ঢাকা ১০:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কাতারে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার তিন প্রবাসী নিহত

স্টাফ রির্পোটার, কুমিল্লাঃ

কাতারে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের তিন প্রবাসী নিহত হয়েছেন। আজ মঙ্গলবার বিকেলে নিহতদের পরিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হলেন উপজেলার চিওড়া ইউনিয়নের ঝাটিয়ারখিল গ্রামের আবুল কাশেম চৌধুরীর পুত্র শহিদুল হাসান সৈকত চৌধুরী (২৬), একই ইউনিয়নের নেতড়া গ্রামের আহাম্মদ উল্যাহর পুত্র মোঃ শিপন (৩৫) ও সাঙ্গিশ্বর গ্রামের মৃত এছাক ভূঁইয়ার পুত্র ওমর ফারুক ভূঁইয়া প্রকাশ মিয়া (৪০)।

নিহত সৈকতের আত্মীয় ইউসুফ মিয়াজী ও ফারুক মিয়ার চাচাতো ভাই জাকারিয়া জানান, গত শুক্রবার রাত থেকে নিহত তিনজনের মোবাইল ফোন বন্ধ ছিল। এরপর দেশটির বিভিন্ন এলাকায় অবস্থানরত চৌদ্দগ্রামের প্রবাসীদের মাধ্যমে তাদেরকে খোঁজাখুজি করা হয়। কিন্তু এরপরও তাদের সন্ধান না পাওয়ায় কাতারের নিউ সানাইয়া এলাকার হাসপাতালে খোঁজ নিয়ে তাদের লাশ পাওয়া যায়।

কাতারে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের মাধ্যমে জানা গেছে, গত শুক্রবার রাতে তিন বাংলাদেশি ও এক মিশরীয় প্রাইভেটকার যোগে কর্মস্থল থেকে বাসায় ফিরছিলেন। পথিমধ্যে দেশটির নিউ সানাইয়া এলাকায় দুর্ঘটনায় প্রাইভেটারকারটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। ঘটনাস্থলে তিনজন নিহত হন।

অন্যজন আহত অবস্থায় হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। গত রবিবার রাতে তিনিও মারা যান। তবে নিহত মিশরী প্রবাসীর পরিচয় জানা যায়নি। কাতারে তিন যুবকের মৃত্যুর সংবাদ চৌদ্দগ্রামে ছড়িয়ে পড়লে সর্বস্তরের লোকজনের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে আসে। তিনটি পরিবার এবং তাদের আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে চলছে শোকের মাতম।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কাতারে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার তিন প্রবাসী নিহত

আপডেট সময় ০২:১৩:০৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ মার্চ ২০১৭
স্টাফ রির্পোটার, কুমিল্লাঃ

কাতারে সড়ক দুর্ঘটনায় কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের তিন প্রবাসী নিহত হয়েছেন। আজ মঙ্গলবার বিকেলে নিহতদের পরিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হলেন উপজেলার চিওড়া ইউনিয়নের ঝাটিয়ারখিল গ্রামের আবুল কাশেম চৌধুরীর পুত্র শহিদুল হাসান সৈকত চৌধুরী (২৬), একই ইউনিয়নের নেতড়া গ্রামের আহাম্মদ উল্যাহর পুত্র মোঃ শিপন (৩৫) ও সাঙ্গিশ্বর গ্রামের মৃত এছাক ভূঁইয়ার পুত্র ওমর ফারুক ভূঁইয়া প্রকাশ মিয়া (৪০)।

নিহত সৈকতের আত্মীয় ইউসুফ মিয়াজী ও ফারুক মিয়ার চাচাতো ভাই জাকারিয়া জানান, গত শুক্রবার রাত থেকে নিহত তিনজনের মোবাইল ফোন বন্ধ ছিল। এরপর দেশটির বিভিন্ন এলাকায় অবস্থানরত চৌদ্দগ্রামের প্রবাসীদের মাধ্যমে তাদেরকে খোঁজাখুজি করা হয়। কিন্তু এরপরও তাদের সন্ধান না পাওয়ায় কাতারের নিউ সানাইয়া এলাকার হাসপাতালে খোঁজ নিয়ে তাদের লাশ পাওয়া যায়।

কাতারে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের মাধ্যমে জানা গেছে, গত শুক্রবার রাতে তিন বাংলাদেশি ও এক মিশরীয় প্রাইভেটকার যোগে কর্মস্থল থেকে বাসায় ফিরছিলেন। পথিমধ্যে দেশটির নিউ সানাইয়া এলাকায় দুর্ঘটনায় প্রাইভেটারকারটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। ঘটনাস্থলে তিনজন নিহত হন।

অন্যজন আহত অবস্থায় হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। গত রবিবার রাতে তিনিও মারা যান। তবে নিহত মিশরী প্রবাসীর পরিচয় জানা যায়নি। কাতারে তিন যুবকের মৃত্যুর সংবাদ চৌদ্দগ্রামে ছড়িয়ে পড়লে সর্বস্তরের লোকজনের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে আসে। তিনটি পরিবার এবং তাদের আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে চলছে শোকের মাতম।