ঢাকা ১০:২৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দাউদকান্দির যুবলীগ নেতা হত্যা মামলার আসামি ঢাকায় গ্রেফতার

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ
কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা যুবলীগ নেতা আমির হোসেন ওরফে রাজন হত্যা মামলার এজাহারনামীয় আসামি জিসানকে (২১) গ্রেফতার করা হয়েছে। কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশ মঙ্গলবার দিবাগত গভীর রাতে ঢাকার ডেমরা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। সে জেলার দাউদকান্দি উপজেলার কাজিরকোনা গ্রামের আবদুল মালেকের ছেলে। ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদানের জন্য বুধবার বিকালে তাকে আদালতে নেয়া হয়।
জানা যায়, পূর্ব বিরোধের জের ধরে গত ৬ মে দাউদকান্দি পৌর এলাকার পশ্চিম মাইজপাড়া বলদাখাল রোডস্থ মসজিদের পাশে পেয়ে সন্ত্রাসীরা চাপাতি, ছুরি, চাইনিজ কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে যুবলীগ নেতা আমির হোসেন ওরফে রাজনকে হত্যা করে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই বিল্লাল হোসেন বাদী হয়ে ২০ জনকে আসামি করে দাউদকান্দি মডেল থানায় মামলা করেন। পরে মামলাটি জেলা ডিবিতে স্থানান্তর করা হয়।
বুধবার বিকাল ৩টায় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো. সহিদুল ইসলাম পিপিএম জানান, ‘হত্যাকাণ্ডের পর আসামি জিসান নাম-পরিচয় গোপন রেখে একেক সময় একেক স্থানে আত্মগোপন করে আসছিল। মোবাইল কললিস্টের সূত্র ধরে মঙ্গলবার দিবাগত গভীর রাতে তাকে ঢাকার ডেমরার স্টাফ কোয়ার্টার এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে, তাই ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দেয়ার জন্য আদালতে নেয়া হয়েছে। এ মামলায় এ পর্যন্ত জিসানসহ বিভিন্ন সময়ে ৮ জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।’
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

দাউদকান্দির যুবলীগ নেতা হত্যা মামলার আসামি ঢাকায় গ্রেফতার

আপডেট সময় ০২:৩৯:৫৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ অগাস্ট ২০১৭
দাউদকান্দি (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ
কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা যুবলীগ নেতা আমির হোসেন ওরফে রাজন হত্যা মামলার এজাহারনামীয় আসামি জিসানকে (২১) গ্রেফতার করা হয়েছে। কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশ মঙ্গলবার দিবাগত গভীর রাতে ঢাকার ডেমরা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। সে জেলার দাউদকান্দি উপজেলার কাজিরকোনা গ্রামের আবদুল মালেকের ছেলে। ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদানের জন্য বুধবার বিকালে তাকে আদালতে নেয়া হয়।
জানা যায়, পূর্ব বিরোধের জের ধরে গত ৬ মে দাউদকান্দি পৌর এলাকার পশ্চিম মাইজপাড়া বলদাখাল রোডস্থ মসজিদের পাশে পেয়ে সন্ত্রাসীরা চাপাতি, ছুরি, চাইনিজ কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে যুবলীগ নেতা আমির হোসেন ওরফে রাজনকে হত্যা করে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই বিল্লাল হোসেন বাদী হয়ে ২০ জনকে আসামি করে দাউদকান্দি মডেল থানায় মামলা করেন। পরে মামলাটি জেলা ডিবিতে স্থানান্তর করা হয়।
বুধবার বিকাল ৩টায় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো. সহিদুল ইসলাম পিপিএম জানান, ‘হত্যাকাণ্ডের পর আসামি জিসান নাম-পরিচয় গোপন রেখে একেক সময় একেক স্থানে আত্মগোপন করে আসছিল। মোবাইল কললিস্টের সূত্র ধরে মঙ্গলবার দিবাগত গভীর রাতে তাকে ঢাকার ডেমরার স্টাফ কোয়ার্টার এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে, তাই ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দেয়ার জন্য আদালতে নেয়া হয়েছে। এ মামলায় এ পর্যন্ত জিসানসহ বিভিন্ন সময়ে ৮ জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।’