ঢাকা ০৯:০৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘তিস্তার পানি আসবেই, কেউ আটকে রাখতে পারবে না’

জাতীয ডেস্কঃ
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের দেশ নিচের দিকে। আর তাই তিস্তা নদী দিয়ে পানি আসবেই। কেউ তা আটকে রাখতে পারবে না। তিস্তা নদী প্রসঙ্গে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আমাকে বলেছেন, তার সরকার এবং আমাদের সরকার ক্ষমতায় থাকতেই তিস্তা চুক্তি হবে। তিনি বলেন, দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও স্বার্থ রক্ষা আমরা করতে জানি। আমার জীবন থাকতে দেশের স্বার্থবিরোধী কোন কিছুই হতে দেইনি, হতে দেবোও না। শেখ হাসিনা কখনো দেশ বেচে না; বরং যারা রাজনীতিতে উড়ে এসে জুড়ে বসেছে তারাই দেশ বেচে।
মঙ্গলবার বিকালে গণভবনে জনাকীর্ণ সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক ভারত সফরের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে এই সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। লিখিত বক্তব্যের পর তিনি সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।
‘আরো ৫ বছর ক্ষমতায় থাকতেই শেখ হাসিনা ভারতের কাছে দেশ বিক্রি করেছেন’ মর্মে খালেদা জিয়ার বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নেত্রীকে ধন্যবাদ। আরো ৫ বছর সময় পাওয়া গেল। উনি ধরেই নিয়েছেন আমরা আরো ৫ বছর ক্ষমতায় থাকবো। আসলে যারা যেভাবে ক্ষমতায় আসে তারা সেভাবেই কথা বলে। মাটি ও মানুষের অধিকার আদায়ের আন্দোলনের মধ্য দিয়েই আওয়ামী লীগের জন্ম। আর বিএনপির জন্ম বন্দুকের নল দিয়ে সংবিধান লঙ্ঘন করে অবৈধ ক্ষমতা দখলের মাধ্যমে।
তিনি বলেন, ক্ষমতার জন্য আমরা রাজনীতি করি না। দেশ ও জনগণের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছি। শেখ হাসিনা কখনো দেশ বেচে না। দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও স্বার্থ রক্ষা আমরাই করতে জানি। ভারত সফরে তৃপ্তি-অতৃপ্তি সম্পর্কে প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তার ভারত সফর অত্যন্ত সফল হয়েছে। বাংলাদেশ ভৌগলিকভাবে ছোট হলেও সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে আমরা সমান। আর সেই সম্মান ভারত আমাদের দিয়েছে। এখানে কোন অতৃপ্তির জায়গা নেই।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

‘তিস্তার পানি আসবেই, কেউ আটকে রাখতে পারবে না’

আপডেট সময় ০৫:৪৮:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ এপ্রিল ২০১৭
জাতীয ডেস্কঃ
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের দেশ নিচের দিকে। আর তাই তিস্তা নদী দিয়ে পানি আসবেই। কেউ তা আটকে রাখতে পারবে না। তিস্তা নদী প্রসঙ্গে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আমাকে বলেছেন, তার সরকার এবং আমাদের সরকার ক্ষমতায় থাকতেই তিস্তা চুক্তি হবে। তিনি বলেন, দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও স্বার্থ রক্ষা আমরা করতে জানি। আমার জীবন থাকতে দেশের স্বার্থবিরোধী কোন কিছুই হতে দেইনি, হতে দেবোও না। শেখ হাসিনা কখনো দেশ বেচে না; বরং যারা রাজনীতিতে উড়ে এসে জুড়ে বসেছে তারাই দেশ বেচে।
মঙ্গলবার বিকালে গণভবনে জনাকীর্ণ সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক ভারত সফরের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে এই সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। লিখিত বক্তব্যের পর তিনি সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।
‘আরো ৫ বছর ক্ষমতায় থাকতেই শেখ হাসিনা ভারতের কাছে দেশ বিক্রি করেছেন’ মর্মে খালেদা জিয়ার বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নেত্রীকে ধন্যবাদ। আরো ৫ বছর সময় পাওয়া গেল। উনি ধরেই নিয়েছেন আমরা আরো ৫ বছর ক্ষমতায় থাকবো। আসলে যারা যেভাবে ক্ষমতায় আসে তারা সেভাবেই কথা বলে। মাটি ও মানুষের অধিকার আদায়ের আন্দোলনের মধ্য দিয়েই আওয়ামী লীগের জন্ম। আর বিএনপির জন্ম বন্দুকের নল দিয়ে সংবিধান লঙ্ঘন করে অবৈধ ক্ষমতা দখলের মাধ্যমে।
তিনি বলেন, ক্ষমতার জন্য আমরা রাজনীতি করি না। দেশ ও জনগণের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছি। শেখ হাসিনা কখনো দেশ বেচে না। দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও স্বার্থ রক্ষা আমরাই করতে জানি। ভারত সফরে তৃপ্তি-অতৃপ্তি সম্পর্কে প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তার ভারত সফর অত্যন্ত সফল হয়েছে। বাংলাদেশ ভৌগলিকভাবে ছোট হলেও সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে আমরা সমান। আর সেই সম্মান ভারত আমাদের দিয়েছে। এখানে কোন অতৃপ্তির জায়গা নেই।