ঢাকা ০৯:১৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নতুন বছরে মেসির সামনে যেসব রেকর্ডের হাতছানি

খেলাধূলা :

ষষ্ঠবারের মতো ব্যালন ডি’অর জিতে বার্সেলোনা তারকা লিওনেল মেসি তার প্রজন্মের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিশ্চিয়ানো রোনাদোকে ছাড়িয়ে গেছেন। শুধুমাত্র ব্যালন ডি’অরই নয়, এ বছর ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের খেতাবটাও নিজের করে নিয়েছেন এই আর্জেন্টাইন। এবার মেসির সামনে লক্ষ্য হতে পারে সর্বকালের সেরা ফুটবলার ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার পেলেকে ছাড়িয়ে যাওয়া।

বয়স বিবেচনায় ৩২ বছর বয়সী মেসির সামনে পেলের তিনটি বিশ্বকাপ জয়ের কৃতিত্ব স্পর্শ করা একেবারেই অসম্ভব। তবে একদিকে পেলেকে অবশ্যই ছাড়িয়ে যেতে পারেন। কোনো একটি ক্লাবের হয়ে সবচেয়ে বেশী সংখ্যক গোলের রেকর্ডের ক্ষেত্রে পেলেকে ছাড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে মেসির সামনে।

১৯৫৬ থেকে ১৯৭৪ সালের মধ্যে ব্রাজিলিয়ান ক্লাব সান্তোসের হয়ে পেলে ৬৪৩টি গোল করেছেন। এদিকে মেসি সব ধরনের প্রতিযোগিতায় বার্সেলোনার জার্সি গায়ে এ পর্যন্ত করেছেন ৬১৮ গোল। ২০১৯-২০ মৌসুমে লা লিগায় বার্সেলোনার হাতে এখনো ১৯টি ম্যাচ। তার সাথে ফাইনাল পর্যন্ত খেলতে পারলে সাতটি অথবা ন্যুনতম দুটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচতো রয়েছেই। সুপারকোপার ফাইনালে খেলতে পারলে দুটি ও কোপা দেল রে’তেও শেষ পর্যন্ত খেললে হাতে রয়েছে আরো ছয়টি ম্যাচ। সব মিলিয়ে মেসির সামনে পেলের মাইলফলক স্পর্শের জন্য সম্ভাব্য অন্তত ৩৩টি ম্যাচ বাকি রয়েছে।

২০২০ সালে মেসি স্পর্শ করতে পারেন এমন কিছু সম্ভাব্য রেকর্ড :

১৬ : এবারের প্রতিযোগিতার মাধ্যমে মেসি টানা ১৫টি উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে গোল করার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন। যার সবগুলোই ছিল বার্সেলোনার জার্সি গায়ে। আর আগামী বছরও এই ধারা বজায় থাকলে সেই সংখ্যাটি হবে ১৬। সবচেয়ে বেশী ১৬টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ আসরে গোল করে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের তারকা রায়ান গিগস এই রেকর্ড নিজের করে রেখেছেন। আগামী মৌসুমে ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডোর সামনেও একই সুযোগ রয়েছে।

৮ : আটটি করে হ্যাটট্রিক করে মেসি ও রোনাল্ডো উভয় চ্যাম্পিয়ন্স লিগে অনন্য এক রেকর্ড গড়ে বসে আছেন। উভয়ের সামনে সুযোগ আছে আগামী বছর এই হ্যাটট্রিকের সংখ্যা বাড়িয়ে নেবার।

৭ : লা লিগায় ১৩টি গোল করে সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবেই ২০২০ সালে স্প্যানিশ লিগ শুরু করবেন মেসি। ১২ গোল করে মেসির ঘাড়ের উপর নি:শ্বাস ছাড়ছেন রিয়াল মাদ্রিদের ফ্রেঞ্চ তারকা করিম বেনজেমা। মেসি যদি এই লিড ধরে রাখতে পারেন তবে সপ্তমবারের মত লা লিগায় পিচিচি এ্যাওয়ার্ড পাবেন। আর এর মাধ্যমে এ্যাথলেটিকো বিলবাওয়ের কিংবদন্তী ফরোয়ার্ড টেলমো জারার ষষ্ঠ পিচিচি এ্যাওার্ডকে ছাড়িয়ে যাবেন। ৪৩ : ইতোমধ্যেই বার্সেলোনার হয়ে জাভি হার্নান্দেজের সর্বোচ্চ ৪২টি এল ক্লাসিকো খেলার রেকর্ড স্পর্শ করেছেন মেসি। রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে আর একটি ম্যাচ খেললেই তিনি জাভিকে ছাড়িয়ে নতুন রেকর্ড গড়বেন। খবর বাসসের।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগরে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

