ঢাকা ০৯:৩২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুমিল্লায় দুই লাখ টাকার গোল কাঠসহ ট্রাক আটক

কুমিল্লা :

কুমিল্লায় দুই লাখ টাকা দামের অবৈধ গোল কাঠ বোঝাই মিনিট্রাক আটক করেছে বন বিভাগ। এ সময় কাঠ বোঝাই ট্রাক সড়কে রেখে চালক ও তার সহযোগী পালিয়ে যায়। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার ধনাইতরী এলাকা থেকে অবৈধ গোল কাঠ বোঝাই মিনিট্রাকটি আটক করা হয়।

সোমবার কুমিল্লা বিভাগীয় বন বিভাগের ফরেস্ট রেঞ্জার মো. তোষাররফ হোসেন জানান, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সুয়াগাজী ফরেস্ট চেক স্টেশনের সামনে রবিবার রাতে ঢাকামুখী ত্রিপল বাঁধা একটি মিনিট্রাককে থামাতে সংকেত দিলে চালক দ্রুতগতিতে পালাতে চেষ্টা করে। অন্য একটি গাড়ি দিয়ে মিনি ট্রাকটিকে ধাওয়া করলে সদর দক্ষিণ উপজেলার ধনাইতরী এলাকায় গিয়ে চালক ও তার সহযোগী অবৈধ কাঠ বোঝাই গাড়ি সড়কে রেখে পালিয়ে যায়। পরে মিনিট্রাকের ত্রিপলের নিচ থেকে প্রায় দুই লাখ টাকার গোল কাঠ জব্দ করা হয়। কাঠে বন বিভাগের কোনো প্রকার হাতুড়ির চিহ্ন না থাকায় বুঝা যাচ্ছে কাঠগুলো অবৈধভাবে পাচার করা হচ্ছে। এছাড়া গাড়িতে কোনো প্রকার কাগজপত্রও পাওয়া যায়নি।

তিনি জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আশপাশে তল্লাশী করে কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। ১৯২৭ সালের বন বিভাগের আইনে অবৈধভাবে কাঠ পাচার শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

অভিযানে বিভাগীয় বন বিভাগের ফরেস্ট রেঞ্জার মো. তোষাররফ হোসেনের সঙ্গে ছিলেন ফরেস্টার দীলিপ কুমার দাস, বন প্রহরী আবুল কালাম আজাদ, এম এ মান্নান, বাগানমালী মো. শাহআলম ও মো. জাহাংগীর আলম।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

কুমিল্লায় দুই লাখ টাকার গোল কাঠসহ ট্রাক আটক

আপডেট সময় ০৩:০২:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০

কুমিল্লা :

কুমিল্লায় দুই লাখ টাকা দামের অবৈধ গোল কাঠ বোঝাই মিনিট্রাক আটক করেছে বন বিভাগ। এ সময় কাঠ বোঝাই ট্রাক সড়কে রেখে চালক ও তার সহযোগী পালিয়ে যায়। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার ধনাইতরী এলাকা থেকে অবৈধ গোল কাঠ বোঝাই মিনিট্রাকটি আটক করা হয়।

সোমবার কুমিল্লা বিভাগীয় বন বিভাগের ফরেস্ট রেঞ্জার মো. তোষাররফ হোসেন জানান, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সুয়াগাজী ফরেস্ট চেক স্টেশনের সামনে রবিবার রাতে ঢাকামুখী ত্রিপল বাঁধা একটি মিনিট্রাককে থামাতে সংকেত দিলে চালক দ্রুতগতিতে পালাতে চেষ্টা করে। অন্য একটি গাড়ি দিয়ে মিনি ট্রাকটিকে ধাওয়া করলে সদর দক্ষিণ উপজেলার ধনাইতরী এলাকায় গিয়ে চালক ও তার সহযোগী অবৈধ কাঠ বোঝাই গাড়ি সড়কে রেখে পালিয়ে যায়। পরে মিনিট্রাকের ত্রিপলের নিচ থেকে প্রায় দুই লাখ টাকার গোল কাঠ জব্দ করা হয়। কাঠে বন বিভাগের কোনো প্রকার হাতুড়ির চিহ্ন না থাকায় বুঝা যাচ্ছে কাঠগুলো অবৈধভাবে পাচার করা হচ্ছে। এছাড়া গাড়িতে কোনো প্রকার কাগজপত্রও পাওয়া যায়নি।

তিনি জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আশপাশে তল্লাশী করে কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। ১৯২৭ সালের বন বিভাগের আইনে অবৈধভাবে কাঠ পাচার শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

অভিযানে বিভাগীয় বন বিভাগের ফরেস্ট রেঞ্জার মো. তোষাররফ হোসেনের সঙ্গে ছিলেন ফরেস্টার দীলিপ কুমার দাস, বন প্রহরী আবুল কালাম আজাদ, এম এ মান্নান, বাগানমালী মো. শাহআলম ও মো. জাহাংগীর আলম।