ঢাকা ০৭:৫৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কাশ্মীর ইস্যু মেনে নিলে ভারতে ফিরতে পারতাম: জাকির নায়েক

Indian Islamic preacher Zakir Naik reacts during a prayer at a mosque in Melaka, Malaysia, September 7, 2019. REUTERS/Lim Huey Teng

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

চাঞ্চল্যকর দাবি করেছেন মালয়েশিয়ায় নির্বাসনে থাকা ভারতের ইসলাম প্রচারক জাকির নায়েক। তার দাবি, মোদি সরকার চেয়েছিল তিনি কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা রদকে সমর্থন করুন। তার পরিবর্তে ভারতে ঢুকতে দেওয়া হবে তাকে।  তুলে নেওয়া হবে সব মামলা। একটি ভিডিও প্রকাশ করে এমন দাবি করেছেন জাকির নায়েক।

জাকির নায়েক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের এক প্রতিনিধি আমার সঙ্গে দেখা করেন কয়েক মাস আগে। ভারত সরকার চায় আমার মাধ্যমে মুসলিম দেশগুলির সঙ্গে সম্পর্ক ভালো করতে।  তার সঙ্গে আমার বৈঠক হয়।  ওই প্রতিনিধি গত সেপ্টেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে পুত্রযায়ায় এসেছিলেন। তিনি আমাকে বলেন, মোদি ও অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করে তাদের নির্দেশেই তিনি আমার কাছে এসেছেন।’ 

তিনি জানান, ‘কয়েক ঘণ্টা ধরে ওই বৈঠক হয়েছিল। ওই প্রস্তাব শুনে আমি চমকে যাই। যে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনী প্রচারে মাত্র ২ মিনিটে ৯ বার আমার নাম নিয়ে আক্রমণ করেন তার পক্ষে এ জিনিস কীভাবে সম্ভব! আমি ৩৭০ ধারা রদ করাকে সমর্থন করার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিই।’

উস্কানিমূলক বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে ভারতে একাধিক মামলা হয়েছে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে। তারপরই তিনি গ্রেপ্তার ও বিচারের মুখোমুখি হওয়ার ভয়ে মালয়েশিয়ায় আশ্রয় নিয়েছেন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

কাশ্মীর ইস্যু মেনে নিলে ভারতে ফিরতে পারতাম: জাকির নায়েক

আপডেট সময় ০২:২৪:০১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ জানুয়ারী ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

চাঞ্চল্যকর দাবি করেছেন মালয়েশিয়ায় নির্বাসনে থাকা ভারতের ইসলাম প্রচারক জাকির নায়েক। তার দাবি, মোদি সরকার চেয়েছিল তিনি কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা রদকে সমর্থন করুন। তার পরিবর্তে ভারতে ঢুকতে দেওয়া হবে তাকে।  তুলে নেওয়া হবে সব মামলা। একটি ভিডিও প্রকাশ করে এমন দাবি করেছেন জাকির নায়েক।

জাকির নায়েক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের এক প্রতিনিধি আমার সঙ্গে দেখা করেন কয়েক মাস আগে। ভারত সরকার চায় আমার মাধ্যমে মুসলিম দেশগুলির সঙ্গে সম্পর্ক ভালো করতে।  তার সঙ্গে আমার বৈঠক হয়।  ওই প্রতিনিধি গত সেপ্টেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে পুত্রযায়ায় এসেছিলেন। তিনি আমাকে বলেন, মোদি ও অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করে তাদের নির্দেশেই তিনি আমার কাছে এসেছেন।’ 

তিনি জানান, ‘কয়েক ঘণ্টা ধরে ওই বৈঠক হয়েছিল। ওই প্রস্তাব শুনে আমি চমকে যাই। যে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনী প্রচারে মাত্র ২ মিনিটে ৯ বার আমার নাম নিয়ে আক্রমণ করেন তার পক্ষে এ জিনিস কীভাবে সম্ভব! আমি ৩৭০ ধারা রদ করাকে সমর্থন করার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিই।’

উস্কানিমূলক বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে ভারতে একাধিক মামলা হয়েছে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে। তারপরই তিনি গ্রেপ্তার ও বিচারের মুখোমুখি হওয়ার ভয়ে মালয়েশিয়ায় আশ্রয় নিয়েছেন।