ঢাকা ০৫:৫৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তিতাসে আ’লীগ-যুবলীগের সংঘর্ষ : নিহত ১, লোটপাট ও ভাংচুড়

pc tetas3 22-05-2015

মো: দেলোয়ার হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

২২ মে ২০১৫ ইং (মুরাদনগর বার্তা ডটকম):

আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কুমিল্লার তিতাস উপজেলার কলাকান্দি ইউনিয়নের হারাইকান্দি গ্রামে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বাহার গ্রুপের সঙ্গে উপজেলা যুবলীগ নেতা ইব্রাহিম গ্রুপের ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে শাহলম নামের এক আওয়ামী লীগ কর্মী নিহত হয়েছেন।

নিহত শাহলম  উপজেলার কলাকান্দি ইউনিয়নের বাসিন্দা। তিনি বাহার গ্রুপের কর্মী বলে জানা গেছে।  গত বৃহস্পতিবার রাত ৭টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত দু’গ্রুপের সংঘর্ষ চলাকালে শাহলমকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

pc tetas2 22-05-2015

ঘঠনার পর আ’লীগ নেতা কর্মীরা  কালাচানঁ কান্দী গ্রামের হারুন মিয়া, শাহ কামাল, খোকন মিয়া, হিরন মিয়া, অহিদ মিয়াসহ  কিছু সাধারন লোকের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লোটপাট চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে প্রায় ৫০ হাজার লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন করে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রাজনৈতিক আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বাহার গ্রুপের সঙ্গে ইব্রাহিম গ্রুপের গত ৪/৫ বছর ধরে সংঘর্ষ চলছে। ২০১৪ সালের ২১ নভেম্বর দুপুরে এ দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ইব্রাহিম গ্রুপের কর্মী সেন্টু মিয়াকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

তিতাস থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম জানান, শাহলম নামের একজনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে শুনেছি। পরে বিস্তারিত জানাবো।
উল্লেখ্য, চলতি বছরের ১৫ মে উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মাসুমকে পিকআপভ্যান চাপা দিয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছিল।##

 

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

তিতাসে আ’লীগ-যুবলীগের সংঘর্ষ : নিহত ১, লোটপাট ও ভাংচুড়

আপডেট সময় ০৩:২৪:১৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মে ২০১৫

pc tetas3 22-05-2015

মো: দেলোয়ার হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

২২ মে ২০১৫ ইং (মুরাদনগর বার্তা ডটকম):

আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কুমিল্লার তিতাস উপজেলার কলাকান্দি ইউনিয়নের হারাইকান্দি গ্রামে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বাহার গ্রুপের সঙ্গে উপজেলা যুবলীগ নেতা ইব্রাহিম গ্রুপের ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে শাহলম নামের এক আওয়ামী লীগ কর্মী নিহত হয়েছেন।

নিহত শাহলম  উপজেলার কলাকান্দি ইউনিয়নের বাসিন্দা। তিনি বাহার গ্রুপের কর্মী বলে জানা গেছে।  গত বৃহস্পতিবার রাত ৭টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত দু’গ্রুপের সংঘর্ষ চলাকালে শাহলমকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

pc tetas2 22-05-2015

ঘঠনার পর আ’লীগ নেতা কর্মীরা  কালাচানঁ কান্দী গ্রামের হারুন মিয়া, শাহ কামাল, খোকন মিয়া, হিরন মিয়া, অহিদ মিয়াসহ  কিছু সাধারন লোকের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লোটপাট চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে প্রায় ৫০ হাজার লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন করে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রাজনৈতিক আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বাহার গ্রুপের সঙ্গে ইব্রাহিম গ্রুপের গত ৪/৫ বছর ধরে সংঘর্ষ চলছে। ২০১৪ সালের ২১ নভেম্বর দুপুরে এ দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ইব্রাহিম গ্রুপের কর্মী সেন্টু মিয়াকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

তিতাস থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম জানান, শাহলম নামের একজনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে শুনেছি। পরে বিস্তারিত জানাবো।
উল্লেখ্য, চলতি বছরের ১৫ মে উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মাসুমকে পিকআপভ্যান চাপা দিয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছিল।##