ঢাকা ০৪:০৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দেবিদ্বারে সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সহ গ্রেফতার ৩

দেবিদ্বার (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার দেবিদ্বারে পুলিশের হাতে ধরা পড়লো আলোড়ন সৃষ্টিকারী প্রতারক চক্রের ৩ সদস্য। গত কয়েক বছর যাবত তারা বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে মানুষকে জিম্মি করে মুক্তিপণ আদায় করছিল এই চক্রটি ।
এমন অভিযোগের ভিত্তিতে  আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা টানা কিছুদিন যাবত খুঁজছিল ।
গত শুক্রবার রাতে উপজেলার মির্জানগর এলাকা থেকে এ চক্রের হোতা আবুল খায়ের, সাবেক বিএনপি নেতা বর্তমানে  হাইব্রিড সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা  জহির সরকার, রোকসানা বেগমকে ফাঁদ পেতে গ্রেফতার করে দেবিদ্বার থানা পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, কুমিল্লা জেলার দেবিদ্বার উপজেলার মির্জানগর গ্রামের মৃত ছন্দু মিয়ার ছেলে আবুল খায়ের ও তার স্ত্রী রোকসানা বেগম,পাশ^বর্তী ভিংলাবাড়ী গ্রামের মতিন সরকারের ছেলে হাইবিড্র সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা জহির সরকারসহ একটি প্রতারক চক্র দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন লোকজনকে জিম্মি করে মুক্তিপণ আদায় করে আসছিল। এ চক্রের নারী সদস্যরা বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজনকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে মির্জানগর এলাকার নির্জন বাড়ীতে এনে আটকে রেখে মুক্তিপণ আদায় করতো।

সহজেই এই প্রতারক চক্রের সদস্যদের ফাঁদে পড়ে প্রবাসী, ব্যবসায়ী, ছাত্রসহ অসংখ্য লোকজন স্বর্বস্ব হারিয়েছে। বেশ কয়েক মাস যাবত এ চক্রের সদস্যদেরকে আটক করতে আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা চেষ্টা চালিয়ে আসছিল। ইতোপুর্বে দেবিদ্বার থানা পুলিশের সদস্যরা মোয়াক্কেল সেজে এ চক্রের সদস্যের সাথে মোবাইল ফোনে সখ্যতা গড়ে তোলে। পরে শুক্রবার রাতে তাদের আস্তানায় প্রবেশ করলে দুই পুলিশ সদস্যকে মুহুর্তের মধ্যেই জিম্মি করা হয়।

এই সময় দেবিদ্বার থানার  এসআই আসাদ সহ  সঙ্গীয় ফোস অভিযান পরিচালনা করে প্রতারক  চক্রের হোতা আবুল খায়ের (৪০) রোকসানা বেগম(৩৫)  জহির সরকার (২৮) কে গ্রেফতার করে ।

পরের দিন শনিবার দুপুরে তাদেরকে ভ্রাম্যমান আদালতে সোপর্দ করা হয়। এ সময় দেবিদ্বার  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রবীন্দ্র চাকমা আবুল খায়েরকে ২ বছর, রোকসানা বেগমকে ১ বছর, ও জহির সরকারকে ৬ মাসের কারাদ- প্রদান করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

এ ব্যাপারে দেবিদ্বার থানা ওসি মো. মিজানুর রহমান বলেন, এই প্রতারক চক্রটি বিভিন্ন কৌশলে প্রবাসী ,ব্যবসায়ী ,চাকুরীজীবী সহ স্কুল ,কলেজের ছাত্রদের প্রেমের প্রলোভনে ফেলে একটি নির্জন যায়গায় এনে তাদের কাছ থেকে নগদ টাকা ছিনতাই ও জিম্মি করে নগদ অর্থ,মোবাইল ফোন ও মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে টাকা নিত । গত কয়েক মাস যাবত প্রতারক চক্রটিকে গ্রেফতার করতে দেবিদ্বার পুলিশ পৃথক অভিযান চালায় । অবশেষে তাদেরকে গত শুক্রবার ভ্রাম্যমান আদালতে সাজা দিয়ে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে ।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

