ঢাকা ০৯:১৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তিতাসে নিখোঁজের ১০দিন পর যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

কবির হোসেন সওদাগর:

কুমিল্লার তিতাসে নিখোঁজ হওয়ার যুবকের লাশ ১০দিন পর উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

বুধবার দুপুরে উপজেলার বন্দরামপুর গ্রামের খোরশেদ মেম্বারের বাড়ির পাশের ডোবা থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়।

উদ্ধারকৃত লাশটি উপজেলার বন্দরামপুর গ্রামের দারোগ আলীর ছেলে মানুষিক প্রতিবন্ধি অবিবাহিত মোঃ হেলাল উদ্দিন (৩৮) এর।

নিহতের মা খুকিয়া বেগম জানান, গত ১৬ মার্চ সকাল ৭টা সময় কাউকে কিছু না বলে আমার ছেলেটা কোথায় যেন চলে যায়। আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িসহ কোথাও তাকে খোঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। গত ১৮ মার্চ ছেলেকে কোথাও না পেয়ে মা খুকিয়া বেগম তিতাস থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি নং-৬১৫) করেন। এদিকে, লাশ উদ্ধারের সময় নিহতের গায়ে শুধু শার্ট ছিল। পড়নে আর কিছু না। তবে লাশ উদ্ধারের পর স্থানীয় লোকজন ডোবার পাশের একটি ভূট্টা ক্ষেতে হেলালের ব্যবহৃত লুঙ্গি ও জুতাগুলো খোঁজে পায়। পরে বিষয়টি থানাকে অবহিত করেন।

তিতাস থানার ওসি (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে, যেহেতু হেলাল মানুষিক প্রতিবন্ধি হয়তো বা পানিতে পড়ে সে আর উঠে আসতে পারেনি। এক পর্যায়ে সে মৃত্যুবরণ করেন। লাশটি অর্ধগলিত ছিল। হেলালের হাতের একটি চিহ্নের উপর ভিত্তি করে পরিবারের লোকজন তার লাশটি শনাক্ত করেন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

তিতাসে নিখোঁজের ১০দিন পর যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

আপডেট সময় ১২:০৫:৫৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ মার্চ ২০২০

কবির হোসেন সওদাগর:

কুমিল্লার তিতাসে নিখোঁজ হওয়ার যুবকের লাশ ১০দিন পর উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

বুধবার দুপুরে উপজেলার বন্দরামপুর গ্রামের খোরশেদ মেম্বারের বাড়ির পাশের ডোবা থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়।

উদ্ধারকৃত লাশটি উপজেলার বন্দরামপুর গ্রামের দারোগ আলীর ছেলে মানুষিক প্রতিবন্ধি অবিবাহিত মোঃ হেলাল উদ্দিন (৩৮) এর।

নিহতের মা খুকিয়া বেগম জানান, গত ১৬ মার্চ সকাল ৭টা সময় কাউকে কিছু না বলে আমার ছেলেটা কোথায় যেন চলে যায়। আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িসহ কোথাও তাকে খোঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। গত ১৮ মার্চ ছেলেকে কোথাও না পেয়ে মা খুকিয়া বেগম তিতাস থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি নং-৬১৫) করেন। এদিকে, লাশ উদ্ধারের সময় নিহতের গায়ে শুধু শার্ট ছিল। পড়নে আর কিছু না। তবে লাশ উদ্ধারের পর স্থানীয় লোকজন ডোবার পাশের একটি ভূট্টা ক্ষেতে হেলালের ব্যবহৃত লুঙ্গি ও জুতাগুলো খোঁজে পায়। পরে বিষয়টি থানাকে অবহিত করেন।

তিতাস থানার ওসি (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে, যেহেতু হেলাল মানুষিক প্রতিবন্ধি হয়তো বা পানিতে পড়ে সে আর উঠে আসতে পারেনি। এক পর্যায়ে সে মৃত্যুবরণ করেন। লাশটি অর্ধগলিত ছিল। হেলালের হাতের একটি চিহ্নের উপর ভিত্তি করে পরিবারের লোকজন তার লাশটি শনাক্ত করেন।