ঢাকা ১১:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তিতাসে দিনমজুর যুবকের লাশ উদ্ধার

কবির হোসেন সওদাগর , তিতাস ( কুমিল্লা ):

কুমিল্লার তিতাসে দিনমজুর এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। সোমবার সকাল ১০টায় উপজেলার গৌরীপুর-হোমনা সড়কের শিবপুর-চান্দনাগেচর সড়কের পাশ থেকে এ লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত ব্যক্তি উপজেলার শিবপুর গ্রামের সরকার বাড়ির মোঃ ইউসুফ আলীর ছেলে মো. আলাউদ্দিন (৩৫)।

নিহতের বড় ভাই দেলোয়ার হোসেন, কবির হোসেন ও ছোট জসিম উদ্দিন জানান, আমাদের চার ভাই ও এক বোনের মধ্যে আলাউদ্দিন তৃতীয়। আমরা চারভাই পরিবার নিয়ে পৃথকভাবে বসবাস করে আসছি। আমাদের কাছে ভাইদের বা অন্য কারো সাথে কোন দ্বন্ধ নেই। আমার ভাই কিভাবে মারা গেছে বলতে পারছি না। এলাকার কোন স্থানে বাউল গান বা ওরশ মাহফিল হলে সেখানে সে যেত।

স্ত্রী রত্মা আক্তার জানান, আমার স্বামী দিনমজুর করে যায় পায় তাই দিয়েই আমাদের সংসার চলে। আমাদের পরিবারে ১ ছেলে রমজান (১৫), দুই কন্যা আফরিন (১০) ও তাসলিয়া আক্তার (৭) রয়েছে। তিনি কেঁদে কেঁদে বলেন, রবিবার রাত ৭টার দিকে সে বাড়ি থেকে বাহির হয়েছে; আর ফিরে আসেনি। আমি এখন কি করবো; কোথায় যাবো? আমার স্বামীকে কে মেরে ফেললো?

তিতাস থানার ওসি (তদন্ত) মো. শহিদুল ইসলাম জানান, মুরাদনগর-তিতাস সার্কেল অফিসার জাহাঙ্গীর আলম স্যারসহ আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহতের গায়ে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই, তবে নাক দিয়ে রক্ত বের হয়েছে। তবে প্রাথমিকভাবে জানা যায় আলাউদ্দিন প্রায়ই নেশা করতো। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে বলা যাবে এটা আত্মহত্যা নাকি হত্যাকা-।
তিতাসে দিনমজুর যুবকের লাশ উদ্ধার

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

তিতাসে দিনমজুর যুবকের লাশ উদ্ধার

আপডেট সময় ০১:৩৫:৪০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০

কবির হোসেন সওদাগর , তিতাস ( কুমিল্লা ):

কুমিল্লার তিতাসে দিনমজুর এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। সোমবার সকাল ১০টায় উপজেলার গৌরীপুর-হোমনা সড়কের শিবপুর-চান্দনাগেচর সড়কের পাশ থেকে এ লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত ব্যক্তি উপজেলার শিবপুর গ্রামের সরকার বাড়ির মোঃ ইউসুফ আলীর ছেলে মো. আলাউদ্দিন (৩৫)।

নিহতের বড় ভাই দেলোয়ার হোসেন, কবির হোসেন ও ছোট জসিম উদ্দিন জানান, আমাদের চার ভাই ও এক বোনের মধ্যে আলাউদ্দিন তৃতীয়। আমরা চারভাই পরিবার নিয়ে পৃথকভাবে বসবাস করে আসছি। আমাদের কাছে ভাইদের বা অন্য কারো সাথে কোন দ্বন্ধ নেই। আমার ভাই কিভাবে মারা গেছে বলতে পারছি না। এলাকার কোন স্থানে বাউল গান বা ওরশ মাহফিল হলে সেখানে সে যেত।

স্ত্রী রত্মা আক্তার জানান, আমার স্বামী দিনমজুর করে যায় পায় তাই দিয়েই আমাদের সংসার চলে। আমাদের পরিবারে ১ ছেলে রমজান (১৫), দুই কন্যা আফরিন (১০) ও তাসলিয়া আক্তার (৭) রয়েছে। তিনি কেঁদে কেঁদে বলেন, রবিবার রাত ৭টার দিকে সে বাড়ি থেকে বাহির হয়েছে; আর ফিরে আসেনি। আমি এখন কি করবো; কোথায় যাবো? আমার স্বামীকে কে মেরে ফেললো?

তিতাস থানার ওসি (তদন্ত) মো. শহিদুল ইসলাম জানান, মুরাদনগর-তিতাস সার্কেল অফিসার জাহাঙ্গীর আলম স্যারসহ আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহতের গায়ে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই, তবে নাক দিয়ে রক্ত বের হয়েছে। তবে প্রাথমিকভাবে জানা যায় আলাউদ্দিন প্রায়ই নেশা করতো। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে বলা যাবে এটা আত্মহত্যা নাকি হত্যাকা-।
তিতাসে দিনমজুর যুবকের লাশ উদ্ধার