ঢাকা ০৮:০২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খালেদা জিয়াকে জীবিত ফেরত পাবো কিনা সন্দেহ : সেলিমা ইসলাম

জাতীয় ডেস্কঃ

কারাবন্দি অবস্থায় গুরুতর অসুস্থ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া জীবিত অবস্থায় মুক্তি পাবেন কি-না-এমন গভীর শঙ্কা প্রকাশ করে তার মেঝ বোন সেলিমা ইসলাম মানবিক বিবেচনায় সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর মুক্তি দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি বিনীত আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, মানবিক কারণে এবং শরীরের অবস্থা বিবেচনা নিয়ে তাকে মুক্তি দেওয়া উচিত। এখন তার শরীরের যে অবস্থা, এরপর তাকে জীবিত অবস্থায় এই হাসপাতাল থেকে নিয়ে যেতে পারবো কিনা, সন্দেহ। আমরা তাকে নিয়ে আশংকা বোধ করছি।

শনিবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালের প্রিজনসেলে চিকিৎসাধীন বেগম জিয়ার সঙ্গে পরিবারে ৫ সদস্য নিয়ে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের সামনে এসব কথা বলেন সেলিমা।

সেলিমা ইসলাম বলেন, খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবস্থা আগের মতোই খারাপ। কোন কিছুর উন্নতি হয়নি। শ্বাস কষ্টের কারণে উনি নিঃশ্বাস নিতে পারছেন না। আগের মতোই খালেদা জিয়ার সমস্ত শরীরে প্রচণ্ড ব্যথা। তার বাম হাত তো সম্পূর্ণ বেঁকে গেছে। এখন ডান হাতটাও বেঁকে যাচ্ছে। তিনি সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারছেন না। খেতেও পারছেন না। খেলে বমি হয়ে যাচ্ছে। তার শরীর খুবই খারাপ। কালকে (শুক্রবার) রাতে তার পিঠে প্রচণ্ড ব্যথা হচ্ছিল, শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল, শ্বাস নিতে পারছিল না। তার যা শরীরের অবস্থা, মানবিক কারণে তো তার মুক্তি দেওয়া উচিৎ। আমরা চাচ্ছি, সরকার মানবিক দিক বিবেচনা করে অন্তত উনাকে মুক্তি দিক।

খালেদা জিয়ার মামলার সর্বশেষ যে জামিন আবেদন করা হয়েছে সে বিষয়ে তিনি সবকিছু জানেন কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে সেলিম ইসলাম বলেন, উনি এসব বিষয়ে সব কিছু জানেন। আমরা মনে করি- মানবিক কারণে তাকে মুক্তি দেয়া উচিত। তার স্বাস্থ্যের অবস্থা খুবই খারাপ। এতোকিছুর পরেও তাকে জীবিত অবস্থায় হাসপাতাল থেকে নিয়ে যেতে পারবো কি-না সেটা নিয়ে আমরা সন্দিহান। আমরা তো বলছি সরকার অন্তত মানবিক দিকটা বিবেচনা করে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিক।

এর আগে বিকেল ৩টার দিকে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত করতে যান তার পরিবারের সদস্যরা। এ সময় তার মেঝ বোন সেলিম ইসলাম ছাড়াও আরও ছিলেন ছোট ভাই শামীম এস্কান্দার, ভাইয়ের স্ত্রী কানিজ ফাতেমা, ভাতিজা অভিক এস্কান্দার এবং ভাগ্নি সামিয়া এস্কান্দার।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

খালেদা জিয়াকে জীবিত ফেরত পাবো কিনা সন্দেহ : সেলিমা ইসলাম

আপডেট সময় ০৬:৫৯:১৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ৮ মার্চ ২০২০

জাতীয় ডেস্কঃ

কারাবন্দি অবস্থায় গুরুতর অসুস্থ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া জীবিত অবস্থায় মুক্তি পাবেন কি-না-এমন গভীর শঙ্কা প্রকাশ করে তার মেঝ বোন সেলিমা ইসলাম মানবিক বিবেচনায় সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর মুক্তি দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি বিনীত আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, মানবিক কারণে এবং শরীরের অবস্থা বিবেচনা নিয়ে তাকে মুক্তি দেওয়া উচিত। এখন তার শরীরের যে অবস্থা, এরপর তাকে জীবিত অবস্থায় এই হাসপাতাল থেকে নিয়ে যেতে পারবো কিনা, সন্দেহ। আমরা তাকে নিয়ে আশংকা বোধ করছি।

শনিবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালের প্রিজনসেলে চিকিৎসাধীন বেগম জিয়ার সঙ্গে পরিবারে ৫ সদস্য নিয়ে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের সামনে এসব কথা বলেন সেলিমা।

সেলিমা ইসলাম বলেন, খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবস্থা আগের মতোই খারাপ। কোন কিছুর উন্নতি হয়নি। শ্বাস কষ্টের কারণে উনি নিঃশ্বাস নিতে পারছেন না। আগের মতোই খালেদা জিয়ার সমস্ত শরীরে প্রচণ্ড ব্যথা। তার বাম হাত তো সম্পূর্ণ বেঁকে গেছে। এখন ডান হাতটাও বেঁকে যাচ্ছে। তিনি সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারছেন না। খেতেও পারছেন না। খেলে বমি হয়ে যাচ্ছে। তার শরীর খুবই খারাপ। কালকে (শুক্রবার) রাতে তার পিঠে প্রচণ্ড ব্যথা হচ্ছিল, শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল, শ্বাস নিতে পারছিল না। তার যা শরীরের অবস্থা, মানবিক কারণে তো তার মুক্তি দেওয়া উচিৎ। আমরা চাচ্ছি, সরকার মানবিক দিক বিবেচনা করে অন্তত উনাকে মুক্তি দিক।

খালেদা জিয়ার মামলার সর্বশেষ যে জামিন আবেদন করা হয়েছে সে বিষয়ে তিনি সবকিছু জানেন কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে সেলিম ইসলাম বলেন, উনি এসব বিষয়ে সব কিছু জানেন। আমরা মনে করি- মানবিক কারণে তাকে মুক্তি দেয়া উচিত। তার স্বাস্থ্যের অবস্থা খুবই খারাপ। এতোকিছুর পরেও তাকে জীবিত অবস্থায় হাসপাতাল থেকে নিয়ে যেতে পারবো কি-না সেটা নিয়ে আমরা সন্দিহান। আমরা তো বলছি সরকার অন্তত মানবিক দিকটা বিবেচনা করে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিক।

এর আগে বিকেল ৩টার দিকে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত করতে যান তার পরিবারের সদস্যরা। এ সময় তার মেঝ বোন সেলিম ইসলাম ছাড়াও আরও ছিলেন ছোট ভাই শামীম এস্কান্দার, ভাইয়ের স্ত্রী কানিজ ফাতেমা, ভাতিজা অভিক এস্কান্দার এবং ভাগ্নি সামিয়া এস্কান্দার।