ঢাকা ০৯:০৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তিতাসে ব্যবসায়ীদের ধর্মঘট, বিক্ষোভ

তিতাস (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার তিতাস উপজেলার আসমানিয়া সর্ববৃহত বাজারে বিকাশের দোকানে চুরির ঘটনায় আজ সোমবার সকাল থেকে ধর্মঘট ও বিক্ষোভ মিছিল করেছেন ব্যবসায়ীরা। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাজারের পাঁচ নৈশপ্রহরীকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, রবিবার রাতে উপজেলা সর্ববৃহৎ  আসমানিয়া বাজারে পাহারার জন্য পাঁচজন নৈশ প্রহরী দায়িত্ব পালনকালে ওয়ালিদ টেলিকম দোকানের তালা ভেঙে বিকাশের আড়াই লাখ টাকার কার্ড, নগদ পঞ্চাশ হাজার টাকা ও ১২টি অ্যান্ড্রয়েড সিমফোনি  মোবাইল ফোনসেটসহ প্রায় চার লাখ টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়। গত এক মাসে মা টেলিকম, এসকে এন্টারপ্রাইজ, রমজান ফার্মেসি, ফাতেমা কনফেকশনারি ও চমক হোমিও ফার্মেসিতে চুরি হওয়ার পর কোনও প্রতিকার না হওয়ায় ব্যবসায়ীরা ক্ষুব্ধ হয়ে এ ধর্মঘটের ডাক দেন।

বাজারে পাঁচজন প্রহরী থাকার পরও এমন চুরির ঘটনায় ব্যবসায়ীরা ক্ষুব্ধ  হয়ে সকাল থেকে দোকানপাট বন্ধ করে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। এ সময় বিক্ষোভকারীরা রায়পুর-জাহাপুর সড়ক অবরোধ করার চেষ্টা করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাজারের পাঁচ প্রহরীকে আটক করে এ সময়  ব্যবসায়ীরা অবরোধ তুলে নিয়ে সড়কে চুরির ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করে। কর্মসূচি চলাকালে নারানদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তাদের দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য উপজেলা প্রশাসনকে জানালে ব্যবসায়ীরা ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেন।

তিতাস থানার এসআই মো. সেলিম মিয়া বলেন, “বাজারের চুরির ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পাঁচ পাহারাদারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। “

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

তিতাসে ব্যবসায়ীদের ধর্মঘট, বিক্ষোভ

আপডেট সময় ০৪:২৬:০০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২১ অগাস্ট ২০১৭
তিতাস (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার তিতাস উপজেলার আসমানিয়া সর্ববৃহত বাজারে বিকাশের দোকানে চুরির ঘটনায় আজ সোমবার সকাল থেকে ধর্মঘট ও বিক্ষোভ মিছিল করেছেন ব্যবসায়ীরা। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাজারের পাঁচ নৈশপ্রহরীকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, রবিবার রাতে উপজেলা সর্ববৃহৎ  আসমানিয়া বাজারে পাহারার জন্য পাঁচজন নৈশ প্রহরী দায়িত্ব পালনকালে ওয়ালিদ টেলিকম দোকানের তালা ভেঙে বিকাশের আড়াই লাখ টাকার কার্ড, নগদ পঞ্চাশ হাজার টাকা ও ১২টি অ্যান্ড্রয়েড সিমফোনি  মোবাইল ফোনসেটসহ প্রায় চার লাখ টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়। গত এক মাসে মা টেলিকম, এসকে এন্টারপ্রাইজ, রমজান ফার্মেসি, ফাতেমা কনফেকশনারি ও চমক হোমিও ফার্মেসিতে চুরি হওয়ার পর কোনও প্রতিকার না হওয়ায় ব্যবসায়ীরা ক্ষুব্ধ হয়ে এ ধর্মঘটের ডাক দেন।

বাজারে পাঁচজন প্রহরী থাকার পরও এমন চুরির ঘটনায় ব্যবসায়ীরা ক্ষুব্ধ  হয়ে সকাল থেকে দোকানপাট বন্ধ করে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। এ সময় বিক্ষোভকারীরা রায়পুর-জাহাপুর সড়ক অবরোধ করার চেষ্টা করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাজারের পাঁচ প্রহরীকে আটক করে এ সময়  ব্যবসায়ীরা অবরোধ তুলে নিয়ে সড়কে চুরির ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করে। কর্মসূচি চলাকালে নারানদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তাদের দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য উপজেলা প্রশাসনকে জানালে ব্যবসায়ীরা ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেন।

তিতাস থানার এসআই মো. সেলিম মিয়া বলেন, “বাজারের চুরির ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পাঁচ পাহারাদারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। “