ঢাকা ০৪:৪৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দুদকের মামলায় হোমনায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হাজতে

তপন সরকার, হোমনা প্রতিনিধি ;

কুমিল্লার হোমনায় জাল দলিল সৃজন করে সম্পত্তি আত্মসাতের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় মো. মনিরুল হক নামে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)এর কুমিল্লা অঞ্চলের উপ- পরিচালক মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরের দিকে অভিযান চালিয়ে তাকে উপজেলা রিসোর্স সেন্টার (ই্উ্রআরসি)তে প্রশিক্ষণ চলাকালীন সময় তাকে গ্রেফতার করে ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

দুদক সূত্রে জানা গেছে, হোমনা উপজেলার ছোট ঘাড়মোড়া গ্রামের মো.মিজানুর রহমানের ছেলে উপজেলার মহিষমারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভার প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো.মনিরুল হক তার দাদি চন্দ্রবান নেছার স্বাক্ষর জাল করে, জাল দলিল সৃজন করে তার ফুফু শান্তি বেগম(৬৫) এর মনিপুর মৌজার ৭৫.৫০ শতক জমি রেজিস্ট্রি করে আত্মসাৎ করে। এ ঘটনায় শান্তি বেগম বাদী হয়ে ১৯৯২ সালে আমলী আদালতে জালিয়াতির মামলা করে । পরে এ মামলা ১৯৯৪ সালে দূর্নীতি দমন বুরোতে স্থানান্তর করে আদালত। কিন্তু মামলার কার্যক্রম শিথিল হয়ে পড়ে । পরবর্তীতে দূর্ণীতি দমন কমিশন হওয়ার পর দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক মো.সাইফুল ইসলাম গত বছরের ৩০ জানুয়ারি হোমনা থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ১৬। পরে তদন্তে বিষয়টি সত্য প্রমাণিত হওয়ায় মো. মনিরুল হকের বিরুদ্ধে পলাতক দেখিয়ে গ্রেফতারি পরোয়ানা জাড়ি করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ।

কুমিল্লার উপ-পরিচালক সাইফুল ইসলাম জানান, গ্রেফতারের পর মো.মনিরুল হককে আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালত তাকে জেলহাজতে প্রেরণ

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

দুদকের মামলায় হোমনায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হাজতে

আপডেট সময় ০১:৫৩:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ এপ্রিল ২০১৬

তপন সরকার, হোমনা প্রতিনিধি ;

কুমিল্লার হোমনায় জাল দলিল সৃজন করে সম্পত্তি আত্মসাতের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় মো. মনিরুল হক নামে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)এর কুমিল্লা অঞ্চলের উপ- পরিচালক মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরের দিকে অভিযান চালিয়ে তাকে উপজেলা রিসোর্স সেন্টার (ই্উ্রআরসি)তে প্রশিক্ষণ চলাকালীন সময় তাকে গ্রেফতার করে ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

দুদক সূত্রে জানা গেছে, হোমনা উপজেলার ছোট ঘাড়মোড়া গ্রামের মো.মিজানুর রহমানের ছেলে উপজেলার মহিষমারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভার প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো.মনিরুল হক তার দাদি চন্দ্রবান নেছার স্বাক্ষর জাল করে, জাল দলিল সৃজন করে তার ফুফু শান্তি বেগম(৬৫) এর মনিপুর মৌজার ৭৫.৫০ শতক জমি রেজিস্ট্রি করে আত্মসাৎ করে। এ ঘটনায় শান্তি বেগম বাদী হয়ে ১৯৯২ সালে আমলী আদালতে জালিয়াতির মামলা করে । পরে এ মামলা ১৯৯৪ সালে দূর্নীতি দমন বুরোতে স্থানান্তর করে আদালত। কিন্তু মামলার কার্যক্রম শিথিল হয়ে পড়ে । পরবর্তীতে দূর্ণীতি দমন কমিশন হওয়ার পর দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক মো.সাইফুল ইসলাম গত বছরের ৩০ জানুয়ারি হোমনা থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ১৬। পরে তদন্তে বিষয়টি সত্য প্রমাণিত হওয়ায় মো. মনিরুল হকের বিরুদ্ধে পলাতক দেখিয়ে গ্রেফতারি পরোয়ানা জাড়ি করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ।

কুমিল্লার উপ-পরিচালক সাইফুল ইসলাম জানান, গ্রেফতারের পর মো.মনিরুল হককে আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালত তাকে জেলহাজতে প্রেরণ