ঢাকা ০১:২৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তনুর পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে মুরাদনগর উপজেলা প্রশাসন

মো: আরিফুল ইসলাম, স্টাফ রির্পোটার, মুরাদনগরঃ

মুরাদনগর বার্তা টোয়েন্টিফোর ডটকম, কুমিল্লা সেনানিবাসের ভেতরে হত্যা করা কলেজছাত্রী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনুর পরিবারকে কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা প্রশাসন বিশহাজার টাক তার পরিবারের কাচ্ছে হস্তান্তর করেন এবং জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে পরিবারটিকে জমি প্রধানের আশ্বাস দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মনসুর উদ্দিন। তনুর মৃত্যুতে গ্রামের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। সোমবার সন্ধ্যায় মির্জাপুর বাজার মোড়ে জানাজা শেষে মির্জাপুর কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা পশ্চিম ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামে তনুর বাড়িতে শোক প্রকাশ, বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করার জন ছুটে যান মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মনসুর উদ্দিন ও সহকারি কমিষনার (ভূমি) আজগর আলী।

এ সময় জেলা প্রশাসক ও মুরাদনগর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দশ হাজার করে বিশ হাজার টাকা তনুর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। সেই সাথে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে এক খন্ড খাস জমি দেয়ার আশ্বাস দেয়া হয়। পরে উপজেলা প্রশাসন তনুর পিতাকে নিয়ে কবর জিয়ারত করেন।

উল্লেখ্য যে, সোমবার (২০ মার্চ) রাত সাড়ে ১০ টায় কুমিল্লা সেনানিবাসের ভেতরে একটি কালভাটের পাশ থেকে সোহাগীর (১৮) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তনু হত্যার পর থেকেই কুমিল্লা ও সামাজিক মিডিয়া ফেসবুকে প্রতিবাদের ঝড় উঠে ।

সোহাগী জাহান তনু (২০) হত্যার বিচারের দাবিতে বৃস্পতিবার বিকেলে কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বিষ্ণপুর বাজারে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করে গ্রামের বাড়ি মুরাদনগর উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের বিভিন্ন শ্রেণী মানুষসহ ২০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে বক্তরা বলেন, হত্যাকারীদের শনাক্ত করে দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে ৪৮ ঘণ্টা সময় বেঁধে দিয়ে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধসহ উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক অবরোধের হুমকি দেওয়া হয়।

সোহাগীর বাবা ইয়ার হোসেন জানান, তনুকে জখন পাই তখন মাথার পেছন দিকে আঘাতের চিহ্ন মুখ দিয়ে রক্ত বের হচ্ছিল। তনুর হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন ও খুনিদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

তনুর পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে মুরাদনগর উপজেলা প্রশাসন

আপডেট সময় ০২:৩৬:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ মার্চ ২০১৬

মো: আরিফুল ইসলাম, স্টাফ রির্পোটার, মুরাদনগরঃ

মুরাদনগর বার্তা টোয়েন্টিফোর ডটকম, কুমিল্লা সেনানিবাসের ভেতরে হত্যা করা কলেজছাত্রী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনুর পরিবারকে কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা প্রশাসন বিশহাজার টাক তার পরিবারের কাচ্ছে হস্তান্তর করেন এবং জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে পরিবারটিকে জমি প্রধানের আশ্বাস দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মনসুর উদ্দিন। তনুর মৃত্যুতে গ্রামের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। সোমবার সন্ধ্যায় মির্জাপুর বাজার মোড়ে জানাজা শেষে মির্জাপুর কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা পশ্চিম ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামে তনুর বাড়িতে শোক প্রকাশ, বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করার জন ছুটে যান মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মনসুর উদ্দিন ও সহকারি কমিষনার (ভূমি) আজগর আলী।

এ সময় জেলা প্রশাসক ও মুরাদনগর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দশ হাজার করে বিশ হাজার টাকা তনুর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। সেই সাথে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে এক খন্ড খাস জমি দেয়ার আশ্বাস দেয়া হয়। পরে উপজেলা প্রশাসন তনুর পিতাকে নিয়ে কবর জিয়ারত করেন।

উল্লেখ্য যে, সোমবার (২০ মার্চ) রাত সাড়ে ১০ টায় কুমিল্লা সেনানিবাসের ভেতরে একটি কালভাটের পাশ থেকে সোহাগীর (১৮) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তনু হত্যার পর থেকেই কুমিল্লা ও সামাজিক মিডিয়া ফেসবুকে প্রতিবাদের ঝড় উঠে ।

সোহাগী জাহান তনু (২০) হত্যার বিচারের দাবিতে বৃস্পতিবার বিকেলে কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বিষ্ণপুর বাজারে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করে গ্রামের বাড়ি মুরাদনগর উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের বিভিন্ন শ্রেণী মানুষসহ ২০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে বক্তরা বলেন, হত্যাকারীদের শনাক্ত করে দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে ৪৮ ঘণ্টা সময় বেঁধে দিয়ে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধসহ উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক অবরোধের হুমকি দেওয়া হয়।

সোহাগীর বাবা ইয়ার হোসেন জানান, তনুকে জখন পাই তখন মাথার পেছন দিকে আঘাতের চিহ্ন মুখ দিয়ে রক্ত বের হচ্ছিল। তনুর হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন ও খুনিদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।