাজেটে ৭ দশমিক ৪ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জনের সরকারি বিনিয়োগ বড় ভূমিকা পালন করে। পাশাপাশি বেসরকারি বিনিয়োগ উন্নীত করতে হবে। অর্থনীতির সঙ্গে বাজেটের আকারও বাড়াতে হবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু বাজেটের আকার বাড়ানো জন্য যে সক্ষমতার প্রয়োজন তাতে ঘাটতি আছে বলে আমরা মনে করি।

ইত্তেফাক