ঢাকা ০১:২৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দাউদকান্দিতে চোরদের চিনে ফেলায় গৃহকর্তাকে খুন, আটক ২

কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে চুরি করার সময় চোরের দলকে চিনে ফেলায় গৃহকর্তাকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল রবিবার দিবাগত রাতে দাউদকান্দি উপজেলার দক্ষিণ পদুয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সোমবার সকালে মডেল থানা পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসবাদের জন্য দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত গৃহকর্তা আশরাফুল কাড়ার (৮৫) উপজেলা দক্ষিন পদুয়া গ্রামের বাসিন্দা।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, দক্ষিণ পদুয়া গ্রামের আশরাফুল কাড়ার (৮৫) তারাবির নামাজ পড়ে রাতের খাবার খেয়ে রাতে ঘুমায়। রাতে চোরের দল ঘরের টিনের সিট কেটে ঘরে প্রবেশ করে। এ সময় তারা মালামাল চুরি করার সময় বৃদ্ধা আশরাফুল তাদেরকে চিনে ফেলে এবং কিরে তোরা আমার ঘরে চুরি করছ বলার সাথে সাথে তার মুখে বালিশ চাপা দিয়ে ধরে। এ সময় তার স্ত্রী মালেকা বেগম স্বামীকে রক্ষার জন্য চোরকে চাপটে ধরলে তাকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয় এবং তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন। চোরের দল আশরাফুলকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর তার স্ত্রীর গলার চেইন, কানের ধুল এবং আলমিরা ভেঙ্গে নগদ টাকা ও বাড়ির দলিলপত্র নিয়ে যায়। সেহেরী খাওয়ার সময় বাড়ির লোকজন ডাকাডাকি করলে সাড়া না পেয়ে বৃদ্ধাকে মৃত অবস্থায় দেখে থানা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

নিহতের স্ত্রী মালেকা বানু বলেন, আমরা ঘুমিয়ে পড়লে চোরের দল টিনের ভেড়া কেটে ঘরে ঢুকেই চুরি করার সময় আমার স্বামী দেখে ফেলে এবং বলে কিরে আমার ঘরে চুরি করতে পারলি এ কথা বলার সাথে সাথে তাকে বালিশ দিয়ে চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। আমি তাকে বাঁচানোর জন্য এগিয়ে গেলে আমাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। তারপর আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ি।

এ ব্যাপারে দাউদকান্দি মডেল থানার ওসি তদন্ত মোঃ নুরুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। নিহতের ঘটনায় হত্যা মামলা রুজু করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

দাউদকান্দিতে চোরদের চিনে ফেলায় গৃহকর্তাকে খুন, আটক ২

আপডেট সময় ০৯:০১:০৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ মে ২০১৮
কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে চুরি করার সময় চোরের দলকে চিনে ফেলায় গৃহকর্তাকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল রবিবার দিবাগত রাতে দাউদকান্দি উপজেলার দক্ষিণ পদুয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সোমবার সকালে মডেল থানা পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসবাদের জন্য দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত গৃহকর্তা আশরাফুল কাড়ার (৮৫) উপজেলা দক্ষিন পদুয়া গ্রামের বাসিন্দা।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, দক্ষিণ পদুয়া গ্রামের আশরাফুল কাড়ার (৮৫) তারাবির নামাজ পড়ে রাতের খাবার খেয়ে রাতে ঘুমায়। রাতে চোরের দল ঘরের টিনের সিট কেটে ঘরে প্রবেশ করে। এ সময় তারা মালামাল চুরি করার সময় বৃদ্ধা আশরাফুল তাদেরকে চিনে ফেলে এবং কিরে তোরা আমার ঘরে চুরি করছ বলার সাথে সাথে তার মুখে বালিশ চাপা দিয়ে ধরে। এ সময় তার স্ত্রী মালেকা বেগম স্বামীকে রক্ষার জন্য চোরকে চাপটে ধরলে তাকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয় এবং তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন। চোরের দল আশরাফুলকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর তার স্ত্রীর গলার চেইন, কানের ধুল এবং আলমিরা ভেঙ্গে নগদ টাকা ও বাড়ির দলিলপত্র নিয়ে যায়। সেহেরী খাওয়ার সময় বাড়ির লোকজন ডাকাডাকি করলে সাড়া না পেয়ে বৃদ্ধাকে মৃত অবস্থায় দেখে থানা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

নিহতের স্ত্রী মালেকা বানু বলেন, আমরা ঘুমিয়ে পড়লে চোরের দল টিনের ভেড়া কেটে ঘরে ঢুকেই চুরি করার সময় আমার স্বামী দেখে ফেলে এবং বলে কিরে আমার ঘরে চুরি করতে পারলি এ কথা বলার সাথে সাথে তাকে বালিশ দিয়ে চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। আমি তাকে বাঁচানোর জন্য এগিয়ে গেলে আমাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। তারপর আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ি।

এ ব্যাপারে দাউদকান্দি মডেল থানার ওসি তদন্ত মোঃ নুরুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। নিহতের ঘটনায় হত্যা মামলা রুজু করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।