ঢাকা ০৫:২৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুমিল্লার ৭৩২টি পূজা মন্ডপে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পাঁচ হাজার সদস্য

বিশেষ প্রতিনিধিঃ
শুক্রবার শারদীয় দুর্গাদেবীর ষষ্ঠী পূজা। হিন্দু সম্প্রদায়ের বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজা আনুষ্ঠানিক ভাবে আগামী দিন হলেও ধর্মীয় নিয়মানুসারে দেবী দুর্গার বোধন পূজার মধ্য দিয়ে পূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে শুক্রবার থেকে।
শুক্রবার (৭ অক্টোবর) সকাল ৯টা ৫৭ মিনিট থেকে বিকাল ৩টা ৫৯ মিনিট এর মধ্যে বোধন পূজা শেষে সন্ধ্যায় মঙ্গলঘট স্থাপন করে তাতে ফুল, বেল পাতাসহ গন্ধ-পুষ্পাঞ্জলিতে দেশের সব পূজা মন্ডপগুলোতে ষষ্ঠী পূজা করা হবে।
যোতিশ শাস্ত্র মোতাবেক তিথি অনুসারে বিশ্ব শান্তি কামনায় দেবী দুর্গার ঘোটকে (ঘোড়ায়) আগমন ঘটবে এবং দশমী শেষে একই বাহনে মর্ত্তলোক থেকে স্বর্গলোকে গমন করবেন।
শনিবার সপ্তমী পূজার মাধ্য দিয়ে ভক্তদের মাঝে পূজার আনন্দ উদ্দীপনা পরিলতি হবে। কুমিল্লা মহানগরসহ ১৬টি উপজেলার ৭৩২টি পূজা মন্ডপে নেয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। জেলার মন্ডপগুলোর মধ্যে ১৭৫টি অধিক গুরুত্বপূর্ণ ও ২২০টি পূজা মন্ডপকে গুরুত্বপূর্ণ মন্ডপসহ সকল পূজা মন্ডপে প্রায় পাঁচ সহস্রাধিক আইন-শৃঙ্খলা রাকারী বাহিনী। এদের মধ্যে ৩০জন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট, ৫শতাধিক পুলিশ সদস্য, ৪ হাজার সহ্স্্রধিক আনসার ও গ্রাম প্রতিরা বাহিনী নিয়োজিত থাকবে। এছাড়া র‌্যাব-১১ ও গোয়েন্দা পুলিশের ভ্রাম্যমান বিশেষ টিম পর্যবেণ করবেন।
এর মধ্যে সবচেয়ে  বেশি ১৫৫টি পূজা মন্ডপ রয়েছে মুরাদনগর উপজেলায়।
এ ব্যাপারে কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার শাহ্ আবিদ হোসেন জানান, ‘সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ও ধর্মীয় ভাব-গাম্ভীর্য্যরে মধ্য দিয়ে দেবী দুর্গার পূজা অনুষ্ঠিত করাই হচ্ছে আমাদের একমাত্র ল্য। অতিগুরুত্বপূর্ণ ও গুরুত্বপূর্ণ পূজা মন্ডপগুলোতে থাকবে প্রশাসনের কঠোর নজরদারী। বড়ধরনের নাশকতার কোন আশংকা না থাকলেও কুমিল্লা প্রশাসন সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। এছাড়া অসাম্প্রদায়িক দেশ হিসেবে শান্তিপূর্ণ ভাবে ধর্মীয় উৎসব উদযাপন করার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করছি’।
এদিকে চান্দিনা উপজেলা তথা সমস্ত কুমিল্লা জেলার প্রতিটি পূজা মন্ডপে শান্তিপূর্ণভাবে শারদীয় দুর্গা পূজা উদযাপনের আশা ব্যক্ত করেছেন কুমিল্লা জেলা পূজা উৎযাপন কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ও চান্দিনা উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা তপন বক্সী। দুর্গাপূজা উপলে তিনি কুমিল্লার জেলার সকলকে শারদীয় শুভেচ্ছা জানান।
ট্যাগস

