ঢাকা ০৬:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চান্দিনায় সিজরিয়নের পর প্রসূতির মৃত্যু; নবজাতক সহ আহত ১০; আটক ১

মো: নাজিম উদ্দিন ভূইয়া, চান্দিনা প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা সদরের জননী মেডিকেল সেন্টার ও হাসপাতালে সিজরিয়নের পর এক প্রসূতির মৃত্যু হয়েছে। এসময় নবজাতকের মাথায় কাচির আঘাতে ক্ষতাক্ত হয়। নিহত পৃসূতির নাম সুমি আক্তার (৩৫)।

সে পার্শ্ববর্তী নবিয়াবাদ গ্রামের মোস্তফা কামাল এর মেয়ে এবং চান্দিনার কেরনখাল ইউনিয়নের বাগমারা গ্রামের কবির হোসেন এর স্ত্রী। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) দুপুরে ওই গৃহবধূর মৃত্যু হয়। ওই ঘটনায় হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. মোশারফ হোসেনকে আটক করেছে চান্দিনা থানা পুলিশ।

নিহতের ভাশুর আনোয়ার হোসেন অভিযোগ করেন, বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দিয়ে অপারেশন না করায় তার ভাইয়ের বৌ নিহত হয়েছে। তিনি অভিযোগ করেন, নবজাতক ছেলে সন্তানটির মাথাও কেটে গেছে।

যানাযায়, ডা. চন্দনা সাহা নামের একজন সার্জন এবং ডা. জয়নাল আবেদীন নামের একজন অবস্ এর ডাক্তার ওই প্রসূতির সিজরিয়নে অংশ নেয়।

এদিকে সিজরিয়নের পর প্রসূতির অবস্থার অবনতি হলে সেই খবর পুরো হাসপাতালে ছড়িয়ে পরে। চিকিৎসকরা এসময় প্রসূতিকে কুমিল্লায় রেফার করেন। পরে তাকে এ্যাম্বুলেন্সে তোলার খবরে উৎসুক জনতা হাসপাতাল ভবন হারুন ভূইয়া মার্কেটের দ্বিতীয় তলার ছাদে অবস্থান নেয়। এসময় ছাদের একাংশ ভেঙ্গে উৎসুক জনতাসহ নিচে পড়ে যায়। এতে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়।

পারিবারিক সূত্রে জানাযায়, সুমি আক্তারকে রেফার করার পর তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কুমিল্লায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে লাশ নিয়ে পুনরায় ওই হাসপাতালের সামনে আসলে স্থানীয় উত্তেজিত জনতা ও নিহতের স্বজনরা হাসপাতাল ঘেরাও করে। খবর পেয়ে চান্দিনা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। এসময় হাসপাতালের চেয়ারম্যানকে আটক করে পুলিশ।
খোঁজ নিয়ে জানাযায়, ২জন বিশেষজ্ঞ গাইনী এন্ড অবস্ ডাক্তার ও ১জন সহায়ক এমবিবিএস ডাক্তার নিয়ে সিজরিয়নের বোর্ড গঠন করার কথা রয়েছে। কিন্তু অভিযোগ রয়েছে এসব কোন নিয়ম না মেনেই সিজরিয়ন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নাছিমা আক্তার জানান, আমরা চান্দিনার প্রাইভেট হাসপাতালগুলোকে অপারেশন এর ডাক্তার বা অপারেশন সংখ্যা সহ বিভিন্ন বিষয়ে তথ্য চেয়ে চিঠি দিয়েছি। কিন্তু তারা আমাদেরকে সহায়তা করছে না। অনিয়ম করে অপারেশন করে থাকলে তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

এ ব্যাপারে কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন ডা. মুজিব রাহমান বলেন, ডা. চন্দনা সাহা বিশেষজ্ঞ কিনা এ সম্পর্কে আমি সন্দিহান। ওই ঘটনা সম্পর্কে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ট্যাগস

