ঢাকা ১০:১৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

করোনা প্রতিরোধে টার্মিনাল গুলোতে নেই কোন সাবধানতা

এন এ মুরাদ, মুরাদনগর:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ বাসটার্মিনাল গুলোতে করোনা প্রতিরোধে নেই বিশেষ কোন সাবধনতা। যাত্রী, চালক, হেল্পার, সবায় নিজেদের খেয়াল খুশিমত চলাফেরা করছে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে গণপরিবহন ব্যাবহারে সতর্কতাবিষয়ক বিজ্ঞপ্তি থাকলেও কেউ তামানছেনা।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, কুমিল্লা ট্রান্সপোর্ট, প্রান্তিক, নিউ-জনতা, সুগন্ধা, বি-আরটিসি, নিউশাপলা, টিপু, ফারজানাসহ অধিকাংশ কাউন্টার রাস্তার উপর হওয়ায় কোনটারই সৌচাগার ও হাত ধোয়ার জায়গা নেই। এদিকে তিশা ক্লাসিক ও তিশাভি-আইপি কাইন্টাওে সৌচাগার আছে জীবণুনাশক হাত ধোয়ার সাবান বা স্যানিটাইজার নাই।

এছাড়াও চালক, হেল্পার, যাত্রী ও কাউন্টরে দায়িত্বরত ব্যাক্তিরা গণ পরিবহনে চলাচলের ক্ষেত্রে এই নিয়মগুলো মানছেনা।

যেমনঃ যাত্রীরা- পরিবহনে উঠার পূর্বে ও পওে জীবাণুনাশক সাবান/স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধোয়া, গ্লাভস ও মাস্ক পরা। চালক ও হেল্পাররা গাড়ী ছাড়ার পূর্বে ও পওে জীবাণুনাশক সাবান/স্যানিটাইজার দিয়ে হাত জীবানু মুক্ত করা, যাত্রীকে স্পর্শ নাকরা,
মালিকদের করনীয়-নিয়মিত চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষাকরা , প্রতিটি ট্রিপের শেষে জীবাণুনাশক দিয়ে বাস, টেম্পু, লেগুনারসিট, হাতল, জানালার পাশ ভালভাবে পরিষ্কার করা।

কোম্পনাীগঞ্জ থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আসা যাওয়ার যাত্রীরা বলেন, কাউন্টার গুলোতে ওয়াশ রুম না থাকায় আমাদের বেশকষ্ট হয়। বিশেষ করে মহিলাদের নিয়ে খুব বিভ্রান্তিতে পড়তে হয়। ইচ্ছে থাকলেও হাত মুখ ধোয়া যায়না। বর্তমানে দেশে করোনা ভাইরাসের সংকটময় পরিস্থিতিতে হাত মোখ ধোয়ার জন্য প্রতিটি কাউন্টারে জায়গাকরা দরকার।

কোম্পানীগঞ্জ পরিবহন শ্রমিকইউনিয়নের সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, বাস টার্মিনালটা ঠিক করে গাড়ী রাখার উপযোক্ত পরিবেশ করলে যাত্রীদের জন্য প্রতিটি কাউন্টারে ওয়াশ রুম করা সম্ভব হবে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ নাজমূল আলম বলেন, উপজেলা প্রশাসন ও আমাদের স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে গণ পরিবহন এলাকা গুলো চলার নিয়ম ও নির্দেশনা দেওয়া আছে। না মানলে প্রশসনের মাধ্যমে আইনানুগ ব্যাবস্থা করা হবে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

করোনা প্রতিরোধে টার্মিনাল গুলোতে নেই কোন সাবধানতা

আপডেট সময় ০৩:০৪:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ মার্চ ২০২০

এন এ মুরাদ, মুরাদনগর:

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ বাসটার্মিনাল গুলোতে করোনা প্রতিরোধে নেই বিশেষ কোন সাবধনতা। যাত্রী, চালক, হেল্পার, সবায় নিজেদের খেয়াল খুশিমত চলাফেরা করছে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে গণপরিবহন ব্যাবহারে সতর্কতাবিষয়ক বিজ্ঞপ্তি থাকলেও কেউ তামানছেনা।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, কুমিল্লা ট্রান্সপোর্ট, প্রান্তিক, নিউ-জনতা, সুগন্ধা, বি-আরটিসি, নিউশাপলা, টিপু, ফারজানাসহ অধিকাংশ কাউন্টার রাস্তার উপর হওয়ায় কোনটারই সৌচাগার ও হাত ধোয়ার জায়গা নেই। এদিকে তিশা ক্লাসিক ও তিশাভি-আইপি কাইন্টাওে সৌচাগার আছে জীবণুনাশক হাত ধোয়ার সাবান বা স্যানিটাইজার নাই।

এছাড়াও চালক, হেল্পার, যাত্রী ও কাউন্টরে দায়িত্বরত ব্যাক্তিরা গণ পরিবহনে চলাচলের ক্ষেত্রে এই নিয়মগুলো মানছেনা।

যেমনঃ যাত্রীরা- পরিবহনে উঠার পূর্বে ও পওে জীবাণুনাশক সাবান/স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধোয়া, গ্লাভস ও মাস্ক পরা। চালক ও হেল্পাররা গাড়ী ছাড়ার পূর্বে ও পওে জীবাণুনাশক সাবান/স্যানিটাইজার দিয়ে হাত জীবানু মুক্ত করা, যাত্রীকে স্পর্শ নাকরা,
মালিকদের করনীয়-নিয়মিত চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষাকরা , প্রতিটি ট্রিপের শেষে জীবাণুনাশক দিয়ে বাস, টেম্পু, লেগুনারসিট, হাতল, জানালার পাশ ভালভাবে পরিষ্কার করা।

কোম্পনাীগঞ্জ থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আসা যাওয়ার যাত্রীরা বলেন, কাউন্টার গুলোতে ওয়াশ রুম না থাকায় আমাদের বেশকষ্ট হয়। বিশেষ করে মহিলাদের নিয়ে খুব বিভ্রান্তিতে পড়তে হয়। ইচ্ছে থাকলেও হাত মুখ ধোয়া যায়না। বর্তমানে দেশে করোনা ভাইরাসের সংকটময় পরিস্থিতিতে হাত মোখ ধোয়ার জন্য প্রতিটি কাউন্টারে জায়গাকরা দরকার।

কোম্পানীগঞ্জ পরিবহন শ্রমিকইউনিয়নের সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, বাস টার্মিনালটা ঠিক করে গাড়ী রাখার উপযোক্ত পরিবেশ করলে যাত্রীদের জন্য প্রতিটি কাউন্টারে ওয়াশ রুম করা সম্ভব হবে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ নাজমূল আলম বলেন, উপজেলা প্রশাসন ও আমাদের স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে গণ পরিবহন এলাকা গুলো চলার নিয়ম ও নির্দেশনা দেওয়া আছে। না মানলে প্রশসনের মাধ্যমে আইনানুগ ব্যাবস্থা করা হবে।