ঢাকা ১০:৪৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত নওয়াজ শরীফ, তার কন্যা ও জামাতা

অন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
লন্ডনের সম্পত্তির মালিকানা সংক্রান্ত অভিযোগে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ তার মেয়ে ও জামাতার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছে দেশটির দুর্নীতি বিরোধী আদালত। এই অভিযোগ প্রমাণিত হলে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে কারাগারে যেতে হতে পারে।
গত জুলাই মাসে অপ্রদর্শিত আয় সংশ্লিষ্ট অভিযোগে সুপ্রিম কোর্ট নওয়াজ শরীফকে প্রধানমন্ত্রী পদে অযোগ্য ঘোষণার পরে তিনি পদত্যাগ করেন। কিন্তু তিনি ক্ষমতাসীন দল পাকিস্তান মুসলিম লীগ (নওয়াজ) এর উপর নিজের কর্তৃত্ব বহাল রেখেছেন। পাকিস্তানের ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো নওয়াজ শরীফ, কন্যা মরিয়ম ও জামাতা মোহাম্মদ সফদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছে। তারা তিনজনই আদালতে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। নওয়াজ শরীফ প্রতিনিধির মাধ্যমে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন, বর্তমানে অসুস্থ স্ত্রীর প্রতি সময় দিতে তিনি ইংল্যান্ডে রয়েছেন।
২০১৬ সালে পানামাভিত্তিক ল ফার্ম মোসাক ফনসেকার ফাঁস হওয়া নথিতে দেখা যায় নওয়াজ শরীফ এবং তার মেয়ে ও দুই পুত্র ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ডে অফশোর হোল্ডিং কোম্পানি খুলেছেন এবং সেই কোম্পানির মাধ্যমে লন্ডনে বিলাসবহুল ফ্ল্যাট কিনেছেন। এই অভিযোগের প্রেক্ষিতেই পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট তাকে অযোগ্য ঘোষণা করে এবং ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরোকে তার বিরুদ্ধে তদন্ত করে বিচার করার নির্দেশ দেয়। সুপ্রিম কোর্ট নিয়োজিত আরেকটি প্যানেল বলেছে, নওয়াজ পরিবারের আয়ের সঙ্গে তাদের সম্পদের পরিমাণে অসংগতি রয়েছে। মরিয়ম ও তার ভাইদের বিরুদ্ধে নথি জালিয়াতি করে ভুয়া অফশোর কোম্পানি গঠন করে লন্ডনে ফ্ল্যাট কেনার অভিযোগ করে প্যানেল।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত নওয়াজ শরীফ, তার কন্যা ও জামাতা

আপডেট সময় ০১:৪০:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৭
অন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
লন্ডনের সম্পত্তির মালিকানা সংক্রান্ত অভিযোগে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ তার মেয়ে ও জামাতার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছে দেশটির দুর্নীতি বিরোধী আদালত। এই অভিযোগ প্রমাণিত হলে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে কারাগারে যেতে হতে পারে।
গত জুলাই মাসে অপ্রদর্শিত আয় সংশ্লিষ্ট অভিযোগে সুপ্রিম কোর্ট নওয়াজ শরীফকে প্রধানমন্ত্রী পদে অযোগ্য ঘোষণার পরে তিনি পদত্যাগ করেন। কিন্তু তিনি ক্ষমতাসীন দল পাকিস্তান মুসলিম লীগ (নওয়াজ) এর উপর নিজের কর্তৃত্ব বহাল রেখেছেন। পাকিস্তানের ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো নওয়াজ শরীফ, কন্যা মরিয়ম ও জামাতা মোহাম্মদ সফদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছে। তারা তিনজনই আদালতে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। নওয়াজ শরীফ প্রতিনিধির মাধ্যমে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন, বর্তমানে অসুস্থ স্ত্রীর প্রতি সময় দিতে তিনি ইংল্যান্ডে রয়েছেন।
২০১৬ সালে পানামাভিত্তিক ল ফার্ম মোসাক ফনসেকার ফাঁস হওয়া নথিতে দেখা যায় নওয়াজ শরীফ এবং তার মেয়ে ও দুই পুত্র ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ডে অফশোর হোল্ডিং কোম্পানি খুলেছেন এবং সেই কোম্পানির মাধ্যমে লন্ডনে বিলাসবহুল ফ্ল্যাট কিনেছেন। এই অভিযোগের প্রেক্ষিতেই পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট তাকে অযোগ্য ঘোষণা করে এবং ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরোকে তার বিরুদ্ধে তদন্ত করে বিচার করার নির্দেশ দেয়। সুপ্রিম কোর্ট নিয়োজিত আরেকটি প্যানেল বলেছে, নওয়াজ পরিবারের আয়ের সঙ্গে তাদের সম্পদের পরিমাণে অসংগতি রয়েছে। মরিয়ম ও তার ভাইদের বিরুদ্ধে নথি জালিয়াতি করে ভুয়া অফশোর কোম্পানি গঠন করে লন্ডনে ফ্ল্যাট কেনার অভিযোগ করে প্যানেল।