ঢাকা ০১:৫৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘খালেদা-তারেক লন্ডনে বসে কি ষড়যন্ত্র করছেন তদন্ত হওয়া দরকার’

জাতীয় ডেস্কঃ
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তার ছেলে তারেক রহমান লন্ডনে বসে কি ষড়যন্ত্র করছেন তার তদন্ত হওয়া প্রয়োজন। তদন্তে সহযোগিতার জন্য স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড, ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থা এমআই সিক্সের সাহায্য চাই।’
গতকাল মঙ্গলবার বিকালে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সহযোগী সংগঠনের সঙ্গে যৌথ সভা শেষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, মা-ছেলে লন্ডনে বসে শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করছেন এবং সরকার হটানোর চক্রান্তের জাল বুনছেন।
প্রধান বিচারপতিকে নিয়ে বিএনপি নেতাদের দেয়া বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘প্রধান বিচারপতির বিষয়টি আইনমন্ত্রী সরকারের অবস্থান পরিস্কার করেছেন। বিষয়টি নিয়ে বারবার কথা বলার প্রয়োজন নেই। শারীরিক অসুস্থতা একটা স্বাভাবিক ব্যাপার। আমাদের সংবিধানের কারো অসুস্থতায় কী ব্যবস্থা নিতে হবে সেই বিষয়টি ৯৭ ধারায় পথরেখা তৈরি করে দিয়েছে। এটা আইনগত বিষয়।’ ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি নেত্রী কী কারণে এতদিন বিদেশে আছেন?   তিনি তো অসুস্থতার কথা বলেছিলেন। তিন মাস পার হলেও এখনো তিনি এলেন না।’
মন্ত্রী বলেন, ‘রোহিঙ্গা সংকটে আজকে সারা দুনিয়ায় আলোড়ন, সেই আলোড়ন বিএনপির চেয়ারপারসনের মধ্যে আমরা পেলাম না। সংকটের শুরু থেকে আজ পর্যন্ত আমাদের দলসহ আমি নিজেই শেখ হাসিনার নির্দেশে রোহিঙ্গাদের মাঝে পড়ে আছি। আমি সেখানে ২০ দিন ছিলাম। আর মির্জা ফখরুল সাহেব গেলেন মাত্র একদিন। তিনি বলেন, ‘নেতিবাচক রাজনীতি করতে করতে বিএনপি বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছে। জাতিসংঘের অধিবেশনে রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর দেয়া পাঁচ দফা প্রস্তাব সারা দুনিয়া সমাদৃত ও প্রশংসিত হয়েছে। এ কারণে বিশ্ব জনমতের চাপে মিয়ানমারের একজন মন্ত্রী বাংলাদেশে এসেছেন। আমরা তার নরম সুর লক্ষ্য করেছি। রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের অবস্থানগত পরিবর্তন শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বের পরিচয়।
বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ফারুক খান, ড. আব্দুর রাজ্জাক, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য ডা. দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক প্রমুখ।
কক্সবাজার প্রতিনিধি জানান, ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পের কারণে আশপাশে যেসব বাংলাদেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তাদের ক্ষতি পুষিয়ে দেয়ার পরিকল্পনা করছে সরকার। এছাড়া যারা শিক্ষিত তাদের চাকরির ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেয়া হবে।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

‘খালেদা-তারেক লন্ডনে বসে কি ষড়যন্ত্র করছেন তদন্ত হওয়া দরকার’

আপডেট সময় ০১:৫১:৩৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ অক্টোবর ২০১৭
জাতীয় ডেস্কঃ
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তার ছেলে তারেক রহমান লন্ডনে বসে কি ষড়যন্ত্র করছেন তার তদন্ত হওয়া প্রয়োজন। তদন্তে সহযোগিতার জন্য স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড, ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থা এমআই সিক্সের সাহায্য চাই।’
গতকাল মঙ্গলবার বিকালে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সহযোগী সংগঠনের সঙ্গে যৌথ সভা শেষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, মা-ছেলে লন্ডনে বসে শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করছেন এবং সরকার হটানোর চক্রান্তের জাল বুনছেন।
প্রধান বিচারপতিকে নিয়ে বিএনপি নেতাদের দেয়া বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘প্রধান বিচারপতির বিষয়টি আইনমন্ত্রী সরকারের অবস্থান পরিস্কার করেছেন। বিষয়টি নিয়ে বারবার কথা বলার প্রয়োজন নেই। শারীরিক অসুস্থতা একটা স্বাভাবিক ব্যাপার। আমাদের সংবিধানের কারো অসুস্থতায় কী ব্যবস্থা নিতে হবে সেই বিষয়টি ৯৭ ধারায় পথরেখা তৈরি করে দিয়েছে। এটা আইনগত বিষয়।’ ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি নেত্রী কী কারণে এতদিন বিদেশে আছেন?   তিনি তো অসুস্থতার কথা বলেছিলেন। তিন মাস পার হলেও এখনো তিনি এলেন না।’
মন্ত্রী বলেন, ‘রোহিঙ্গা সংকটে আজকে সারা দুনিয়ায় আলোড়ন, সেই আলোড়ন বিএনপির চেয়ারপারসনের মধ্যে আমরা পেলাম না। সংকটের শুরু থেকে আজ পর্যন্ত আমাদের দলসহ আমি নিজেই শেখ হাসিনার নির্দেশে রোহিঙ্গাদের মাঝে পড়ে আছি। আমি সেখানে ২০ দিন ছিলাম। আর মির্জা ফখরুল সাহেব গেলেন মাত্র একদিন। তিনি বলেন, ‘নেতিবাচক রাজনীতি করতে করতে বিএনপি বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছে। জাতিসংঘের অধিবেশনে রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর দেয়া পাঁচ দফা প্রস্তাব সারা দুনিয়া সমাদৃত ও প্রশংসিত হয়েছে। এ কারণে বিশ্ব জনমতের চাপে মিয়ানমারের একজন মন্ত্রী বাংলাদেশে এসেছেন। আমরা তার নরম সুর লক্ষ্য করেছি। রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের অবস্থানগত পরিবর্তন শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বের পরিচয়।
বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ফারুক খান, ড. আব্দুর রাজ্জাক, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য ডা. দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক প্রমুখ।
কক্সবাজার প্রতিনিধি জানান, ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পের কারণে আশপাশে যেসব বাংলাদেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তাদের ক্ষতি পুষিয়ে দেয়ার পরিকল্পনা করছে সরকার। এছাড়া যারা শিক্ষিত তাদের চাকরির ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেয়া হবে।