ঢাকা ০১:১৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নথি না আসায় খালেদার জামিন আদেশ সোমবার

জাতীয় ডেস্কঃ

বিচারিক আদালতে নথি না আসায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের ওপর আদেশ দিতে পারেনি হাইকোর্ট। আদালত সোমবার বিষয়টির ওপর আদেশের জন্য দিন ধার্য রেখেছে। রোববার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এ  দিন ধার্য করে।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী সুপ্রিমকোর্ট বার সভাপতি জয়নাল আবেদীন আদালতে বলেন, নিম্ন আদালতে নথি আসার সাপেক্ষে জমিন বিষয়ে আদেশের জন্য আজ দিন ধার্য ছিল। কিন্তু এখনো নথি আসেনি। হাইকোর্টের এখতিয়ার রয়েছে নথি ছাড়াই এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আদেশ দেওয়ার।

এ পর্যায়ে বেঞ্চের জ্যেষ্ঠ বিচারক এম ইনায়েতুর রহিম বলেন, গত ২২ ফেব্রুয়ারি নথি তলবের আদেশ দেওয়া হয়েছিল। গত ২৩ ও ২৪ ফেব্রুয়ারি ছিল সরকারি ছুটির দিন। সেই হিসেবে ২৫ ফেব্রুয়ারি যদি আদেশের অনুলিপি পেয়ে থাকে। তাহলে আজ ১৫ দিনের সময় সীমা শেষ হবে।

বার সভাপতিকে জ্যেষ্ঠ বিচারপতি বলেন, আপনি যে এখতিয়ার প্রয়োগের কথা বলেছেন, সেটা করার সুযোগ আমাদের রয়েছে। কিন্তু তার আগে দেখতে হবে, আমরা যে আদেশ দিয়েছিলাম, সেটা কীভাবে বাস্তবায়ন হয়েছে। এরপরই আদালত আগামীকাল বিকালে জামিন বিষয়ে আদেশের দিন ধার্য করে।

আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, মওদুদ আহম্মদ, খন্দকার মাহাবুব হোসেন ও কায়সার কামাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটনি জেনারেল মাহবুবে আলম। আর দুদকের পক্ষে ছিলেন খুরশীদ আলম খান।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

নথি না আসায় খালেদার জামিন আদেশ সোমবার

আপডেট সময় ০৭:২৩:৫৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১১ মার্চ ২০১৮
জাতীয় ডেস্কঃ

বিচারিক আদালতে নথি না আসায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের ওপর আদেশ দিতে পারেনি হাইকোর্ট। আদালত সোমবার বিষয়টির ওপর আদেশের জন্য দিন ধার্য রেখেছে। রোববার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এ  দিন ধার্য করে।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী সুপ্রিমকোর্ট বার সভাপতি জয়নাল আবেদীন আদালতে বলেন, নিম্ন আদালতে নথি আসার সাপেক্ষে জমিন বিষয়ে আদেশের জন্য আজ দিন ধার্য ছিল। কিন্তু এখনো নথি আসেনি। হাইকোর্টের এখতিয়ার রয়েছে নথি ছাড়াই এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আদেশ দেওয়ার।

এ পর্যায়ে বেঞ্চের জ্যেষ্ঠ বিচারক এম ইনায়েতুর রহিম বলেন, গত ২২ ফেব্রুয়ারি নথি তলবের আদেশ দেওয়া হয়েছিল। গত ২৩ ও ২৪ ফেব্রুয়ারি ছিল সরকারি ছুটির দিন। সেই হিসেবে ২৫ ফেব্রুয়ারি যদি আদেশের অনুলিপি পেয়ে থাকে। তাহলে আজ ১৫ দিনের সময় সীমা শেষ হবে।

বার সভাপতিকে জ্যেষ্ঠ বিচারপতি বলেন, আপনি যে এখতিয়ার প্রয়োগের কথা বলেছেন, সেটা করার সুযোগ আমাদের রয়েছে। কিন্তু তার আগে দেখতে হবে, আমরা যে আদেশ দিয়েছিলাম, সেটা কীভাবে বাস্তবায়ন হয়েছে। এরপরই আদালত আগামীকাল বিকালে জামিন বিষয়ে আদেশের দিন ধার্য করে।

আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, মওদুদ আহম্মদ, খন্দকার মাহাবুব হোসেন ও কায়সার কামাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটনি জেনারেল মাহবুবে আলম। আর দুদকের পক্ষে ছিলেন খুরশীদ আলম খান।