ঢাকা ০৯:০৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দাউদকান্দির রাস্তাঘাট বেহাল জনদুর্ভোগ চরমে

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা দাউদকান্দি উপজেলার হুগুলিয়া গ্রামের দক্ষিণ মাথা থেকে দৈয়াপাড়া রুফিয়া মার্কেট ও ভুলিরপাড় হয়ে গৌরীপুর বাজার এবং গৌরীপুর সুবল-আফতাব উচ্চ বিদ্যালয় থেকে হাটচান্দিনা ও ওলানপাড়া হয়ে ছান্দ্রা পর্যন্ত এলজিইডির দুইটি রাস্তা ভাঙাচোরা ও খানাখন্দকে পরিপূর্ণ থাকায় জনসাধারণকে চলাচলে দারুণ দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

হুগুলিয়া গ্রামের দক্ষিণ মাথা থেকে দৈয়াপাড়া রুফিয়া মার্কেট ও ভুলিরপাড় হয়ে গৌরীপুর বাজার পর্যন্ত পাকা রাস্তাটির ইট ও সুড়কি উঠে বড় বড় গর্ত ও খানা-খন্দক সৃষ্টি হওয়ায় যানবাহন চলাচল করতে চরম সংকট হচ্ছে। এ সড়কগুলো দিয়ে যানবাহন চলাচল দূরের কথা পায়ে হেঁটেও চলা দুষ্কর হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সড়কের পার্শ্বের বাড়ি-ঘর উঁচু হওয়ায় বৃষ্টি-বাদলের পানি আটকিয়ে সড়কটি ভেঙে গেছে। দৈয়াপাড়া, হারিয়ালা, মোহাম্মদপুর, চরমাহমুদ্দী পাঁচানী, সরকাপুর, হুগুলিয়া, ভুলিরপাড়া প্রভৃতি গ্রামের সাধারণ জনগণ, ছাত্র-ছাত্রী, হাসপাতালের রোগী বহনকারী গাড়ি ও সিএনজি অটোরিকশায় চলাচলে দুঃসহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

গৌরীপুর সুবল-আফতাব উচ্চ বিদ্যালয় থেকে হাটচান্দিনা ও ওলানপাড়া হয়ে ছান্দ্রা পর্যন্ত রাস্তাটি দিয়ে কয়েক হাজার ছাত্র-ছাত্রী ছাড়াও মাইথারকান্দি, গৌরীপুর, হাটচান্দিনা, ওলানপাড়া, হরিপুর, রামনগার, ছান্দ্রা ও বানিয়াপাড়া গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ চলাচল করে। হাট চান্দিনা ও গৌরীপুর গ্রামের নিকট যে খাদের সৃষ্টি হয়েছে তাতে যানবাহনে করে এবং পায়ে হেঁটেও চলাচল করা যাচ্ছে না।

এলাকাবাসীর অভিযোগ দাউদকান্দির প্রায় প্রতিটি রাস্তার কাজের মানই খারাপ হয়েছে এবং উক্ত রাস্তা দুটি মেরামতের কয়েক মাসের মাথায় ভেঙেচুরে খানা খন্দক সৃষ্টি হয়ে একাকার হয়ে গেছে।

এ ব্যাপারে এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী রুবায়াত জামান বলেন, এ রাস্তাটি মেরামতের জন্য টেন্ডার হলেও কিছু জটিলতার কারণে তা বাতিল হয়ে গেছে এবং পুনরায় ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমোদনের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। গৌরীপুর থেকে ছান্দ্রা পর্যন্ত রাস্তাটির মেরামত কাজ কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হবে বলে এলজিইডি সূত্রে জানা যায়।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

দাউদকান্দির রাস্তাঘাট বেহাল জনদুর্ভোগ চরমে

আপডেট সময় ০৪:৩৯:৪৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭
দাউদকান্দি (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা দাউদকান্দি উপজেলার হুগুলিয়া গ্রামের দক্ষিণ মাথা থেকে দৈয়াপাড়া রুফিয়া মার্কেট ও ভুলিরপাড় হয়ে গৌরীপুর বাজার এবং গৌরীপুর সুবল-আফতাব উচ্চ বিদ্যালয় থেকে হাটচান্দিনা ও ওলানপাড়া হয়ে ছান্দ্রা পর্যন্ত এলজিইডির দুইটি রাস্তা ভাঙাচোরা ও খানাখন্দকে পরিপূর্ণ থাকায় জনসাধারণকে চলাচলে দারুণ দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

হুগুলিয়া গ্রামের দক্ষিণ মাথা থেকে দৈয়াপাড়া রুফিয়া মার্কেট ও ভুলিরপাড় হয়ে গৌরীপুর বাজার পর্যন্ত পাকা রাস্তাটির ইট ও সুড়কি উঠে বড় বড় গর্ত ও খানা-খন্দক সৃষ্টি হওয়ায় যানবাহন চলাচল করতে চরম সংকট হচ্ছে। এ সড়কগুলো দিয়ে যানবাহন চলাচল দূরের কথা পায়ে হেঁটেও চলা দুষ্কর হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সড়কের পার্শ্বের বাড়ি-ঘর উঁচু হওয়ায় বৃষ্টি-বাদলের পানি আটকিয়ে সড়কটি ভেঙে গেছে। দৈয়াপাড়া, হারিয়ালা, মোহাম্মদপুর, চরমাহমুদ্দী পাঁচানী, সরকাপুর, হুগুলিয়া, ভুলিরপাড়া প্রভৃতি গ্রামের সাধারণ জনগণ, ছাত্র-ছাত্রী, হাসপাতালের রোগী বহনকারী গাড়ি ও সিএনজি অটোরিকশায় চলাচলে দুঃসহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

গৌরীপুর সুবল-আফতাব উচ্চ বিদ্যালয় থেকে হাটচান্দিনা ও ওলানপাড়া হয়ে ছান্দ্রা পর্যন্ত রাস্তাটি দিয়ে কয়েক হাজার ছাত্র-ছাত্রী ছাড়াও মাইথারকান্দি, গৌরীপুর, হাটচান্দিনা, ওলানপাড়া, হরিপুর, রামনগার, ছান্দ্রা ও বানিয়াপাড়া গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ চলাচল করে। হাট চান্দিনা ও গৌরীপুর গ্রামের নিকট যে খাদের সৃষ্টি হয়েছে তাতে যানবাহনে করে এবং পায়ে হেঁটেও চলাচল করা যাচ্ছে না।

এলাকাবাসীর অভিযোগ দাউদকান্দির প্রায় প্রতিটি রাস্তার কাজের মানই খারাপ হয়েছে এবং উক্ত রাস্তা দুটি মেরামতের কয়েক মাসের মাথায় ভেঙেচুরে খানা খন্দক সৃষ্টি হয়ে একাকার হয়ে গেছে।

এ ব্যাপারে এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী রুবায়াত জামান বলেন, এ রাস্তাটি মেরামতের জন্য টেন্ডার হলেও কিছু জটিলতার কারণে তা বাতিল হয়ে গেছে এবং পুনরায় ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমোদনের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। গৌরীপুর থেকে ছান্দ্রা পর্যন্ত রাস্তাটির মেরামত কাজ কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হবে বলে এলজিইডি সূত্রে জানা যায়।