ঢাকা ১১:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাল্যবিবাহ নিরোধ বিলের নিন্দা বিএনপির

জাতীয় ডেস্কঃ
বিশেষ বিধান রেখে ‘বাল্যবিবাহ নিরোধ বিল’পাসের নিন্দা জানিয়েছে বিএনপি। দলটি বিশেষ ক্ষেত্রে ছাড়ের বিধান বাতিলের দাবি জানিয়ে বলেছে, নারী ও শিশু অধিকারের অগ্রগতিতে বাধা সৃষ্টি করতে এ আইন করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান।
মির্জা ফখরুল বলেন, এই আইন বাংলাদেশের সামাজিক অগ্রগতির ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টি করবে। বিএনপি মনে করে, গত কয়েক দশক ধরে, বিশেষ করে জিয়াউর রহমান নারী ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠা করার পরে শিশু ও নারী অধিকারের ক্ষেত্রে যথেষ্ট অগ্রগতি সাধিত হয়েছে। সেই অগ্রগতিতে বাধা সৃষ্টি করতে এ আইন। বাল্যবিবাহ বাংলাদেশের সামাজিক অগ্রগতির ক্ষেত্রে একটি বড় বাধা।
ফখরুল আরও বলেন, আমরা মনে করি, পূর্বের আইন অনুযায়ী মেয়েদের ‌ ক্ষেত্রে ১৮ বছর ও ছেলেদের ক্ষেত্রে ২১ বছর বয়সসীমা সঠিক ছিল। এখানে কোনো বিশেষ প্রেক্ষাপট বিধির প্রয়োজন ছিল না। দেশের মানুষ মেয়েদের ক্ষেত্রে ১৮ ও ছেলেদের ক্ষেত্রে ২১ বছর বিবাহের ন্যূনতম বয়স মেনে নিয়েছিল। এই আইন পাস করার মধ্য দিয়ে সরকার তার প্রতিক্রিয়াশীল চরিত্রের বহিঃপ্রকাশ ঘটাল।
বিভিন্ন মহলের আপত্তির মুখে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি বিশেষ প্রেক্ষাপটে কম বয়সে ছেলেমেয়েদের বিয়ের বিধান রেখে বাল্যবিবাহ নিরোধ বিল ২০১৭ জাতীয় সংসদে পাস হয়।
ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

মুরাদনগর ভয়াবহ আগুন কয়ক কাটি টাকার ক্ষতি 

বাল্যবিবাহ নিরোধ বিলের নিন্দা বিএনপির

আপডেট সময় ০৩:২০:৫৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ মার্চ ২০১৭
জাতীয় ডেস্কঃ
বিশেষ বিধান রেখে ‘বাল্যবিবাহ নিরোধ বিল’পাসের নিন্দা জানিয়েছে বিএনপি। দলটি বিশেষ ক্ষেত্রে ছাড়ের বিধান বাতিলের দাবি জানিয়ে বলেছে, নারী ও শিশু অধিকারের অগ্রগতিতে বাধা সৃষ্টি করতে এ আইন করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান।
মির্জা ফখরুল বলেন, এই আইন বাংলাদেশের সামাজিক অগ্রগতির ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টি করবে। বিএনপি মনে করে, গত কয়েক দশক ধরে, বিশেষ করে জিয়াউর রহমান নারী ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠা করার পরে শিশু ও নারী অধিকারের ক্ষেত্রে যথেষ্ট অগ্রগতি সাধিত হয়েছে। সেই অগ্রগতিতে বাধা সৃষ্টি করতে এ আইন। বাল্যবিবাহ বাংলাদেশের সামাজিক অগ্রগতির ক্ষেত্রে একটি বড় বাধা।
ফখরুল আরও বলেন, আমরা মনে করি, পূর্বের আইন অনুযায়ী মেয়েদের ‌ ক্ষেত্রে ১৮ বছর ও ছেলেদের ক্ষেত্রে ২১ বছর বয়সসীমা সঠিক ছিল। এখানে কোনো বিশেষ প্রেক্ষাপট বিধির প্রয়োজন ছিল না। দেশের মানুষ মেয়েদের ক্ষেত্রে ১৮ ও ছেলেদের ক্ষেত্রে ২১ বছর বিবাহের ন্যূনতম বয়স মেনে নিয়েছিল। এই আইন পাস করার মধ্য দিয়ে সরকার তার প্রতিক্রিয়াশীল চরিত্রের বহিঃপ্রকাশ ঘটাল।
বিভিন্ন মহলের আপত্তির মুখে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি বিশেষ প্রেক্ষাপটে কম বয়সে ছেলেমেয়েদের বিয়ের বিধান রেখে বাল্যবিবাহ নিরোধ বিল ২০১৭ জাতীয় সংসদে পাস হয়।