ঢাকা ০৫:৫৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তিতাসে মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের বই উৎসব ম্লান

নাজমুল করিম ফারুক:

কুমিল্লার তিতাসে মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের হাতে বছরের প্রথম দিনে সকল বিষয়ের বই তুলে দেয়ার আনুষ্ঠানিকতায় ‘বই উৎসব’ পালিত হলেও কাঙ্খিত বিষয়গুলোর বই না পাওয়ায় অনেক শিক্ষার্থীর মাঝে হতাশা বিরাজ করে। রবিবার পহেলা জানুয়ারি সারাদেশের ন্যায় তিতাসের প্রত্যেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ বই উৎসব পালিত হয়। এদিকে প্রাথমিক স্তুরে সকল বিষয়ের বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।

উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ঘুরে জানা যায়, ষষ্ঠ শ্রেণির ১৩টি বিষয়ের মধ্যে অধিকাংশ বিদ্যালয়ে সকল বিষয়ের বই বিতরণ করা হলেও ৩/৪টি বিদ্যালয়ে ৭টি বিষয়ের বই সরবরাহ করা হয়নি। উপজেলার প্রায় ১১টি মাধ্যমিক স্তরের বিদ্যালয়গুলোতে ৭ম ও ৮ম শ্রেণির ১৩টি বিষয়ের মধ্যে বাংলা, ইংরেজি, গণিত, বাংলা দ্রুতপঠন, বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়, সাধারণ বিজ্ঞান, ইসলাম ও হিন্দুধর্ম, কর্ম ও জীবনমূখি শিক্ষাসহ প্রায় ৭/৮টি বিষয় এবং ৯ম শ্রেণির ১২টি বিষয়ের মধ্যে গণিত, পদার্থ, হিসাব বিজ্ঞান, ব্যবসা উদ্যোগ, সাধারণ বিজ্ঞান, ইসলাম ও হিন্দু ধর্ম, বাংলাদেশের ইতিহাস, ভূগোল ও পরিবেশসহ প্রায় ৭/৮টি বিষয়ের বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দিতে পারেনি কর্তৃপক্ষ।

গাজীপুর খান মডেল স্কুল এন্ড কলেজ ও বাতাকান্দি সরকার সাহেব আলী আবুল হোসেন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষার্থী জানান, বছরের প্রথমদিকে যেহেতু কমন বিষয়গুলো বাংলা, ইংরেজী ও গণিত ক্লাশগুলো পুরোদমে হয়ে থাকে, সেহেতু এই বইগুলো পেলে আরো খুশি হতাম।
জিয়ারকান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ সাখাওয়াত হোসেন জানান, প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণির সকল বই বিতরণ করা হয়েছে তবে, ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত অর্ধেক বই সরবরাহ করায় সকল বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দিতে পারেনি।

গাজীপুর খান মডেল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল বাতেন জানান, ষষ্ঠ শ্রেণির সকল বই পাইলেও ৭ম থেকে ৯ম শ্রেণি পর্যন্ত ৫০% বই সরবরাহ করা হয়নি।

বাতাকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আলাউদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, চাহিদা মোতাবেক বই না পাওয়ায় আমি বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোসাঃ আনোয়ারা চৌধুরী বলেন, সরকারের কাছ থেকে সকল বিষয়ের বই না পাওয়ায় শিক্ষার্থীদের হাতে কিছু বই তুলে দেয়া সম্ভব হয়নি। তবে খুব শীঘ্রই এ সংকট কেটে যাবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মকিমা বেগম ও উপজেলা সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল গণি মিটিংয়ে থাকায় এব্যাপারে সাক্ষাতকার নেয়া সম্ভব হয়নি।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

তিতাসে মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের বই উৎসব ম্লান

আপডেট সময় ১২:৫৮:৩৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১ জানুয়ারী ২০১৭
নাজমুল করিম ফারুক:

কুমিল্লার তিতাসে মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের হাতে বছরের প্রথম দিনে সকল বিষয়ের বই তুলে দেয়ার আনুষ্ঠানিকতায় ‘বই উৎসব’ পালিত হলেও কাঙ্খিত বিষয়গুলোর বই না পাওয়ায় অনেক শিক্ষার্থীর মাঝে হতাশা বিরাজ করে। রবিবার পহেলা জানুয়ারি সারাদেশের ন্যায় তিতাসের প্রত্যেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ বই উৎসব পালিত হয়। এদিকে প্রাথমিক স্তুরে সকল বিষয়ের বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।

উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ঘুরে জানা যায়, ষষ্ঠ শ্রেণির ১৩টি বিষয়ের মধ্যে অধিকাংশ বিদ্যালয়ে সকল বিষয়ের বই বিতরণ করা হলেও ৩/৪টি বিদ্যালয়ে ৭টি বিষয়ের বই সরবরাহ করা হয়নি। উপজেলার প্রায় ১১টি মাধ্যমিক স্তরের বিদ্যালয়গুলোতে ৭ম ও ৮ম শ্রেণির ১৩টি বিষয়ের মধ্যে বাংলা, ইংরেজি, গণিত, বাংলা দ্রুতপঠন, বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়, সাধারণ বিজ্ঞান, ইসলাম ও হিন্দুধর্ম, কর্ম ও জীবনমূখি শিক্ষাসহ প্রায় ৭/৮টি বিষয় এবং ৯ম শ্রেণির ১২টি বিষয়ের মধ্যে গণিত, পদার্থ, হিসাব বিজ্ঞান, ব্যবসা উদ্যোগ, সাধারণ বিজ্ঞান, ইসলাম ও হিন্দু ধর্ম, বাংলাদেশের ইতিহাস, ভূগোল ও পরিবেশসহ প্রায় ৭/৮টি বিষয়ের বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দিতে পারেনি কর্তৃপক্ষ।

গাজীপুর খান মডেল স্কুল এন্ড কলেজ ও বাতাকান্দি সরকার সাহেব আলী আবুল হোসেন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষার্থী জানান, বছরের প্রথমদিকে যেহেতু কমন বিষয়গুলো বাংলা, ইংরেজী ও গণিত ক্লাশগুলো পুরোদমে হয়ে থাকে, সেহেতু এই বইগুলো পেলে আরো খুশি হতাম।
জিয়ারকান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ সাখাওয়াত হোসেন জানান, প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণির সকল বই বিতরণ করা হয়েছে তবে, ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত অর্ধেক বই সরবরাহ করায় সকল বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দিতে পারেনি।

গাজীপুর খান মডেল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল বাতেন জানান, ষষ্ঠ শ্রেণির সকল বই পাইলেও ৭ম থেকে ৯ম শ্রেণি পর্যন্ত ৫০% বই সরবরাহ করা হয়নি।

বাতাকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আলাউদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, চাহিদা মোতাবেক বই না পাওয়ায় আমি বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোসাঃ আনোয়ারা চৌধুরী বলেন, সরকারের কাছ থেকে সকল বিষয়ের বই না পাওয়ায় শিক্ষার্থীদের হাতে কিছু বই তুলে দেয়া সম্ভব হয়নি। তবে খুব শীঘ্রই এ সংকট কেটে যাবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মকিমা বেগম ও উপজেলা সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল গণি মিটিংয়ে থাকায় এব্যাপারে সাক্ষাতকার নেয়া সম্ভব হয়নি।