ঢাকা ০৮:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে সিটি অব লন্ডন নির্বাচনে জয়ী মনসুর আলী

প্রবাস ডেস্কঃ
প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে সিটি অব লন্ডন নির্বাচনে লেবার দলের হয়ে কাউন্সিলর পদে জয়ী হলেন মনসুর আলী। ২৩ মার্চে হওয়া এই নির্বাচনে বিশ্বের অন্যতম পুরাতন এক নগরী পরিচালনার জন্য লন্ডন মেয়র সাদিক খানের সঙ্গী হলেন মনসুর আলী।
এই জয়কে লেবার পার্টিও ঐতিহাসিক হিসেবে দেখছে। কেননা প্রথমবারের মত কোন ব্রিটিশ বাংলাদেশি লেবার পার্টি প্রার্থী লন্ডন নির্বাচনে জয় পেল। শুধু তাই নয়, এবারের নির্বাচনে লেবার পার্টি জয় পেয়েছে পাঁচটি আসন থেকে।
লন্ডনে কয়েক মিলিয়ন পাউন্ডের হাউজিং প্রজেক্টের কারণে বাংলাদেশি কমিউনিটি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়। আর সে কারণেই নির্বাচনে লড়তে আগ্রহী হন মনসুর আলী।
সিটি অব লন্ডনে বড় হওয়া মনসুর আলী একজন সফল চলচ্চিত্র পরিচালক। বর্তমানে ‘লেমলাইট ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড’ প্রতিষ্ঠানের সিইও তিনি। এ ছাড়াও লেখালেখি ও প্রযোজনার কাজ করেন তিনি। বিশ্বের অন্যতম প্রসিদ্ধ শহর লন্ডনে বড় হলেও এখানের স্থানীয় তরুণদের জন্য বাস্তবিক অর্থে কাজের সুযোগ তৈরি হচ্ছে না বলে মনে করেন মনসুর আলী। তিনি নির্বাচনী প্রচারণাকালে আরো জানান, লন্ডনে তার আসনের কাউন্সিল থেকে শিল্প-সংস্কৃতি নিয়ে অগ্রসর হওয়ার জন্য কোন অনুপ্রেরণা প্রদান করা হয় না।
নির্বাচনে জয় পাওয়ার পর মনসুর আলী বলেন, আমার কমিউনিটি আমাকে ভোটের মাধ্যমে যে সহায়তা প্রদান করেছে তার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। কিন্তু ভোটের সংখ্যা দেখি সত্যিকার অর্থেই আমি বিস্মিত হয়েছি।
তিনি আরো বলেন, আমার চলচ্চিত্রের মাধ্যমে অনেকের সঙ্গে পরিচিত হয়েছি। সেই সঙ্গে অন্যের কমিউনিটির ইতিহাস ও ত্যাগের বিষয়ে সমাজের সবাইকে সচেতন করার চেষ্টা করেছি আমার চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। আশা করছি কাউন্সিলর হিসেবেও একই কাজ করে যাব।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে সিটি অব লন্ডন নির্বাচনে জয়ী মনসুর আলী

আপডেট সময় ০২:৩৬:১৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মার্চ ২০১৭
প্রবাস ডেস্কঃ
প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে সিটি অব লন্ডন নির্বাচনে লেবার দলের হয়ে কাউন্সিলর পদে জয়ী হলেন মনসুর আলী। ২৩ মার্চে হওয়া এই নির্বাচনে বিশ্বের অন্যতম পুরাতন এক নগরী পরিচালনার জন্য লন্ডন মেয়র সাদিক খানের সঙ্গী হলেন মনসুর আলী।
এই জয়কে লেবার পার্টিও ঐতিহাসিক হিসেবে দেখছে। কেননা প্রথমবারের মত কোন ব্রিটিশ বাংলাদেশি লেবার পার্টি প্রার্থী লন্ডন নির্বাচনে জয় পেল। শুধু তাই নয়, এবারের নির্বাচনে লেবার পার্টি জয় পেয়েছে পাঁচটি আসন থেকে।
লন্ডনে কয়েক মিলিয়ন পাউন্ডের হাউজিং প্রজেক্টের কারণে বাংলাদেশি কমিউনিটি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়। আর সে কারণেই নির্বাচনে লড়তে আগ্রহী হন মনসুর আলী।
সিটি অব লন্ডনে বড় হওয়া মনসুর আলী একজন সফল চলচ্চিত্র পরিচালক। বর্তমানে ‘লেমলাইট ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড’ প্রতিষ্ঠানের সিইও তিনি। এ ছাড়াও লেখালেখি ও প্রযোজনার কাজ করেন তিনি। বিশ্বের অন্যতম প্রসিদ্ধ শহর লন্ডনে বড় হলেও এখানের স্থানীয় তরুণদের জন্য বাস্তবিক অর্থে কাজের সুযোগ তৈরি হচ্ছে না বলে মনে করেন মনসুর আলী। তিনি নির্বাচনী প্রচারণাকালে আরো জানান, লন্ডনে তার আসনের কাউন্সিল থেকে শিল্প-সংস্কৃতি নিয়ে অগ্রসর হওয়ার জন্য কোন অনুপ্রেরণা প্রদান করা হয় না।
নির্বাচনে জয় পাওয়ার পর মনসুর আলী বলেন, আমার কমিউনিটি আমাকে ভোটের মাধ্যমে যে সহায়তা প্রদান করেছে তার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। কিন্তু ভোটের সংখ্যা দেখি সত্যিকার অর্থেই আমি বিস্মিত হয়েছি।
তিনি আরো বলেন, আমার চলচ্চিত্রের মাধ্যমে অনেকের সঙ্গে পরিচিত হয়েছি। সেই সঙ্গে অন্যের কমিউনিটির ইতিহাস ও ত্যাগের বিষয়ে সমাজের সবাইকে সচেতন করার চেষ্টা করেছি আমার চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। আশা করছি কাউন্সিলর হিসেবেও একই কাজ করে যাব।