ঢাকা ০৮:৫৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুমিল্লায় প্রযুক্তি ব্যবহারে লাশের পরিচয় শনাক্ত করেছে পিবিআই

কুমিল্লা প্রতিনিধি:

কুমিল্লায় আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে অজ্ঞাতনামা এক যুবকের (৩০) লাশের পরিচয় শনাক্ত করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কুমিল্লা। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ওই যুবকের পরিচয় শনাক্ত করা হয়। এরপর বিকালে মরদেহ তার স্বজনদের নিকট হস্তান্তর করা হয়।

ওই যুবকের নাম- মামুন মিয়া। তিনি গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী থানার রাতুইল গ্রামের মো. তাবির উদ্দিনের ছেলে। পিবিআই কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ওসমান গণি সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ওসমান গণি জানান, গতকাল বুধবার সকাল ৮টার দিকে জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার বড়ধর্মপুর গ্রামের একটি কাঁঠাল গাছের সঙ্গে গামছা দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় অজ্ঞাতনামা ওই যুবকের মরদেহ ঝুলতে দেখে স্থানীয়রা। তারপর তারা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে নিয়ে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করে। এ ব্যাপারে সদর দক্ষিণ মডেল থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করে।

এদিকে পিবিআইয়ের একটি টিম লাশের ছবি উত্তোলনসহ ভিডিও ধারণ করে এবং ফিঙ্গার প্রিণ্ট (আঙ্গুলের ছাপ) সংগ্রহ করে। পরে প্রযুক্তি ব্যবহার করে ফিঙ্গার প্রিণ্ট থেকে ওই লাশের নাম, ঠিকানা ও জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর (১৯৮৯৩৩১৩০৬০৯৯০৭৪৬) সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়।

জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর ব্যবহার করে ওই যুবকের ব্যবহৃত মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে তার ঠিকানা পাওয়া যায়। এরপর বৃহস্পতিবার তার স্বজনদের খবর দিলে তারা এসে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে বিকালে ওই যুবকের মরদেহ বুঝে নেয়।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

কুমিল্লায় প্রযুক্তি ব্যবহারে লাশের পরিচয় শনাক্ত করেছে পিবিআই

আপডেট সময় ০৫:৩৫:৪৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯

কুমিল্লা প্রতিনিধি:

কুমিল্লায় আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে অজ্ঞাতনামা এক যুবকের (৩০) লাশের পরিচয় শনাক্ত করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কুমিল্লা। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ওই যুবকের পরিচয় শনাক্ত করা হয়। এরপর বিকালে মরদেহ তার স্বজনদের নিকট হস্তান্তর করা হয়।

ওই যুবকের নাম- মামুন মিয়া। তিনি গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী থানার রাতুইল গ্রামের মো. তাবির উদ্দিনের ছেলে। পিবিআই কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ওসমান গণি সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ওসমান গণি জানান, গতকাল বুধবার সকাল ৮টার দিকে জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার বড়ধর্মপুর গ্রামের একটি কাঁঠাল গাছের সঙ্গে গামছা দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় অজ্ঞাতনামা ওই যুবকের মরদেহ ঝুলতে দেখে স্থানীয়রা। তারপর তারা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে নিয়ে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করে। এ ব্যাপারে সদর দক্ষিণ মডেল থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করে।

এদিকে পিবিআইয়ের একটি টিম লাশের ছবি উত্তোলনসহ ভিডিও ধারণ করে এবং ফিঙ্গার প্রিণ্ট (আঙ্গুলের ছাপ) সংগ্রহ করে। পরে প্রযুক্তি ব্যবহার করে ফিঙ্গার প্রিণ্ট থেকে ওই লাশের নাম, ঠিকানা ও জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর (১৯৮৯৩৩১৩০৬০৯৯০৭৪৬) সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়।

জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর ব্যবহার করে ওই যুবকের ব্যবহৃত মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে তার ঠিকানা পাওয়া যায়। এরপর বৃহস্পতিবার তার স্বজনদের খবর দিলে তারা এসে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে বিকালে ওই যুবকের মরদেহ বুঝে নেয়।