ঢাকা ০৬:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দাউদকান্দিতে বিষপানে দিনমজুরের আত্মহত্যা

index_61240

 

মো:  নাজিম উদ্দিন, বিশেষ প্রতিনিধি, ২৮ ডিসেম্বর(মুরাদনগর বার্তা ডটকম):

কনকনে শীতে রিকশা চালিয়ে সংসারের খরচ যোগাতে না পাড়ায় ক্ষোভে দাউদকান্দিতে আহসান উল্লাহ(৩৫)  নামে এক দিনমজুর বিষপানে আত্মহত্যা করেছে।

রবিবার সকালে উপজেলা দক্ষিন মোহাম্মদপুর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনার পর গৌরীপুর থানা পুলিশ নিহত দিনমজুরের মরদেহ উদ্ধার করে। নিহত দিনমজুর আহসান দাউদকান্দি উপজেলার দক্ষিণ মোহাম্মদপুর গ্রামের ইদু মোল্লার ছেলে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কয়েক দিনের হাড়-কাপানো শীতে দিনমজুর আহসান উল্লাহ কাজে যেতে না পারায় সংসারের জন্য চাল-ডাল আনতে পারেনি। তাই স্ত্রী ও ছেলে-মেয়ের মুখে কোন আহার দিতে পারেনি। এ নিয়ে স্ত্রী হালিম বেগমের সাথে আহসান উল্লার মন-মালিন্য হয়। গত তিন দিন ধরে কনকনে শীতে কাজ করতে না পারায় তাই সংসারের জন্য খাবার নিতে পারেনি সে। দুই সন্তানের কান্না সহ্য করতে না পারায় আজ রবিবার সকালে ক্যারির ভরি খেয়ে আত্মহত্যা করে সে। এ সময় তার স্বজনরা প্রথমে তাকে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে এবং পরে গৌরীপুর উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন।

এ ব্যাপারে গৌরীপুর ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, কয়েক দিনের শীতে রিকশা চালাতে পারেনি আহসান উল্লাহ। তাই ঘরে কোন খাবার নিতে না পারায় ক্ষোভে বিষপানে আত্মহত্যা করেছে সে। ময়নাতদন্তের জন্য দিনমজুরের মরদেহ কুমিল্লায় প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে দাউদকান্দি মডেল থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

ট্যাগস

দাউদকান্দিতে বিষপানে দিনমজুরের আত্মহত্যা

আপডেট সময় ১২:৩৩:৫৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪

index_61240

 

মো:  নাজিম উদ্দিন, বিশেষ প্রতিনিধি, ২৮ ডিসেম্বর(মুরাদনগর বার্তা ডটকম):

কনকনে শীতে রিকশা চালিয়ে সংসারের খরচ যোগাতে না পাড়ায় ক্ষোভে দাউদকান্দিতে আহসান উল্লাহ(৩৫)  নামে এক দিনমজুর বিষপানে আত্মহত্যা করেছে।

রবিবার সকালে উপজেলা দক্ষিন মোহাম্মদপুর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনার পর গৌরীপুর থানা পুলিশ নিহত দিনমজুরের মরদেহ উদ্ধার করে। নিহত দিনমজুর আহসান দাউদকান্দি উপজেলার দক্ষিণ মোহাম্মদপুর গ্রামের ইদু মোল্লার ছেলে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কয়েক দিনের হাড়-কাপানো শীতে দিনমজুর আহসান উল্লাহ কাজে যেতে না পারায় সংসারের জন্য চাল-ডাল আনতে পারেনি। তাই স্ত্রী ও ছেলে-মেয়ের মুখে কোন আহার দিতে পারেনি। এ নিয়ে স্ত্রী হালিম বেগমের সাথে আহসান উল্লার মন-মালিন্য হয়। গত তিন দিন ধরে কনকনে শীতে কাজ করতে না পারায় তাই সংসারের জন্য খাবার নিতে পারেনি সে। দুই সন্তানের কান্না সহ্য করতে না পারায় আজ রবিবার সকালে ক্যারির ভরি খেয়ে আত্মহত্যা করে সে। এ সময় তার স্বজনরা প্রথমে তাকে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে এবং পরে গৌরীপুর উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন।

এ ব্যাপারে গৌরীপুর ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, কয়েক দিনের শীতে রিকশা চালাতে পারেনি আহসান উল্লাহ। তাই ঘরে কোন খাবার নিতে না পারায় ক্ষোভে বিষপানে আত্মহত্যা করেছে সে। ময়নাতদন্তের জন্য দিনমজুরের মরদেহ কুমিল্লায় প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে দাউদকান্দি মডেল থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।