নতুন বছরে মেসির সামনে যেসব রেকর্ডের হাতছানি

আপডেট সময় ১১:২৭:৫৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০১৯

খেলাধূলা :

ষষ্ঠবারের মতো ব্যালন ডি’অর জিতে বার্সেলোনা তারকা লিওনেল মেসি তার প্রজন্মের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিশ্চিয়ানো রোনাদোকে ছাড়িয়ে গেছেন। শুধুমাত্র ব্যালন ডি’অরই নয়, এ বছর ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের খেতাবটাও নিজের করে নিয়েছেন এই আর্জেন্টাইন। এবার মেসির সামনে লক্ষ্য হতে পারে সর্বকালের সেরা ফুটবলার ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার পেলেকে ছাড়িয়ে যাওয়া।

বয়স বিবেচনায় ৩২ বছর বয়সী মেসির সামনে পেলের তিনটি বিশ্বকাপ জয়ের কৃতিত্ব স্পর্শ করা একেবারেই অসম্ভব। তবে একদিকে পেলেকে অবশ্যই ছাড়িয়ে যেতে পারেন। কোনো একটি ক্লাবের হয়ে সবচেয়ে বেশী সংখ্যক গোলের রেকর্ডের ক্ষেত্রে পেলেকে ছাড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে মেসির সামনে।

১৯৫৬ থেকে ১৯৭৪ সালের মধ্যে ব্রাজিলিয়ান ক্লাব সান্তোসের হয়ে পেলে ৬৪৩টি গোল করেছেন। এদিকে মেসি সব ধরনের প্রতিযোগিতায় বার্সেলোনার জার্সি গায়ে এ পর্যন্ত করেছেন ৬১৮ গোল। ২০১৯-২০ মৌসুমে লা লিগায় বার্সেলোনার হাতে এখনো ১৯টি ম্যাচ। তার সাথে ফাইনাল পর্যন্ত খেলতে পারলে সাতটি অথবা ন্যুনতম দুটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচতো রয়েছেই। সুপারকোপার ফাইনালে খেলতে পারলে দুটি ও কোপা দেল রে’তেও শেষ পর্যন্ত খেললে হাতে রয়েছে আরো ছয়টি ম্যাচ। সব মিলিয়ে মেসির সামনে পেলের মাইলফলক স্পর্শের জন্য সম্ভাব্য অন্তত ৩৩টি ম্যাচ বাকি রয়েছে।

২০২০ সালে মেসি স্পর্শ করতে পারেন এমন কিছু সম্ভাব্য রেকর্ড :

১৬ : এবারের প্রতিযোগিতার মাধ্যমে মেসি টানা ১৫টি উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে গোল করার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন। যার সবগুলোই ছিল বার্সেলোনার জার্সি গায়ে। আর আগামী বছরও এই ধারা বজায় থাকলে সেই সংখ্যাটি হবে ১৬। সবচেয়ে বেশী ১৬টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ আসরে গোল করে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের তারকা রায়ান গিগস এই রেকর্ড নিজের করে রেখেছেন। আগামী মৌসুমে ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডোর সামনেও একই সুযোগ রয়েছে।

৮ : আটটি করে হ্যাটট্রিক করে মেসি ও রোনাল্ডো উভয় চ্যাম্পিয়ন্স লিগে অনন্য এক রেকর্ড গড়ে বসে আছেন। উভয়ের সামনে সুযোগ আছে আগামী বছর এই হ্যাটট্রিকের সংখ্যা বাড়িয়ে নেবার।

৭ : লা লিগায় ১৩টি গোল করে সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবেই ২০২০ সালে স্প্যানিশ লিগ শুরু করবেন মেসি। ১২ গোল করে মেসির ঘাড়ের উপর নি:শ্বাস ছাড়ছেন রিয়াল মাদ্রিদের ফ্রেঞ্চ তারকা করিম বেনজেমা। মেসি যদি এই লিড ধরে রাখতে পারেন তবে সপ্তমবারের মত লা লিগায় পিচিচি এ্যাওয়ার্ড পাবেন। আর এর মাধ্যমে এ্যাথলেটিকো বিলবাওয়ের কিংবদন্তী ফরোয়ার্ড টেলমো জারার ষষ্ঠ পিচিচি এ্যাওার্ডকে ছাড়িয়ে যাবেন। ৪৩ : ইতোমধ্যেই বার্সেলোনার হয়ে জাভি হার্নান্দেজের সর্বোচ্চ ৪২টি এল ক্লাসিকো খেলার রেকর্ড স্পর্শ করেছেন মেসি। রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে আর একটি ম্যাচ খেললেই তিনি জাভিকে ছাড়িয়ে নতুন রেকর্ড গড়বেন। খবর বাসসের।