কুমিল্লার ৭৩২টি পূজা মন্ডপে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পাঁচ হাজার সদস্য

আপডেট সময় ০৩:২১:৩৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর ২০১৬
বিশেষ প্রতিনিধিঃ
শুক্রবার শারদীয় দুর্গাদেবীর ষষ্ঠী পূজা। হিন্দু সম্প্রদায়ের বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজা আনুষ্ঠানিক ভাবে আগামী দিন হলেও ধর্মীয় নিয়মানুসারে দেবী দুর্গার বোধন পূজার মধ্য দিয়ে পূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে শুক্রবার থেকে।
শুক্রবার (৭ অক্টোবর) সকাল ৯টা ৫৭ মিনিট থেকে বিকাল ৩টা ৫৯ মিনিট এর মধ্যে বোধন পূজা শেষে সন্ধ্যায় মঙ্গলঘট স্থাপন করে তাতে ফুল, বেল পাতাসহ গন্ধ-পুষ্পাঞ্জলিতে দেশের সব পূজা মন্ডপগুলোতে ষষ্ঠী পূজা করা হবে।
যোতিশ শাস্ত্র মোতাবেক তিথি অনুসারে বিশ্ব শান্তি কামনায় দেবী দুর্গার ঘোটকে (ঘোড়ায়) আগমন ঘটবে এবং দশমী শেষে একই বাহনে মর্ত্তলোক থেকে স্বর্গলোকে গমন করবেন।
শনিবার সপ্তমী পূজার মাধ্য দিয়ে ভক্তদের মাঝে পূজার আনন্দ উদ্দীপনা পরিলতি হবে। কুমিল্লা মহানগরসহ ১৬টি উপজেলার ৭৩২টি পূজা মন্ডপে নেয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। জেলার মন্ডপগুলোর মধ্যে ১৭৫টি অধিক গুরুত্বপূর্ণ ও ২২০টি পূজা মন্ডপকে গুরুত্বপূর্ণ মন্ডপসহ সকল পূজা মন্ডপে প্রায় পাঁচ সহস্রাধিক আইন-শৃঙ্খলা রাকারী বাহিনী। এদের মধ্যে ৩০জন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট, ৫শতাধিক পুলিশ সদস্য, ৪ হাজার সহ্স্্রধিক আনসার ও গ্রাম প্রতিরা বাহিনী নিয়োজিত থাকবে। এছাড়া র‌্যাব-১১ ও গোয়েন্দা পুলিশের ভ্রাম্যমান বিশেষ টিম পর্যবেণ করবেন।
এর মধ্যে সবচেয়ে  বেশি ১৫৫টি পূজা মন্ডপ রয়েছে মুরাদনগর উপজেলায়।
এ ব্যাপারে কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার শাহ্ আবিদ হোসেন জানান, ‘সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ও ধর্মীয় ভাব-গাম্ভীর্য্যরে মধ্য দিয়ে দেবী দুর্গার পূজা অনুষ্ঠিত করাই হচ্ছে আমাদের একমাত্র ল্য। অতিগুরুত্বপূর্ণ ও গুরুত্বপূর্ণ পূজা মন্ডপগুলোতে থাকবে প্রশাসনের কঠোর নজরদারী। বড়ধরনের নাশকতার কোন আশংকা না থাকলেও কুমিল্লা প্রশাসন সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। এছাড়া অসাম্প্রদায়িক দেশ হিসেবে শান্তিপূর্ণ ভাবে ধর্মীয় উৎসব উদযাপন করার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করছি’।
এদিকে চান্দিনা উপজেলা তথা সমস্ত কুমিল্লা জেলার প্রতিটি পূজা মন্ডপে শান্তিপূর্ণভাবে শারদীয় দুর্গা পূজা উদযাপনের আশা ব্যক্ত করেছেন কুমিল্লা জেলা পূজা উৎযাপন কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ও চান্দিনা উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা তপন বক্সী। দুর্গাপূজা উপলে তিনি কুমিল্লার জেলার সকলকে শারদীয় শুভেচ্ছা জানান।