চান্দিনায় সিজরিয়নের পর প্রসূতির মৃত্যু; নবজাতক সহ আহত ১০; আটক ১

আপডেট সময় ০৯:৩৩:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন ২০১৬
মো: নাজিম উদ্দিন ভূইয়া, চান্দিনা প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা সদরের জননী মেডিকেল সেন্টার ও হাসপাতালে সিজরিয়নের পর এক প্রসূতির মৃত্যু হয়েছে। এসময় নবজাতকের মাথায় কাচির আঘাতে ক্ষতাক্ত হয়। নিহত পৃসূতির নাম সুমি আক্তার (৩৫)।

সে পার্শ্ববর্তী নবিয়াবাদ গ্রামের মোস্তফা কামাল এর মেয়ে এবং চান্দিনার কেরনখাল ইউনিয়নের বাগমারা গ্রামের কবির হোসেন এর স্ত্রী। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) দুপুরে ওই গৃহবধূর মৃত্যু হয়। ওই ঘটনায় হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. মোশারফ হোসেনকে আটক করেছে চান্দিনা থানা পুলিশ।

নিহতের ভাশুর আনোয়ার হোসেন অভিযোগ করেন, বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দিয়ে অপারেশন না করায় তার ভাইয়ের বৌ নিহত হয়েছে। তিনি অভিযোগ করেন, নবজাতক ছেলে সন্তানটির মাথাও কেটে গেছে।

যানাযায়, ডা. চন্দনা সাহা নামের একজন সার্জন এবং ডা. জয়নাল আবেদীন নামের একজন অবস্ এর ডাক্তার ওই প্রসূতির সিজরিয়নে অংশ নেয়।

এদিকে সিজরিয়নের পর প্রসূতির অবস্থার অবনতি হলে সেই খবর পুরো হাসপাতালে ছড়িয়ে পরে। চিকিৎসকরা এসময় প্রসূতিকে কুমিল্লায় রেফার করেন। পরে তাকে এ্যাম্বুলেন্সে তোলার খবরে উৎসুক জনতা হাসপাতাল ভবন হারুন ভূইয়া মার্কেটের দ্বিতীয় তলার ছাদে অবস্থান নেয়। এসময় ছাদের একাংশ ভেঙ্গে উৎসুক জনতাসহ নিচে পড়ে যায়। এতে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়।

পারিবারিক সূত্রে জানাযায়, সুমি আক্তারকে রেফার করার পর তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কুমিল্লায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে লাশ নিয়ে পুনরায় ওই হাসপাতালের সামনে আসলে স্থানীয় উত্তেজিত জনতা ও নিহতের স্বজনরা হাসপাতাল ঘেরাও করে। খবর পেয়ে চান্দিনা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। এসময় হাসপাতালের চেয়ারম্যানকে আটক করে পুলিশ।
খোঁজ নিয়ে জানাযায়, ২জন বিশেষজ্ঞ গাইনী এন্ড অবস্ ডাক্তার ও ১জন সহায়ক এমবিবিএস ডাক্তার নিয়ে সিজরিয়নের বোর্ড গঠন করার কথা রয়েছে। কিন্তু অভিযোগ রয়েছে এসব কোন নিয়ম না মেনেই সিজরিয়ন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নাছিমা আক্তার জানান, আমরা চান্দিনার প্রাইভেট হাসপাতালগুলোকে অপারেশন এর ডাক্তার বা অপারেশন সংখ্যা সহ বিভিন্ন বিষয়ে তথ্য চেয়ে চিঠি দিয়েছি। কিন্তু তারা আমাদেরকে সহায়তা করছে না। অনিয়ম করে অপারেশন করে থাকলে তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

এ ব্যাপারে কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন ডা. মুজিব রাহমান বলেন, ডা. চন্দনা সাহা বিশেষজ্ঞ কিনা এ সম্পর্কে আমি সন্দিহান। ওই ঘটনা সম্পর্কে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।