ঢাকা ১০:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দেবিদ্বারে পিতা ধর্ষন করল নিজের মেয়েকে

শাহীন আলম, দেবিদ্বার (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার দেবিদ্বারে ৭ম শ্রেণির স্কুল পড়ুয়া নিজ মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে মাদকাসক্ত পাষন্ড পিতাকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে দেবিদ্বার থানা পুলিশ।

ভিকটিমের মা হালিমা বেগম (৩৩) এর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ দেবিদ্বার পৌরসভার বানিয়াপাড়া গ্রামের মৃত নুরুল ইসলাম পুত্র মোঃ জামশেদ আলম(৩৮) এর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(১) ধারায় ধর্ষণ মামলা রুজু করে আসামীকে গ্রেপ্তার করে। ভিকটিমের মায়ের অভিযোগ প্রাপ্তির পূর্বেই থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বানিয়াপাড়া গ্রামের নিজ বাড়ীর সামনে থেকে মাদক সেবনকালে ৩ পুরিয়া গাঁজা সহ আসামী পাষন্ড পিতাকে হাতেনাতে আটক করে।

ধর্ষণ মামলার পাশাপাশি মাদক সেবনের দায়ে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক দেবিদ্বার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  সাইফুল ইসলাম জামসেদ আলমকে ৬ মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন।

ভিকটিমের মা হালিমা বেগম তার এজাহারে উল্লেখ করেন ৫ মাস পূর্বে তার স্বামী তাকে মারপিট করে ঘর থেকে বের করে দেয় পরে তিনি উপজেলার সুলতানপুর গজারিয়া গ্রামের পিতার বাড়ীতে আশ্রয় নেন। ০৬ বছর বয়সী পুত্র হাসান ও সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া ভিকটিম বানিয়াপাড়া বাবার সাথেই থাকতো। শনিবার রাত ২টা পাষন্ড পিতা জামশেদ ঘুমন্ত কন্যাকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।

পরে ভিকটিমের মুখে ঘটনা শুনে মা হালিমা বেগম দেবিদ্বার থানায় অভিযোগ করেন।

মায়ের অভিযোগে দেবিদ্বার থানা পুলিশ তাকে আটক করে  মামলা নং-২১, -নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশো/০৩) এর ৯(১) ধারায় মামলা রুজু হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই আসাদুল ইসলামের আবেদনের প্রেক্ষিতে ভিকটিমের মেডিকেল পরীক্ষা ও বিজ্ঞ আদালতে জবানবন্দি রেকর্ড ২৭/০৭/১৬ইং তারিখ সম্পন্ন হয়। বিজ্ঞ আদালতে ভিকটিমের মাদকাসক্ত পিতা কিভাবে তাকে জোর করে ধর্ষণ করেছে তার বর্ণনার জবানবন্দি দেয় । আসামী বর্তমানে মাদক সেবনের কারনে ০৬ মাসের কারাদন্ডে ভোগের পাশাপাশি ধর্ষণ মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে জেলহাজতে আছে।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

দেবিদ্বারে পিতা ধর্ষন করল নিজের মেয়েকে

আপডেট সময় ১০:৫৮:১১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩১ জুলাই ২০১৬
শাহীন আলম, দেবিদ্বার (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার দেবিদ্বারে ৭ম শ্রেণির স্কুল পড়ুয়া নিজ মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে মাদকাসক্ত পাষন্ড পিতাকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে দেবিদ্বার থানা পুলিশ।

ভিকটিমের মা হালিমা বেগম (৩৩) এর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ দেবিদ্বার পৌরসভার বানিয়াপাড়া গ্রামের মৃত নুরুল ইসলাম পুত্র মোঃ জামশেদ আলম(৩৮) এর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(১) ধারায় ধর্ষণ মামলা রুজু করে আসামীকে গ্রেপ্তার করে। ভিকটিমের মায়ের অভিযোগ প্রাপ্তির পূর্বেই থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বানিয়াপাড়া গ্রামের নিজ বাড়ীর সামনে থেকে মাদক সেবনকালে ৩ পুরিয়া গাঁজা সহ আসামী পাষন্ড পিতাকে হাতেনাতে আটক করে।

ধর্ষণ মামলার পাশাপাশি মাদক সেবনের দায়ে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক দেবিদ্বার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  সাইফুল ইসলাম জামসেদ আলমকে ৬ মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন।

ভিকটিমের মা হালিমা বেগম তার এজাহারে উল্লেখ করেন ৫ মাস পূর্বে তার স্বামী তাকে মারপিট করে ঘর থেকে বের করে দেয় পরে তিনি উপজেলার সুলতানপুর গজারিয়া গ্রামের পিতার বাড়ীতে আশ্রয় নেন। ০৬ বছর বয়সী পুত্র হাসান ও সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া ভিকটিম বানিয়াপাড়া বাবার সাথেই থাকতো। শনিবার রাত ২টা পাষন্ড পিতা জামশেদ ঘুমন্ত কন্যাকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।

পরে ভিকটিমের মুখে ঘটনা শুনে মা হালিমা বেগম দেবিদ্বার থানায় অভিযোগ করেন।

মায়ের অভিযোগে দেবিদ্বার থানা পুলিশ তাকে আটক করে  মামলা নং-২১, -নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশো/০৩) এর ৯(১) ধারায় মামলা রুজু হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই আসাদুল ইসলামের আবেদনের প্রেক্ষিতে ভিকটিমের মেডিকেল পরীক্ষা ও বিজ্ঞ আদালতে জবানবন্দি রেকর্ড ২৭/০৭/১৬ইং তারিখ সম্পন্ন হয়। বিজ্ঞ আদালতে ভিকটিমের মাদকাসক্ত পিতা কিভাবে তাকে জোর করে ধর্ষণ করেছে তার বর্ণনার জবানবন্দি দেয় । আসামী বর্তমানে মাদক সেবনের কারনে ০৬ মাসের কারাদন্ডে ভোগের পাশাপাশি ধর্ষণ মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে জেলহাজতে আছে।