ঢাকা ১০:৪৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জামিন পেলেন বিএনপি নেতা হাফিজ উদ্দিন

জাতীয় ডেস্ক:

বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদকে (বীরবিক্রম) দশ হাজার টাকা মুচলেকায় জামিন দিয়েছেন ঢাকা মহানগর হাকিম আতিকুল ইসলাম। আগামী ১১ নভেম্বর এই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন পর্যন্ত তিনি জামিনে থাকবেন।

আজ রবিবার মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তার করা রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর করে এ আদেশ দেন আদালত।শুনানিতে আদালতে হাজির করা হয় এই বিএনপি নেতাকে।

এর আগে দুপুরে, মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা পল্লবী থানায় এসআই নূরে আলম ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

এ সময় আসামি পক্ষের আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন। অপদিকে রাষ্ট্রপক্ষে সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর আজাদ রহমান এ জামিনের বিরোধীতা করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিন মঞ্জুরের আদেশ দেন। শনিবার রাতে সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফেরার পর রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মামলার এজাহারে থেকে জানা যায়, শনিবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব জানতে পারে যে, গত ২ মে বেলা ১১টা ৫৭ মিনিটের দিকে কর্ণেল (অব.) মুহাম্মদ ইসহাক মিয়ান (৬৩) তার মিরপুরের বাসা থেকে তার ব্যক্তিগত ইমেইল ব্যবহার করে একটি খুদে বার্তা পাঠান। পরে কর্ণেল (অব.) মুহাম্মদ ইসহাক মিয়ানকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, এই কাজে মেজর হাফিজ উদ্দিন এবং ব্যারিস্টার এম সরোয়ার হোসেনসহ অনেকেই জড়িত রয়েছেন। বিষয়টি রাষ্ট্রের সার্বোভৌমত্বের জন্য হুমকি স্বরূপ বলে জানায় পুলিশ।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত ১১তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রশাসন, গোয়েন্দা সংস্থা, র‌্যাব, পুলিশসহ অন্যান্য সরকারী সংস্থার ভূমিকা সম্পর্কে মিথ্যা, বিভ্রান্তিকর, বানোয়াট ও উদ্দেশ্যমূলক তথ্য ইমেইলে তিনি পাঠান। তার ওই কাজে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করে দেশের অভ্যন্তরীণ অস্থিরতা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে আইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটনানোর অপচেষ্টা করা হয়েছে। আসামির এমন কার্যকলাপ সামরিক বাহিনীতে অস্থিরতা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করার হীনপ্রচেষ্টা।

ডিএমপির উপ-কমিশনার মুস্তাক আহমেদ জানান, সরকারি সংস্থার ভূমিকা সম্পর্কে মেইলে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর তথ্য আদান প্রদানের অভিযোগে শনিবার দুপুরে তাদের নামে মামলা হয়। এরপর রাত সাড়ে ৮টার দিকে মেজর হাফিজ উদ্দিনকে গ্রেফতার করে পল্লবী থানায় হস্তান্তর করা হয়।

 

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

জামিন পেলেন বিএনপি নেতা হাফিজ উদ্দিন

আপডেট সময় ০৫:৪৮:১৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৩ অক্টোবর ২০১৯
জাতীয় ডেস্ক:

বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদকে (বীরবিক্রম) দশ হাজার টাকা মুচলেকায় জামিন দিয়েছেন ঢাকা মহানগর হাকিম আতিকুল ইসলাম। আগামী ১১ নভেম্বর এই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন পর্যন্ত তিনি জামিনে থাকবেন।

আজ রবিবার মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তার করা রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর করে এ আদেশ দেন আদালত।শুনানিতে আদালতে হাজির করা হয় এই বিএনপি নেতাকে।

এর আগে দুপুরে, মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা পল্লবী থানায় এসআই নূরে আলম ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

এ সময় আসামি পক্ষের আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন। অপদিকে রাষ্ট্রপক্ষে সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর আজাদ রহমান এ জামিনের বিরোধীতা করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিন মঞ্জুরের আদেশ দেন। শনিবার রাতে সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফেরার পর রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মামলার এজাহারে থেকে জানা যায়, শনিবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব জানতে পারে যে, গত ২ মে বেলা ১১টা ৫৭ মিনিটের দিকে কর্ণেল (অব.) মুহাম্মদ ইসহাক মিয়ান (৬৩) তার মিরপুরের বাসা থেকে তার ব্যক্তিগত ইমেইল ব্যবহার করে একটি খুদে বার্তা পাঠান। পরে কর্ণেল (অব.) মুহাম্মদ ইসহাক মিয়ানকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, এই কাজে মেজর হাফিজ উদ্দিন এবং ব্যারিস্টার এম সরোয়ার হোসেনসহ অনেকেই জড়িত রয়েছেন। বিষয়টি রাষ্ট্রের সার্বোভৌমত্বের জন্য হুমকি স্বরূপ বলে জানায় পুলিশ।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত ১১তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রশাসন, গোয়েন্দা সংস্থা, র‌্যাব, পুলিশসহ অন্যান্য সরকারী সংস্থার ভূমিকা সম্পর্কে মিথ্যা, বিভ্রান্তিকর, বানোয়াট ও উদ্দেশ্যমূলক তথ্য ইমেইলে তিনি পাঠান। তার ওই কাজে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করে দেশের অভ্যন্তরীণ অস্থিরতা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে আইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটনানোর অপচেষ্টা করা হয়েছে। আসামির এমন কার্যকলাপ সামরিক বাহিনীতে অস্থিরতা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করার হীনপ্রচেষ্টা।

ডিএমপির উপ-কমিশনার মুস্তাক আহমেদ জানান, সরকারি সংস্থার ভূমিকা সম্পর্কে মেইলে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর তথ্য আদান প্রদানের অভিযোগে শনিবার দুপুরে তাদের নামে মামলা হয়। এরপর রাত সাড়ে ৮টার দিকে মেজর হাফিজ উদ্দিনকে গ্রেফতার করে পল্লবী থানায় হস্তান্তর করা হয়।