ঢাকা ১২:৩৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বরুড়ায় ১০ টাকা কেজির চাল হোটেলে বিক্রির অভিযোগ

বিশেষ প্রতিনিধি:
কুমিল্লার বরুড়ায় হতদরিদ্রদের জন্য ১০ টাকা কেজি মূল্যের চাল আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই উপজেলার ঝলম ইউনিয়নের ডিলার ওমর ফারুকের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠে। স্থানীয় লোকজন টের পেয়ে বৃহস্পতিবার হোটেলে রক্ষিত ১০বস্তা চাল উদ্ধার করে।
ঘটনার পর উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্টরা ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই ওই ডিলার গুদামে তালা লাগিয়ে পালিয়ে যান। এ ঘটনায় এলাকার লোকজনের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে এবং তারা ওই ডিলারের শাস্তির দাবি জানিয়েছে।
জানা যায়, চাল বিতরণকারী ডিলার ওমর ফারুক বৃহস্পতিবার সরকারের বরাদ্দকৃত ১০ টাকা কেজির চাল দরিদ্রদের মাঝে বিতরণ না করে স্থানীয় ঝলম বাজারের হারুন হোটেল ও মাসুম হোটেলে (মোল্লা হোটেল) বিক্রি করে দেন। বিষয়টি এলাকার লোকজন টের পেয়ে হোটেল থেকে ১০বস্তা চাল উদ্ধার করে। এসময় ডিলারের কয়েকজন লোক চাল উদ্ধারকারীদের মারধর করে বস্তাগুলো ওমর ফারুকের গোডাউনে নিয়ে যায়। মারধরে ওই ইউনিয়নের কানাইল গ্রামের মনিরুল ইসলাম নামে একজন আহত হন।
এদিকে খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গেলে ওমর ফারুক গুদামে তালা লাগিয়ে পালিয়ে যান। বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে তিনি জানান, এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ কার্ডধারীসহ এলাকার লোকজনকে সুষ্ঠু তদন্তের বিষয়ে আশ্বস্ত করা হয়েছে। ওমর ফারুকের বিরুদ্ধে তদন্তের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

বরুড়ায় ১০ টাকা কেজির চাল হোটেলে বিক্রির অভিযোগ

আপডেট সময় ০৭:৫৯:০০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৩ এপ্রিল ২০১৮
বিশেষ প্রতিনিধি:
কুমিল্লার বরুড়ায় হতদরিদ্রদের জন্য ১০ টাকা কেজি মূল্যের চাল আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই উপজেলার ঝলম ইউনিয়নের ডিলার ওমর ফারুকের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠে। স্থানীয় লোকজন টের পেয়ে বৃহস্পতিবার হোটেলে রক্ষিত ১০বস্তা চাল উদ্ধার করে।
ঘটনার পর উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্টরা ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই ওই ডিলার গুদামে তালা লাগিয়ে পালিয়ে যান। এ ঘটনায় এলাকার লোকজনের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে এবং তারা ওই ডিলারের শাস্তির দাবি জানিয়েছে।
জানা যায়, চাল বিতরণকারী ডিলার ওমর ফারুক বৃহস্পতিবার সরকারের বরাদ্দকৃত ১০ টাকা কেজির চাল দরিদ্রদের মাঝে বিতরণ না করে স্থানীয় ঝলম বাজারের হারুন হোটেল ও মাসুম হোটেলে (মোল্লা হোটেল) বিক্রি করে দেন। বিষয়টি এলাকার লোকজন টের পেয়ে হোটেল থেকে ১০বস্তা চাল উদ্ধার করে। এসময় ডিলারের কয়েকজন লোক চাল উদ্ধারকারীদের মারধর করে বস্তাগুলো ওমর ফারুকের গোডাউনে নিয়ে যায়। মারধরে ওই ইউনিয়নের কানাইল গ্রামের মনিরুল ইসলাম নামে একজন আহত হন।
এদিকে খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গেলে ওমর ফারুক গুদামে তালা লাগিয়ে পালিয়ে যান। বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে তিনি জানান, এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ কার্ডধারীসহ এলাকার লোকজনকে সুষ্ঠু তদন্তের বিষয়ে আশ্বস্ত করা হয়েছে। ওমর ফারুকের বিরুদ্ধে তদন্তের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।