ঢাকা ০৬:১৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চৌদ্দগ্রামে প্রবাসীর স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

কুমিল্লা প্রতিনিধি:

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে এক প্রবাসীর স্ত্রী ও এক সন্তানের জননীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। তার নাম তাহমিনা আক্তার (২২)। তিনি উপজেলার চিওড়া ইউনিয়নের বেরলা গ্রামের সিঙ্গাপুর প্রবাসী সোহরাব উদ্দিনের স্ত্রী এবং পার্শ্ববর্তী তেলিগ্রামের শাহজাহানের মেয়ে। লাশটি উদ্ধার শেষে মঙ্গলবার দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, প্রবাসী সোহরাব উদ্দিন সম্প্রতি দেশে আসে। পারিবারিক বিষয় নিয়ে সোমবার দুপুরে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে বাকবিতণ্ডার ঘটনা ঘটে। এরপর গৃহবধূ তাহমিনা আক্তারের রহস্যজনক মৃত্যু হয়।

নিহত তাহমিনার পিতা শাহজাহান ও মাতা মনোয়ারা বেগম মঙ্গলবার সাংবাদিকদের নিকট অভিযোগ করেন, ‘তাহমিনা আক্তারকে স্বামী সোহরাব উদ্দিন হত্যা শেষে মুখে বিষ ঢেলে দেয়। এরপর চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে লাশ ফেলে রেখে সোহরাব উদ্দিনসহ অন্যরা হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায়।’

এ ব্যাপারে চৌদ্দগ্রাম থানার এএসআই আবদুল মজিদ জানান, ‘খবর পেয়ে লাশটি উদ্ধার শেষে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলেই ঘটনাটি হত্যা না আত্মহত্যা বলা যাবে।’

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

চৌদ্দগ্রামে প্রবাসীর স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

আপডেট সময় ০২:২৯:৪১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ জানুয়ারী ২০২০

কুমিল্লা প্রতিনিধি:

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে এক প্রবাসীর স্ত্রী ও এক সন্তানের জননীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। তার নাম তাহমিনা আক্তার (২২)। তিনি উপজেলার চিওড়া ইউনিয়নের বেরলা গ্রামের সিঙ্গাপুর প্রবাসী সোহরাব উদ্দিনের স্ত্রী এবং পার্শ্ববর্তী তেলিগ্রামের শাহজাহানের মেয়ে। লাশটি উদ্ধার শেষে মঙ্গলবার দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, প্রবাসী সোহরাব উদ্দিন সম্প্রতি দেশে আসে। পারিবারিক বিষয় নিয়ে সোমবার দুপুরে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে বাকবিতণ্ডার ঘটনা ঘটে। এরপর গৃহবধূ তাহমিনা আক্তারের রহস্যজনক মৃত্যু হয়।

নিহত তাহমিনার পিতা শাহজাহান ও মাতা মনোয়ারা বেগম মঙ্গলবার সাংবাদিকদের নিকট অভিযোগ করেন, ‘তাহমিনা আক্তারকে স্বামী সোহরাব উদ্দিন হত্যা শেষে মুখে বিষ ঢেলে দেয়। এরপর চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে লাশ ফেলে রেখে সোহরাব উদ্দিনসহ অন্যরা হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায়।’

এ ব্যাপারে চৌদ্দগ্রাম থানার এএসআই আবদুল মজিদ জানান, ‘খবর পেয়ে লাশটি উদ্ধার শেষে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলেই ঘটনাটি হত্যা না আত্মহত্যা বলা যাবে।’