ঢাকা ১১:০১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দাউদকান্দিতে অগ্নিকান্ডে শতাধিক দোকান ক্ষতিগ্রস্ত

স্টাফ রির্পোটার, কুমিল্লাঃ

কুমিল্লা দাউদকান্দির পৌরসভার একটি মার্কেটে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট চারঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এতে প্রায় শতাধিক দোকানে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। প্রায় পাঁচ কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা দাবি করছেন।

রবিবার সকাল ৭টায় দাউদকান্দি পৌর এলাকার মুন্সি সুপার মার্কেটে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল সাতার দিকে মার্কেটের একটি স্টুডিও থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। প্রথমে স্থানীয় দোকানদার ও এলাকাবাসী আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালায়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। প্রথমে দাউদকান্দি ফায়ার সার্ভিস ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হয়। পরে হোমনা, গজারিয়া ও চান্দিনা ফায়ার সার্ভিস ইউনিট এসে দীর্ঘ চারঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে সকাল ১১টায় দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে মুন্সি সুপার মার্কেটের ইলেকট্রিক ও ইলেকট্রনিক্সসহ ২০টি দোকান এবং আসে পাশের মোবাইল মার্কেটের ১০টি কাপড়ের দোকান, এ্যালুমিয়ায়ামের ৫টি এবং কসমেটিকেসর ৮টিসহ ছোট বড় মিলে শতাধিক দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

ঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ভাবে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মেজর অব: মোহাম্মদ আলী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: আল-আমিন, মেয়র নাঈম ইউছুফ সেইন, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু ছালাম মিয়া ও ওসি তদন্ত আসাদুজ্জামান আসাদ ঘটনাস্থলে যান। আগুনের সূত্রপাতের কারণ জানা যায়নি।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

দাউদকান্দিতে অগ্নিকান্ডে শতাধিক দোকান ক্ষতিগ্রস্ত

আপডেট সময় ০৩:২৪:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০১৭
স্টাফ রির্পোটার, কুমিল্লাঃ

কুমিল্লা দাউদকান্দির পৌরসভার একটি মার্কেটে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট চারঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এতে প্রায় শতাধিক দোকানে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। প্রায় পাঁচ কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা দাবি করছেন।

রবিবার সকাল ৭টায় দাউদকান্দি পৌর এলাকার মুন্সি সুপার মার্কেটে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল সাতার দিকে মার্কেটের একটি স্টুডিও থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। প্রথমে স্থানীয় দোকানদার ও এলাকাবাসী আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালায়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। প্রথমে দাউদকান্দি ফায়ার সার্ভিস ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হয়। পরে হোমনা, গজারিয়া ও চান্দিনা ফায়ার সার্ভিস ইউনিট এসে দীর্ঘ চারঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে সকাল ১১টায় দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে মুন্সি সুপার মার্কেটের ইলেকট্রিক ও ইলেকট্রনিক্সসহ ২০টি দোকান এবং আসে পাশের মোবাইল মার্কেটের ১০টি কাপড়ের দোকান, এ্যালুমিয়ায়ামের ৫টি এবং কসমেটিকেসর ৮টিসহ ছোট বড় মিলে শতাধিক দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

ঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ভাবে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মেজর অব: মোহাম্মদ আলী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: আল-আমিন, মেয়র নাঈম ইউছুফ সেইন, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু ছালাম মিয়া ও ওসি তদন্ত আসাদুজ্জামান আসাদ ঘটনাস্থলে যান। আগুনের সূত্রপাতের কারণ জানা যায়নি।