ঢাকা ০৮:০৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দাউদকান্দিতে যুবকের লাশ উদ্ধার

মো.আলী আশরাফ খানঃ

কুমিল্লা দাউদকান্দি উপজেলার গৌরীপুরের হাঁটচান্দিনা কালাডুমুর নদীর পাড় থেকে বুধবার সকালে পিন্টু (৪৫) নামের একজনের লাশ উদ্ধার করে স্থানীয় পুলিশ।

সে উপজেলার গৌরীপুর গ্রামের মৃত তাজুল ইসলামের ছেলে।

পিন্টুর বড় বোন রৌশন আরা বিউটি জানান, মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ৯টার দিকে পিন্টু জমি বিক্রির ৬৫ হাজার টাকা নিয়ে তার এক বন্ধুর সঙ্গে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। বুধবার সকালে তাকে মৃত অবস্থায় পাশের গ্রাম হাঁটচান্দিনায় নদীরপাড়ে পাওয়া যায়’।

তিনি আরো জানান, ‘পিন্টু দীর্ঘদিন বাহরাইরানে চাকুরি করেছে। দেশে আসার পর স্থানীয় কিছু নেশাখোরদের পাল্লায় পড়ে মাদকাসক্ত হয়ে পড়ে সে।  সম্প্রতি ভালো হওয়ার সংকল্প করে ছিলো পিন্টু। যার ফলে তার দাবি অনুযায়ী, গৌরীপুর বাজারে তৈরি পোশাকের দোকান দেওয়ার জন্য বাহরাইন প্রবাসী বড় ভাই আব্দুল হালিম দেড় লক্ষ টাকা পাঠান। ওই টাকা সে সবসময় সাথেই রাখতেন। এর মধ্যে ইতোমধ্যে বেশ কিছু টাকা খরচও করে ফেলে পিন্টু। মঙ্গলবার রাতে পিন্টু ৬৫ হাজার টাকা নিয়ে ঘর থেকে বের হয়ে যায়। ওই টাকা ছিনতাই করার পর আমার ভাইকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। আমরা এই হত্যার দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করছি’।

গৌরীপুর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মোঃ জাহিদুল হক জানান, ‘বুধবার সকালে হাঁটচান্দিনা গ্রামের রাজা মিয়ার ভরাটকৃত বালুমাঠ-কালাডুমুর নদীর দক্ষিণ পাড় থেকে পিন্টুর লাশ আমরা উদ্ধার করি। ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার লাশ পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, অতিরিক্ত মাদকসেবনের ফলে তার মৃত্যু হয়েছে। তবে ময়নাতন্তের পর সঠিক ব্যাপারটি নিশ্চিত হওয়া যাবে’।

ট্যাগস

দাউদকান্দিতে যুবকের লাশ উদ্ধার

আপডেট সময় ০৭:৩০:৫২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ অগাস্ট ২০১৬
মো.আলী আশরাফ খানঃ

কুমিল্লা দাউদকান্দি উপজেলার গৌরীপুরের হাঁটচান্দিনা কালাডুমুর নদীর পাড় থেকে বুধবার সকালে পিন্টু (৪৫) নামের একজনের লাশ উদ্ধার করে স্থানীয় পুলিশ।

সে উপজেলার গৌরীপুর গ্রামের মৃত তাজুল ইসলামের ছেলে।

পিন্টুর বড় বোন রৌশন আরা বিউটি জানান, মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ৯টার দিকে পিন্টু জমি বিক্রির ৬৫ হাজার টাকা নিয়ে তার এক বন্ধুর সঙ্গে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। বুধবার সকালে তাকে মৃত অবস্থায় পাশের গ্রাম হাঁটচান্দিনায় নদীরপাড়ে পাওয়া যায়’।

তিনি আরো জানান, ‘পিন্টু দীর্ঘদিন বাহরাইরানে চাকুরি করেছে। দেশে আসার পর স্থানীয় কিছু নেশাখোরদের পাল্লায় পড়ে মাদকাসক্ত হয়ে পড়ে সে।  সম্প্রতি ভালো হওয়ার সংকল্প করে ছিলো পিন্টু। যার ফলে তার দাবি অনুযায়ী, গৌরীপুর বাজারে তৈরি পোশাকের দোকান দেওয়ার জন্য বাহরাইন প্রবাসী বড় ভাই আব্দুল হালিম দেড় লক্ষ টাকা পাঠান। ওই টাকা সে সবসময় সাথেই রাখতেন। এর মধ্যে ইতোমধ্যে বেশ কিছু টাকা খরচও করে ফেলে পিন্টু। মঙ্গলবার রাতে পিন্টু ৬৫ হাজার টাকা নিয়ে ঘর থেকে বের হয়ে যায়। ওই টাকা ছিনতাই করার পর আমার ভাইকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। আমরা এই হত্যার দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করছি’।

গৌরীপুর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মোঃ জাহিদুল হক জানান, ‘বুধবার সকালে হাঁটচান্দিনা গ্রামের রাজা মিয়ার ভরাটকৃত বালুমাঠ-কালাডুমুর নদীর দক্ষিণ পাড় থেকে পিন্টুর লাশ আমরা উদ্ধার করি। ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার লাশ পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, অতিরিক্ত মাদকসেবনের ফলে তার মৃত্যু হয়েছে। তবে ময়নাতন্তের পর সঠিক ব্যাপারটি নিশ্চিত হওয়া যাবে’।