দেবিদ্বারে সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সহ গ্রেফতার ৩

আপডেট সময় ০২:০২:৩৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭
দেবিদ্বার (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার দেবিদ্বারে পুলিশের হাতে ধরা পড়লো আলোড়ন সৃষ্টিকারী প্রতারক চক্রের ৩ সদস্য। গত কয়েক বছর যাবত তারা বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে মানুষকে জিম্মি করে মুক্তিপণ আদায় করছিল এই চক্রটি ।
এমন অভিযোগের ভিত্তিতে  আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা টানা কিছুদিন যাবত খুঁজছিল ।
গত শুক্রবার রাতে উপজেলার মির্জানগর এলাকা থেকে এ চক্রের হোতা আবুল খায়ের, সাবেক বিএনপি নেতা বর্তমানে  হাইব্রিড সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা  জহির সরকার, রোকসানা বেগমকে ফাঁদ পেতে গ্রেফতার করে দেবিদ্বার থানা পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, কুমিল্লা জেলার দেবিদ্বার উপজেলার মির্জানগর গ্রামের মৃত ছন্দু মিয়ার ছেলে আবুল খায়ের ও তার স্ত্রী রোকসানা বেগম,পাশ^বর্তী ভিংলাবাড়ী গ্রামের মতিন সরকারের ছেলে হাইবিড্র সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা জহির সরকারসহ একটি প্রতারক চক্র দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন লোকজনকে জিম্মি করে মুক্তিপণ আদায় করে আসছিল। এ চক্রের নারী সদস্যরা বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজনকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে মির্জানগর এলাকার নির্জন বাড়ীতে এনে আটকে রেখে মুক্তিপণ আদায় করতো।

সহজেই এই প্রতারক চক্রের সদস্যদের ফাঁদে পড়ে প্রবাসী, ব্যবসায়ী, ছাত্রসহ অসংখ্য লোকজন স্বর্বস্ব হারিয়েছে। বেশ কয়েক মাস যাবত এ চক্রের সদস্যদেরকে আটক করতে আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা চেষ্টা চালিয়ে আসছিল। ইতোপুর্বে দেবিদ্বার থানা পুলিশের সদস্যরা মোয়াক্কেল সেজে এ চক্রের সদস্যের সাথে মোবাইল ফোনে সখ্যতা গড়ে তোলে। পরে শুক্রবার রাতে তাদের আস্তানায় প্রবেশ করলে দুই পুলিশ সদস্যকে মুহুর্তের মধ্যেই জিম্মি করা হয়।

এই সময় দেবিদ্বার থানার  এসআই আসাদ সহ  সঙ্গীয় ফোস অভিযান পরিচালনা করে প্রতারক  চক্রের হোতা আবুল খায়ের (৪০) রোকসানা বেগম(৩৫)  জহির সরকার (২৮) কে গ্রেফতার করে ।

পরের দিন শনিবার দুপুরে তাদেরকে ভ্রাম্যমান আদালতে সোপর্দ করা হয়। এ সময় দেবিদ্বার  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রবীন্দ্র চাকমা আবুল খায়েরকে ২ বছর, রোকসানা বেগমকে ১ বছর, ও জহির সরকারকে ৬ মাসের কারাদ- প্রদান করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

এ ব্যাপারে দেবিদ্বার থানা ওসি মো. মিজানুর রহমান বলেন, এই প্রতারক চক্রটি বিভিন্ন কৌশলে প্রবাসী ,ব্যবসায়ী ,চাকুরীজীবী সহ স্কুল ,কলেজের ছাত্রদের প্রেমের প্রলোভনে ফেলে একটি নির্জন যায়গায় এনে তাদের কাছ থেকে নগদ টাকা ছিনতাই ও জিম্মি করে নগদ অর্থ,মোবাইল ফোন ও মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে টাকা নিত । গত কয়েক মাস যাবত প্রতারক চক্রটিকে গ্রেফতার করতে দেবিদ্বার পুলিশ পৃথক অভিযান চালায় । অবশেষে তাদেরকে গত শুক্রবার ভ্রাম্যমান আদালতে সাজা দিয়ে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে ।