ঢাকা ০১:৫৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধুর খুনি খন্দকার মোশতাকের দাউদকান্দির বাড়ি উচ্ছেদের দাবিতে বিক্ষোভ

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ
কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনি খন্দকার মোশতাকের বাড়ি দাউদকান্দি থেকে উচ্ছেদ, খুনির কবর অপসারণ এবং সকলপ্রকার সম্পদ বাজেয়াপ্তের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল, অবস্থান ধর্মঘট ও সমাবেশ হয়েছে।
দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মেজর (অব.) মোহাম্মদ আলী সুমনের নেতৃত্বে কর্মসূচিতে মেঘনা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, দাউদকান্দি পৌরসভার মেয়র নাঈম ইউসূফ, দাউদকান্দি উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট আহসান হাবিব চৌধুরী লিল মিয়া, সহ-সভাপতি সাংবাদিক মো. হাবিবুর রহমান হাবিব, সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সালাম, উপজেলা নারী আওয়ামী লীগ সভাপতি জেবুন্নেছা জেবু, শ্রমিকলীগ সভাপতি রকিব উদ্দীন রকিব, যুবলীগ নেতা হেলাল, ছাত্রলীগ সভাপতি নয়নসহ দাউদকান্দি ও মেঘনার আওয়ামী লীগ, শ্রমিকলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতারার।
বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শহীদনগর বাস স্ট্যান্ড থেকে খুনী খন্দকার মোশতাকের বাড়ি দশপাড়ায় যেতে চাইলে ষোলপাড়া এলাকায় পুলিশের বাধার মুখে পড়ে রাস্তায় অবস্থান ধর্মঘট শুরু করে।
মিছিল পরবর্তী সমাবেশে বক্তারা বলেন, ‘কুমিল্লা’ নাম বাদ দিয়ে ‘ময়নামতি’ নামটি বিভাগ হিসেবে ঘোষণার একমাত্র কারণ হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘কুমিল্লা’ নামটি পছন্দ করেন না। তার কারণ হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর খুনি খন্দকার মোশতাক, তাহের উদ্দীন ঠাকুর ও কর্ণেল রশিদের বাড়ি বৃহত্তর কুমিল্লায়। এই তিন খুনির বাড়ি কুমিল্লা হওয়ায় তাদের উচ্ছেদ এবং তাদের সম্পদ বাজেয়াপ্তের জোড় দাবি জানায় বক্তারা। এই তিন খুনির অপকর্মের দায় দাউদকান্দিসহ কুমিল্লার সাধরণ মানুষ নিবে না বলেও হুশিয়ারি দেন বক্তরা।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

বঙ্গবন্ধুর খুনি খন্দকার মোশতাকের দাউদকান্দির বাড়ি উচ্ছেদের দাবিতে বিক্ষোভ

আপডেট সময় ০৪:৪৩:২০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৭
দাউদকান্দি (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ
কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনি খন্দকার মোশতাকের বাড়ি দাউদকান্দি থেকে উচ্ছেদ, খুনির কবর অপসারণ এবং সকলপ্রকার সম্পদ বাজেয়াপ্তের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল, অবস্থান ধর্মঘট ও সমাবেশ হয়েছে।
দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মেজর (অব.) মোহাম্মদ আলী সুমনের নেতৃত্বে কর্মসূচিতে মেঘনা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, দাউদকান্দি পৌরসভার মেয়র নাঈম ইউসূফ, দাউদকান্দি উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট আহসান হাবিব চৌধুরী লিল মিয়া, সহ-সভাপতি সাংবাদিক মো. হাবিবুর রহমান হাবিব, সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সালাম, উপজেলা নারী আওয়ামী লীগ সভাপতি জেবুন্নেছা জেবু, শ্রমিকলীগ সভাপতি রকিব উদ্দীন রকিব, যুবলীগ নেতা হেলাল, ছাত্রলীগ সভাপতি নয়নসহ দাউদকান্দি ও মেঘনার আওয়ামী লীগ, শ্রমিকলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতারার।
বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শহীদনগর বাস স্ট্যান্ড থেকে খুনী খন্দকার মোশতাকের বাড়ি দশপাড়ায় যেতে চাইলে ষোলপাড়া এলাকায় পুলিশের বাধার মুখে পড়ে রাস্তায় অবস্থান ধর্মঘট শুরু করে।
মিছিল পরবর্তী সমাবেশে বক্তারা বলেন, ‘কুমিল্লা’ নাম বাদ দিয়ে ‘ময়নামতি’ নামটি বিভাগ হিসেবে ঘোষণার একমাত্র কারণ হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘কুমিল্লা’ নামটি পছন্দ করেন না। তার কারণ হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর খুনি খন্দকার মোশতাক, তাহের উদ্দীন ঠাকুর ও কর্ণেল রশিদের বাড়ি বৃহত্তর কুমিল্লায়। এই তিন খুনির বাড়ি কুমিল্লা হওয়ায় তাদের উচ্ছেদ এবং তাদের সম্পদ বাজেয়াপ্তের জোড় দাবি জানায় বক্তারা। এই তিন খুনির অপকর্মের দায় দাউদকান্দিসহ কুমিল্লার সাধরণ মানুষ নিবে না বলেও হুশিয়ারি দেন বক্তরা।