ঢাকা ১০:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তিতাসে যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু

তিতাস (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার তিতাসে বাবুল (২৭) নামের এক এতিম যুবকের রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার জগতপুর ইউনিয়নের কৈয়ারপার এলাকা থেকে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে।

আজ শুক্রবার ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কুমিল্লা মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত বাবুল উপজেলার মজিদপুর ইউনিয়নের কালাইরকান্দি গ্রামের মৃত মালু মিয়ার ছেলে।জানা যায়, বাবুল মিয়া দীর্ঘদিন ধরে উজিরাকন্দির রফিক নামের এক ব্যক্তির ডেকোরেটরের দোকানে কর্মচারী হিসেবে কাজ করতেন। গত বুধবার মালিকের কাছ থেকে জরুরি প্রয়োজনে দুই হাজার টাকা নিয়ে বাড়ির উদ্দেশে বের হন। এরপর বৃহস্পতিবার বিকেলে স্থানীয়রা বাবুলের লাশ দেখতে পায় জগতপুরের কৈয়ারপাড় এলাকায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে। এরপর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খবর প্রকাশিত হলে স্বজনরা বাবুলের পরিচয় নিশ্চিত করেন। তবে কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা কেউ নিশ্চিত করতে পারেনি।

তিতাস থানার ওসি মো. নুরুল আলম বলেন, “আমরা খবর পেয়ে অজ্ঞাত হিসেবে লাশটি উদ্ধার করি। পরে তার স্বজনরা লাশটি শনাক্ত করেন। কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে ময়নাতদন্ত ছাড়া বলা যাচ্ছে না। তবে নিহতের শরীরে চারটি আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মামলা হলে রহস্য উদঘাটন করা হবে। ”

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

তিতাসে যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু

আপডেট সময় ০১:৪৬:৩৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ জুন ২০১৭
তিতাস (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার তিতাসে বাবুল (২৭) নামের এক এতিম যুবকের রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার জগতপুর ইউনিয়নের কৈয়ারপার এলাকা থেকে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে।

আজ শুক্রবার ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কুমিল্লা মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত বাবুল উপজেলার মজিদপুর ইউনিয়নের কালাইরকান্দি গ্রামের মৃত মালু মিয়ার ছেলে।জানা যায়, বাবুল মিয়া দীর্ঘদিন ধরে উজিরাকন্দির রফিক নামের এক ব্যক্তির ডেকোরেটরের দোকানে কর্মচারী হিসেবে কাজ করতেন। গত বুধবার মালিকের কাছ থেকে জরুরি প্রয়োজনে দুই হাজার টাকা নিয়ে বাড়ির উদ্দেশে বের হন। এরপর বৃহস্পতিবার বিকেলে স্থানীয়রা বাবুলের লাশ দেখতে পায় জগতপুরের কৈয়ারপাড় এলাকায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে। এরপর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খবর প্রকাশিত হলে স্বজনরা বাবুলের পরিচয় নিশ্চিত করেন। তবে কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা কেউ নিশ্চিত করতে পারেনি।

তিতাস থানার ওসি মো. নুরুল আলম বলেন, “আমরা খবর পেয়ে অজ্ঞাত হিসেবে লাশটি উদ্ধার করি। পরে তার স্বজনরা লাশটি শনাক্ত করেন। কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে ময়নাতদন্ত ছাড়া বলা যাচ্ছে না। তবে নিহতের শরীরে চারটি আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মামলা হলে রহস্য উদঘাটন করা হবে। ”