ঢাকা ১২:৫০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুমিল্লায় নিখোঁজের ৭দিন পর প্রবাসীর শিশুপুত্রের লাশ উদ্ধার

কুমিল্লা প্রতিনিধি:

কুমিল্লার লালমাই উপজেলার বেলঘর উত্তর ইউনিয়নের দক্ষিণ পালপাড়া গ্রামের একটি পুকুর থেকে এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে।

তার নাম আবু সুফিয়ান সানি (৬)। সে ওই গ্রামের সৌদি প্রবাসী জুয়েল রানার ছেলে। সে পালপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক-প্রাথমিকের শিক্ষার্থী ছিল।

নিখোঁজের ছয় দিন পর শনিবার রাত ৯টায় বাড়ির পাশের পুকুর থেকে সানির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। রবিবার দুপুরে নিহতের ময়নাতদন্ত হয়েছে এবং রাতে এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে।

পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালের ৮ মার্চ দক্ষিণ পালপাড়া গ্রামের আবদুল গনির ছেলে জুয়েল রানার সঙ্গে প্রতিবেশী মোস্তফা কামালের মেয়ে মাহমুদা আক্তার খুকির বিয়ে হয়। তাদের একমাত্র ছেলে আবু সুফিয়ান সানি। ২০১৫ সালের দিকে জুয়েল রানা সৌদি আরবে চলে যান। ২০১৮ সালের ৯ জুলাই জুয়েল রানাকে তালাক দেন তার স্ত্রী মাহমুদা আক্তার। কিছুদিন পর মাহমুদার অন্যত্র বিয়ে হয়। এ সময় আবু সুফিয়ানকে তার দাদা আবদুল গনির নিকট দেওয়া হয়। এসবের জেরে দুই পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছিল।

এদিকে গত ৫ জানুয়ারি (রবিবার) দুপুর থেকে শিশু আবু সুফিয়ানকে পাওয়া যাচ্ছিল না। এ ব্যাপারে শিশুর দাদা আবদুল গনি লালমাই থানায় তার নাতি নিখোঁজের বিষয়ে জিডি করেন। গত শনিবার সন্ধ্যায় পালপাড়া গ্রামের একটি পুকুরে শিশু আবু সুফিয়ানের লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়।

রাত ৯টার দিকে সদর দক্ষিণ সার্কেলের সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার প্রশান্ত পাল ও লালমাই থানার ওসি মোহাম্মদ আইয়ুব এবং পিবিআই ও সিআইডি কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

লালমাই থানার ওসি মোহাম্মদ আইয়ুব জানান, ‘লাশের দুটি পা পুকুরে থাকা নেটের সঙ্গে আটকানো ছিল। তার শরীরে পচন ধরেছে। রবিবার কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে লাশের ময়নাতদন্ত হয়েছে, রিপোর্ট পাওয়ার পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। ঘটনার রহস্য উদঘাটনে থানা পুলিশের পাশাপাশি পিবিআই ও সিআইডি কাজ করছে।’

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

কুমিল্লায় নিখোঁজের ৭দিন পর প্রবাসীর শিশুপুত্রের লাশ উদ্ধার

আপডেট সময় ০৪:০১:২০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ জানুয়ারী ২০২০

কুমিল্লা প্রতিনিধি:

কুমিল্লার লালমাই উপজেলার বেলঘর উত্তর ইউনিয়নের দক্ষিণ পালপাড়া গ্রামের একটি পুকুর থেকে এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে।

তার নাম আবু সুফিয়ান সানি (৬)। সে ওই গ্রামের সৌদি প্রবাসী জুয়েল রানার ছেলে। সে পালপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক-প্রাথমিকের শিক্ষার্থী ছিল।

নিখোঁজের ছয় দিন পর শনিবার রাত ৯টায় বাড়ির পাশের পুকুর থেকে সানির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। রবিবার দুপুরে নিহতের ময়নাতদন্ত হয়েছে এবং রাতে এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে।

পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালের ৮ মার্চ দক্ষিণ পালপাড়া গ্রামের আবদুল গনির ছেলে জুয়েল রানার সঙ্গে প্রতিবেশী মোস্তফা কামালের মেয়ে মাহমুদা আক্তার খুকির বিয়ে হয়। তাদের একমাত্র ছেলে আবু সুফিয়ান সানি। ২০১৫ সালের দিকে জুয়েল রানা সৌদি আরবে চলে যান। ২০১৮ সালের ৯ জুলাই জুয়েল রানাকে তালাক দেন তার স্ত্রী মাহমুদা আক্তার। কিছুদিন পর মাহমুদার অন্যত্র বিয়ে হয়। এ সময় আবু সুফিয়ানকে তার দাদা আবদুল গনির নিকট দেওয়া হয়। এসবের জেরে দুই পরিবারের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছিল।

এদিকে গত ৫ জানুয়ারি (রবিবার) দুপুর থেকে শিশু আবু সুফিয়ানকে পাওয়া যাচ্ছিল না। এ ব্যাপারে শিশুর দাদা আবদুল গনি লালমাই থানায় তার নাতি নিখোঁজের বিষয়ে জিডি করেন। গত শনিবার সন্ধ্যায় পালপাড়া গ্রামের একটি পুকুরে শিশু আবু সুফিয়ানের লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়।

রাত ৯টার দিকে সদর দক্ষিণ সার্কেলের সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার প্রশান্ত পাল ও লালমাই থানার ওসি মোহাম্মদ আইয়ুব এবং পিবিআই ও সিআইডি কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

লালমাই থানার ওসি মোহাম্মদ আইয়ুব জানান, ‘লাশের দুটি পা পুকুরে থাকা নেটের সঙ্গে আটকানো ছিল। তার শরীরে পচন ধরেছে। রবিবার কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে লাশের ময়নাতদন্ত হয়েছে, রিপোর্ট পাওয়ার পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। ঘটনার রহস্য উদঘাটনে থানা পুলিশের পাশাপাশি পিবিআই ও সিআইডি কাজ করছে।’